বাংলা নিউজ > ময়দান > Ranji Trophy: রঞ্জিতে দুইয়ে দুই! আকাশ-শাহবাজদের দাপটে হায়দরাবাদকে ৭৩ রানে মাত বাংলার
ব্যাটিংয়ের ব্যর্থতা ঢেকে দিলেন বোলাররা। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে পিটিআই)

Ranji Trophy: রঞ্জিতে দুইয়ে দুই! আকাশ-শাহবাজদের দাপটে হায়দরাবাদকে ৭৩ রানে মাত বাংলার

  •  পরপর দুটি ম্যাচ জিতে এবারের রঞ্জি ট্রফিতে দুর্দান্ত শুরু করলেন শাহবাজ আহমেদরা।

ব্যাটিংয়ের ব্যর্থতা ঢেকে দিলেন বোলাররা। আকাশদীপ, শাহবাজ আহমেদদের দাপটে রঞ্জি ট্রফির দ্বিতীয় ম্যাচে হায়দরাবাদকে ৭২ রানে হারিয়ে দিল বাংলা। তার ফলে পরপর দুটি ম্যাচ জিতে এবারের রঞ্জি ট্রফিতে দুর্দান্ত শুরু করলেন শাহবাজ আহমেদরা। যিনি রঞ্জির দু'ম্যাচেই ‘ম্যান অফ দ্য ম্যাচ’ হলেন।

২৩৯ রান রক্ষা করতে নেমে বল হাতে আবারও দারুণ শুরু করেন আকাশদীপরা। ১৬ রানেই চার উইকেট পড়ে গিয়েছিল। তারপর পার্টনারশিপ গড়ে উঠলেও সঠিক সময় উইকেট নিয়ে নিজেদের দখলে ম্যাচ রাখে বাংলা। তবে বাংলার চাপ বাড়াতে থাকেন তিলক বর্মা। একা কুম্ভ হয়ে দাঁড়ান তিনি। যদিও কোনও সতীর্থকে সেভাবে পাশে পাননি। তাও ক্রমশ চাপ বাড়ছিল বাংলার। শেষপর্যন্ত ১৬৬ রানে অল-আউট হয়ে যায় হায়দরাবাদ। শেষ উইকেট পড়ে তিলকের। ৯০ রান করেন তিনি। বাংলার হয়ে চারটি উইকেট নিয়েছেন আকাশদীপ, তিনটি উইকেট পেয়েছেন শাহবা। মুকেশ কুমার দুটি এবং ইশান পোড়েল একটি উইকেট পেয়েছেন। যে খেলোয়াড়রা কলকাতা নাইট রাইডার্সে (কেকেআর) ব্রাত্য হয়ে আছেন।

ম্যাচের সেরা কে?

প্রথম ইনিংসে ৪০ রান ও ২১ রানে এক উইকেট এবং দ্বিতীয় ইনিংসে ৫১ রান ও ৪১ রানে তিন উইকেটের সুবাদে ম্যাচের সেরা নির্বাচিত হয়েছেন শাহবাজ। যিনি প্রথম ম্যাচে বরোদার বিরুদ্ধেও সেরা নির্বাচিত হয়েছিলেন।

প্রথম এবং দ্বিতীয় ইনিংস

কটকে দ্বিতীয় রঞ্জি ম্যাচে টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমেছিল বাংলা। টপ অর্ডারের ব্যর্থতার জেরে প্রথম ইনিংসে ২৪২ রানের বেশি তুলতে পারেননি অভিমন্যু ঈশ্বরণরা। তাও ‘ক্রাইসিস ম্যান’ শাহবাজ ৪০ রান এবং অভিষেক পোড়েলের ৬২ বলে ৭৩ রানের ইনিংসের সৌজন্যে ভদ্রস্থ স্কোরে পৌঁছেছিল বাংলা। সেই অল্প পুঁজি নিয়ে বল হাতে দুর্দান্ত শুরু করেছিলের ইশান পোড়েলরা। ৭০ রানেই হায়দরাবাদের সাত উইকেট ফেলে দিয়েছিল। কিন্তু তারপর প্রতিরোধ গড়ে তোলেন টি রবি তেজা ও তনয় থঙ্গরাজন। তাঁদের সৌজন্যে প্রথম ইনিংসে বড় লিডের সুযোগ হাতছাড়া হয় বাংলার। ৩৭ রানের লিড পান অভিষেকরা।

কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসেও একই রোগের শিকার হয় বাংলা। অভিমন্যু, ঋত্বিক রায়চৌধুরী, সায়নরা ভালো শুরু করলেও তা বড় ইনিংসে পরিণত করতে পারেননি। সেই পরিস্থিতিতে বাংলার ত্রাতা হয়ে দাঁড়ান সেই শাহবাজ। অনুষ্টুপের সঙ্গে পার্টনারশিপ গড়ে বাংলাকে এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন। তাঁদের জুটির সৌজন্যেই ২০০ রানের গণ্ডি পার হয় বাংলার। ৫১ রান করেন শাহবাজ। ৪২ রান করেন অনুষ্টুপ। শেষপর্যন্ত ২০১ রানে অলআউট হয়ে যায় বাংলা। ২৩৯ রানের টার্গেট দিয়েছিল হায়দরাবাদকে।

বন্ধ করুন