বাংলা নিউজ > ময়দান > প্রতি সিরিজের পর কিট ব্যাগ দান করে দেন ঋষভ পন্ত!
ঋষভ পন্ত (AP)
ঋষভ পন্ত (AP)

প্রতি সিরিজের পর কিট ব্যাগ দান করে দেন ঋষভ পন্ত!

  • এবারও তার অনথ্যা হল না। 

দেশে ফিরে একটু রেস্ট করেই নিজের প্রিয় সনেট ক্লাবে ছুটলেন ভারতীয় উইকেটকিপার ঋষভ পন্ত। সেখানে অভাবী তরুণদের মধ্যে বিলিয়ে দিলেন তিন সেট ক্রিকেট কিট। তবে শুধু এবার নয়।প্রত্যেকটা বড় সিরিজের পর এভাবেই ভবিষ্যতের ক্রিকেটারদের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন ঋষভ। 

নিজের ক্রিকেটিং জীবনের শুরু থেকে অনেক সংগ্রাম করতে হয়েছে ঋষভকে। মধ্যবিত্ত ঘরের ছেলেকে নিয়ে তার মা লম্বা জার্নি করে ক্রিকেট খেলার জন্য প্রতি সপ্তাহে দিল্লিতে নিয়ে আসতেন। শুরুতে তেমন কোনও প্রতিষ্ঠিত কোচিংও পান নি তিনি। নিজের স্বাভাবিক প্রতিভাকে সম্বল করেই এগিয়ে যান এই তরুণ তুর্কী। এখন অবশ্য সেই সব দিন অনেক পিছনে। আজ ভারতীয় ক্রিকেটের হট প্রপার্টি হলেন ঋষভ পন্ত। বিশেষ করে বিদেশের মাটিতে তাঁর মতো টেস্টে ব্যাটিং অন্য কোনও ভারতীয় কিপার করতে পারেননি। এমনকী মহেন্দ্র সিং ধোনিও নয়। কিন্তু এই সবের পরেও ছোটোবেলার সংগ্রামের কথা ভোলেননি ঋষভ। তাই সিরিজ শেষ হলেই প্যাড, গ্লাভস ইত্যাদি অভাবী ক্রিকেটারদের মধ্যে বিলিয়ে দেন তিনি। 

ব্রিসবেন টেস্টে ভারত যে অসাধারণ জয় ছিনিয়ে এনেছিল তার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কারিগর ছিলেন তিনি। ব্রিসবেনে অপরাজিত থেকে ভারতকে জয় এনে দিলেও সিডনি টেস্টে অসাধারণ ইনিংস খেলেও আউট হয়ে যাওয়ার ফলে ভারতকে জয় এনে দেওয়া সম্ভব হয়নি। ব্রিসবেনে শুভমান গিল ও চেতেশ্বর পূজারার তৈরি করা ভিতের উপর দাঁড়িয়ে ব্রিসবেনে অপরাজিত ৮৯ রানের ইনিংস খেলে রাহানে বাহিনীকে এক অবিস্মরণীয় জয় এনে দিয়েছিলেন তিনি।

গাব্বার ইনিংসের আগে অবশ্য সিডনিতেও দ্বিতীয় ইনিংসে দুরন্ত ৯৭ রানের ইনিংস খেলেন ঋষভ পন্ত। কিন্তু সেই ইনিংসের আগের নেপথ্য ঘটনা এখন প্রকাশ্যে এল। সিডনিতে ভারতীয় দলের অবস্থা তখন শোচনীয়। চোট আঘাতে জর্জরিত ভারত। বিহারী হ্যামস্ট্রিং চোট,পিঠে ব্যথায় কাবু অশ্বিন,বা হাতের বুড়ো আঙুল সরে গিয়ে ব্যথায় কাতরাচ্ছেন জাদেজা সবমিলিয়ে পরিস্থিতি বেশ ঘোরালো। এই অবস্থায় চোটের কারণে পন্তকে সিডনিতে ব্যাট করার আগে দুটো ইনজেকশন এবং ঘুমের ওষুধ খেতে হয়েছিল। সেকথা নিজেই জানিয়েছেন তিনি।

পন্ত সিডনিতে প্রথম ইনিংসে ব্যাটিং করার সময় কামিন্সের ডেলিভারিতে কনুইয়ে চোট পান। দ্বিতীয় ইনিংসে উইকেট কিপিং করতে পারেননি তিনি। ভারতের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করার আগে সেই ব্যথা কমানোর জন্য ইঞ্জেকশন নিতে হয় তাঁকে। 

 

বন্ধ করুন