বাংলা নিউজ > ময়দান > দাঁতের ডাক্তারের কাছে গিয়েছিলেন পন্ত, সেখান থেকেই কি তবে সংক্রমণ ঘটেছে?
ঋষভ পন্ত।
ঋষভ পন্ত।

দাঁতের ডাক্তারের কাছে গিয়েছিলেন পন্ত, সেখান থেকেই কি তবে সংক্রমণ ঘটেছে?

  • ৮ জুলাই ঋষভ পন্ত করোনায় আক্রান্ত হন। তার আগে ৫ এবং ৬ জুলাই পন্ত দাঁতের চিকিৎসকের কাছে গিয়েছিলেন।

ঋষভ পন্তের কী ভাবে করোনা সংক্রমণ ঘটল, তা নিয়ে বিস্তর জলঘোলা চলছে। বিশেষত মাস্ক ছাড়া ইউরোতে ম্যাচ দেখতে গিয়েছিলেন পন্ত। সে সময়ে মাস্কবিহীন পন্তকে দেখে সমলোচনার ঝড় বয়ে গিয়েছিল। এর পরেই তাঁর করোনা সংক্রমণের কথা জানা যায়। সূত্রের দাবি, পন্ত নাকি দাঁতের ডাক্তারের কাছে গিয়েছিলেন, সেখান থেকেই করোনা সংক্রমণ ঘটেছে বলে মনে করা হচ্ছে।

৮ জুলাই ঋষভ পন্ত করোনায় আক্রান্ত হন। তার আগে ৫ এবং ৬ জুলাই পন্ত দাঁতের চিকিৎসকের কাছে গিয়েছিলেন। আর ঠিক তার পরেই তিনি করোনায় আক্রান্ত হওয়ার কারণে অনেকেই দাবি করছেন, দাঁতের চিকিৎসা করাতে গিয়েই করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তিনি। তবে আবার অনেকের দাবি, বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পর ভারত যে তিন সপ্তাহের ছুটি পেয়েছে, তাতেই প্লেয়ার এবং বাকি সদস্যরা ইচ্ছে মতো লন্ডনে ঘুরে বেড়িয়েছেন। আর সে কারণেই ভারতীয় দলেও করোনা সংক্রমণ ঘটেছে।

এ দিকে পন্ত করোনায় আক্রান্ত হওয়ার কারণে টিমের সঙ্গে ডারহ্যাম যেতে পারবেন না। তবে বিসিসিআই-এর তরফে জানানো হয়েছে, সুস্থ হয়ে পন্ত টিমের সঙ্গে পরে যোগ দেবেন। এ দিকে ২০ জুলাই থেকে কাউন্টি একাদশের বিরুদ্ধে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার কথা বিরাট কোহলিদের। সেই ম্যাচে পন্তকে পাওয়া যাবে না। ঋদ্ধিমান সাহাকেও আইসোলেশনে রাখতে হয়েছে। ঋদ্ধি নিজে করোনায় আক্রান্ত না হলেও, ভারতীয় দলের আর এক সদস্য থ্রো ডাউন বিশেষজ্ঞ দয়ানন্দ গরানী, যিনি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, তাঁর সংস্পর্শে এসেছিলেন। স্বাভাবিক ভাবে ঋদ্ধিও খেলতে পারবেন না।

এ ছাড়াও দয়ানন্দ গরানীর সংস্পর্শে এসেছিলেন বোলিং কোচ ভরত অরুণ, এবং অভিমন্যু ঈশ্বরণ। যে কারণেে, তাঁদেরও দশ দিনের জন্য আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। অগস্ট থেকে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে নামবেন কোহলিরা। তার আগেই ভারতীয় শিবিরে করোনা আতঙ্ক ঘিরে ধরেছে। 

বন্ধ করুন