বাংলা নিউজ > ময়দান > সোমবারই প্রয়াত হয়েছেন মামা- Ranji Trophy-তে করা ঐতিহাসিক সেঞ্চুরি উৎসর্গ

সোমবারই প্রয়াত হয়েছেন মামা- Ranji Trophy-তে করা ঐতিহাসিক সেঞ্চুরি উৎসর্গ

অভিমন্যু ঈশ্বরণ।

সোমবারই অভিমন্যুর খুব প্রিয় জ্যোতি-মামা প্রয়াত হয়েছেন। এই মামা খুব ঘনিষ্ঠ ছিলেন অভিমন্যুর। দেরাদুনের স্টেডিয়ামে গিয়ে সামনাসামনি নাকি অভিমন্যুর খেলা দেখারও কথা ছিল তাঁর। কিন্তু সেই মামার মৃত্যুতেই মন খারাপ অভিমন্যুর। আর প্রয়াত মামাকেই শতরান উৎসর্গ করেছেন তিনি।

দুরন্ত ফর্মে রয়েছেন অভিমন্যু ঈশ্বরণ। নিজের নামাঙ্কিত স্টেডিয়াম অভিমন্যু ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে শতরান হাঁকিয়ে ইতিহাস গড়েছেন। তবু মন ভালো নেই অভিমন্যু ঈশ্বরণের। আসলে জীবনে খুব কাছের, খুব আপন কাউকে হারালে কী আর মন ভালো থাকে!

অভিমন্যুর খুব প্রিয় জ্যোতি-মামা প্রয়াত হয়েছেন। এই মামা খুব ঘনিষ্ঠ ছিলেন অভিমন্যুর। দেরাদুনের স্টেডিয়ামে গিয়ে সামনাসামনি নাকি অভিমন্যুর খেলা দেখারও কথা ছিল তাঁর। কিন্তু সেই মামার মৃত্যুতেই মন খারাপ অভিমন্যুর। আর প্রয়াত মামাকেই শতরান উৎসর্গ করেছেন তিনি।

আরও পড়ুন: টানা ৫টি শতরান করে অজি সিরিজে জাতীয় দলে জায়গা ধরে রাখার দাবি জানালেন ঈশ্বরন

মঙ্গলবারের খেলা শেষে অভিমন্যু বলেন, ‘আমি এই সেঞ্চুরি জ্যোতি মামাকে উৎসর্গ করতে চাই। আমাদের পরিবারের খুব কাছের। কথা ছিল, এই ম্যাচে তিনি আসবেন, সামনে থেকে আমার খেলা দেখবেন। সোমবার হঠাৎ-ই মৃত্যু হয় ওঁর। এই শতরান ওঁর জন্যই। ছোটবেলা থেকে ওঁর কাছ থেকে অনেক ভালোবাসা পেয়েছি। আমাদের পরিবারের খুব কাছের মানুষ ছিলেন।’

ক্রিজে নামলেই যেন শতরান! অভিমন্যু ঈশ্বরণের স্বপ্নের ফর্ম নিয়ে এমনটাই বলা যায়। বাংলাদেশ সফরে ভারত ‘এ’ দলের হয়ে খেলেছেন। রোহিত ছিটকে যাওয়া টেস্ট স্কোয়াডেও ছিলেন অভিমন্যু। যদিও একাদশে সুযোগ পাননি। তবে ‘এ’ দলের হয়ে বাংলাদেশে জোড়া শতরান করেছিলেন বাংলার এই ওপেনার। রঞ্জি ট্রফিতে ফিরেও একই ছন্দে।

অভিমন্যু এ দিন বলছিলেন, ‘পর পর শতরান করতে পেরে খুবই ভালো লাগছে। প্রাথমিক দায়িত্বটুকু পালন করে যেতে চাই। প্রক্রিয়ার মধ্যে থাকাই পছন্দ। ম্যাচে আমরা ভালো জায়গায় রয়েছি। পরিকল্পনা খুবই সহজ। প্রথম ইনিংসে বড় স্কোর গড়তে চাই, যেটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’

আরও পড়ুন: ফ্লপ বিরাট, KKR তারকারা; শতরান MI-র প্লেয়ারের - রঞ্জিতে কোন তারকা কেমন খেললেন?

বাংলা এ বারের রঞ্জিতে প্রথম দু'টি ম্যাচ খেলেছে ঘরের মাঠে। ভারতীয় দলে থাকায় সেই দুই ম্যাচে খেলতে পারেননি অভিমন্যু। গত ম্য়াচে নাগাল্য়ান্ডের বিরুদ্ধে ফিরেই সেঞ্চরি হাঁকিয়েছিলেন তিনি। এ বার উত্তরাখণ্ডের বিরুদ্ধেও ফের শতরান করলেন তিনি। মঙ্গলবার দিনের শেষে ১৪১ রান অপরাজিত রয়েছেন তিনি। স্বাভাবিক ভাবেই আরও বড় রানের স্বপ্ন দেখাচ্ছেন অভিমন্যু।

অভিমন্য়ু রঞ্জিতে টানা দ্বিতীয় এবং প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে টানা চতুর্থ শতরান করলেন। তাঁর শতরানের সৌজন্য়ে উত্তরাখণ্ডের বিরুদ্ধে প্রথম দিনই খুব ভালো জায়গায় বাংলা। যদিও শেষ বেলায় উইকেট হারায় বাংলা। প্রথম দিনের শেষে ৩ উইকেট হারিয়ে ২৬৯ রান তুলেছে বাংলা। অভিমন্যুর শতরান ছাড়াও ৯০ করেছেন সুদীপ ঘরামি। আগের ম্যাচে শতরান করলেও এ বার দশ রানের জন্য সেঞ্চুরি হাতছাড়া করেন সুদীপ।

বন্ধ করুন