বাংলা নিউজ > ময়দান > কোহলি T20 বা ODI-এ অধিনায়ক না থাকলেও দলে প্রভাব পড়বে না, জানিয়ে দিলেন শাস্ত্রী
রবি শাস্ত্রীর সঙ্গে রোহিত শর্মা।
রবি শাস্ত্রীর সঙ্গে রোহিত শর্মা।

কোহলি T20 বা ODI-এ অধিনায়ক না থাকলেও দলে প্রভাব পড়বে না, জানিয়ে দিলেন শাস্ত্রী

  • বিশ্বের বিভিন্ন ক্রিকেট টিমেই দু'জন করে অধিনায়ক রয়েছে। টেস্ট এবং সংক্ষিপ্ত ওভারের জন্য আলাদা অধিনায়ক। ভারতেও এই চল ছিল। ২০১৫ সালের শেষের দিকে এমএস ধোনি টেস্ট থেকে অবসর নেওয়ার পরে, কোহলি টেস্ট অধিনায়কের দায়িত্ব নেন। তখন সংক্ষিপ্ত ওভারের ফর্ম্যাটে ধোনি দলকে নেতৃত্ব দিতেন।

টি-টোয়েন্টির অধিনায়কত্ব স্বেচ্ছায় তিনি ছেড়ে দিয়েছেন। কিন্তু ওয়ানডের ক্ষেত্রে ঘটল ঠিক উল্টোটা। তাঁর ইচ্ছের বিরুদ্ধে একেবারে ঘাড় ধরেই নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হল বিরাট কোহলিকে। তাঁর বদলে রোহিত শর্মাকে নেতা হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে। এ রকমটা যে ঘটতে চলেছে, সেটা আগে থেকেই অনুমান করা হয়েছিল। তবে এত তাড়াতাড়ি বাস্তবে রুপ পাবে, সেটা বোধহয় কেউ কল্পনা করতে পারেননি।

বিশ্বের বিভিন্ন ক্রিকেট টিমেই দু'জন করে অধিনায়ক রয়েছে। টেস্ট এবং সংক্ষিপ্ত ওভারের জন্য আলাদা অধিনায়ক। ভারতেও এই চল ছিল। ২০১৫ সালের শেষের দিকে এমএস ধোনি টেস্ট থেকে অবসর নেওয়ার পরে, কোহলি টেস্ট অধিনায়কের দায়িত্ব নেন। তখন সংক্ষিপ্ত ওভারের ফর্ম্যাটে ধোনি দলকে নেতৃত্ব দিতেন। এর পরে ধোনি সব ফর্ম্যাট থেকে অধিনায়কত্ব ছেড়ে দিলে কোহলি তিন ফর্ম্যাটেই নেতৃত্ব দিতে শুরু করেন।

প্রায় পাঁচ বছর পরে ফের ভারতীয় দলের দু'জন অধিনায়ক মনোনীত করা হয়েছে। ভারতের প্রাক্তন কোচ রবি শাস্ত্রী, যিনি কোহলির সাথে বহু দিন ঘনিষ্ঠ ভাবে কাজ করেছেন এবং যাঁর মেয়াদ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সাথে শেষ হয়েছিল, তিনি রোহিতের  জাতীয় ওডিআই ও টি-টোয়েন্টি দলের দায়িত্ব নেওয়া এবং ভারতীয় ক্রিকেটে দুই অধিনায়কের থিয়োরি নিয়ে নিজের ভাবনার কথা জানিয়েছেন।

শাস্ত্রী দ্য উইককে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ‘রোহিত আতঙ্কিত থাকবে না। ও সব সময়ে দলের জন্য যেটা সেরা, সেটাই করে থাকে।’ এর সঙ্গেই তিনি যোগ করেছেন, ‘দু’জনের মানসিকতা, চিন্তা-ভাবনা অনেকটা একই রকম। আমি যখন ২০১৪ সালে দায়িত্ব নিয়েছিলাম তখন দলে এক জনই তারকা ছিল, মহেন্দ্র সিংহ ধোনি। তার পরে তারকা হয়ে ওঠার ক্ষমতা কোহলী ও রোহিতের মধ্যেই ছিল। এক সঙ্গে তারকা হয়ে ওঠা, বিদেশের মাটিতে গিয়ে জেতা, ভারতকে টেস্টের সিংহাসনে বসানোর মতো অনেক কিছুর সাক্ষী থেকেছে ওরা। তাই ওদের মধ্যে কোনও সমস্যা নেই। দলের ভালর জন্যই কাজ করবে ওরা।’

শাস্ত্রী আরও বলেছেন, ‘কোহলির পরে দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার ক্ষমতা এক মাত্র রোহিতেরই ছিল। ও খুব ভাল ভাবে দলকে পরিচালনা করবে। সাদা বলের ক্রিকেটে রোহিতের অভিজ্ঞতা ওকে সাহায্য করবে। ফলে আলাদা আলাদা অধিনায়ক হলেও দলে কোনও খারাপ প্রভাব পড়বে না।’

বন্ধ করুন