বাংলা নিউজ > ময়দান > WTC ফাইনালে বুমরাহের হতাশাজনক পারফরম্যান্সের রহস্য উন্মোচন করলেন আকাশ চোপড়া
জসপ্রীত বুমরাহ। ছবি- রয়টার্স। (Action Images via Reuters)
জসপ্রীত বুমরাহ। ছবি- রয়টার্স। (Action Images via Reuters)

WTC ফাইনালে বুমরাহের হতাশাজনক পারফরম্যান্সের রহস্য উন্মোচন করলেন আকাশ চোপড়া

  • চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালে দুই ইনিংসে মিলিয়ে একটিও উইকেট পাননি বুমরাহ।

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালে অনেক ভারতীয় তারকাই তাঁর পারফরম্যান্সে হতাশ করে। তবে সবচেয়ে চোখে লাগার মতো হয়তো ফাস্ট বোলার জসপ্রীত বুমরাহের ব্যর্থতা। পেস বোলিং সহায়ক পিচে বাকি বোলাররা যখন আগুন ঝড়াচ্ছিলেন, তখন বুমরাহ উইকেট নেওয়া তো দূর,  ব্যাটসম্যানদের তেমন সমস্যায় ফেলতেও ব্যর্থ হন।

মতান্তরে বিশ্বের সেরা বোলারের এহেন পারফরম্য়ান্স স্বাভাবিকভাবেই, সকলের নজরে পড়েন। বিভন্ন মহলে সমালোচনার স্বীকার হন বুমরাহ। তবে প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার এবং ধারাভাষ্যকার আকাশ চোপড়া এই বিষয়ে খুব একটা চিন্তিত নন। তাঁর দাবি বুমরাহের মতো বোলিংয়ের জন্য পিচ বা পরিবেশ অনুকূল ছিল না। 

আকাশ চোপড়া নিজের ইউটিউব চ্যানেলে জানান, ‘বুমরাহ একজন অসাধারণ বোলার, সেই বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই। তবে ও বেশ গতিতে বল করে এবং হাত সোজা রেখেই বল ছাড়ে। ফলে ওর বলও খুব বেশি সুইং হয়না, বরং সোজা যায়। ইংল্যান্ডের গ্রীষ্মের প্রথমভাগে বোলারদের সুইংয়ের ওপরই বেশি জোড় দেওয়ার প্রয়োজন হয়, কারণ বল পিচে পরার পর তুলনামূলক ধীর গতিতে ব্যাটসম্যানের কাছে পৌঁছায়। ফলে ব্যাটসম্যানদের খেলতেও কিছুটা সুবিধা হয়।’

তবে আশাহত নয়, বরং বুমরাহের গতি পরবর্তীক্ষেত্রে অত্যন্ত কার্যকর হবে বলেই দাবি প্রাক্তন ভারতীয় ওপেনারের। ‘ইংল্যান্ডের গ্রীষ্মের দ্বিতীয়ভাগে, ওর গতি ভীষণ কার্যকর হয়, কারণ এই সময় বল রিভার্স সুইং করা শুরু করে। একটু ধৈর্য্য ধরা যাক। এই ম্যাচের বিষয়ে বেশি ভাবনাচিন্তা না করে একটি বাজে পারফরম্যান্স বলেই ভুলে যাওয়া ভাল।’ মত চোপড়ার।

বন্ধ করুন