বাংলা নিউজ > ময়দান > Road Safety World Series: এক বছর আগের নিজেদের লজ্জার নজির ছুঁলেন ব্রিটিশ লেজেন্ডসরা, লঙ্কার বিরুদ্ধে বিশ্রি হার
সনৎ জয়সূর্য ৪ উইকেট নেন।

Road Safety World Series: এক বছর আগের নিজেদের লজ্জার নজির ছুঁলেন ব্রিটিশ লেজেন্ডসরা, লঙ্কার বিরুদ্ধে বিশ্রি হার

  • টসে হেরে ব্যাট করতে নেমেছিল ইংল্যান্ড। সনৎ জয়সূর্যের বল হাতে দাপটে কেঁপে যান ইয়ান বেলরা। ৪ ওভার বল করে ৩ রান দিয়ে ৪ উইকেট তুলে নেন জয়সূর্য। যার জেরে ইংল্যান্ডের ব্যাটরদের ব্যক্তিগত স্কোর ১৫ রানের উপরই উঠল না। সেই সঙ্গে ইংল্যান্ড নিজেদের লজ্জার নজিরই স্পর্শ করল।

১৫-১৪-১০-১০- এই হল শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ইংল্যান্ড লেজেন্ডসদের করা চার ব্যাটারের সর্বোচ্চ স্কোর। বাকিরা একেবারে ল্যাজেগোবরে হলেন। দুই অঙ্কের ঘরেই পৌঁছাননি কেউ। যার নিট ফল, নিজেদের এক বছর আগের লজ্জার নজির স্পর্শ করল ইংল্যান্ড। সেই সঙ্গে বাজে ভাবে হারল শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে।

এক বছর আগে পথ নিরাপত্তা বিশ্ব সিরিজে এই শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধেই ৭৮ রানে অল আউট হয়ে গিয়েছিল ইংল্যান্ড। এটাই ছিল এই সিরিজের সর্বনিম্ন স্কোর। মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টেম্বর) ফের সেই শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধেই ১৯ ওভারে ৭৮ রানে অলআউট হয়ে গেল ইংল্যান্ড। বছর খানেক আগের পুনরাবৃত্তিই ঘটল এ দিন। যার জেরে ল্যাজেগোবরে হয়ে হারতে হল ব্রিটিশদের।

আরও পড়ুন: প্রোটিয়া বোলারদের দাপটে সেঞ্চুরিও হল না কিউয়ি লেজেন্ডসদের, ৯ উইকেটে জয় জন্টিদের

টসে হেরে ব্যাট করতে নেমেছিল ইংল্যান্ড। সনৎ জয়সূর্যের বল হাতে দাপটে কেঁপে যান ইয়ান বেলরা। ৪ ওভার বল করে ৩ রান দিয়ে ৪ উইকেট তুলে নেন জয়সূর্য। যার জেরে ইংল্যান্ডের ব্যাটরদের ব্যক্তিগত স্কোর ১৫ রানের উপরই উঠল না। ওপেন করতে নেমে ১৫ রান করেন অধিনায়ক ইয়ান বেল। আর এক ওপেনার ফিল মাস্টারড করেছেন ১৪ রান। ১০ করে রান করেছেন ক্রিস স্কোফিল্ড এবং স্টিফেন প্যারি।

আরও পড়ুন: বয়স কেবলই সংখ্যা! ৪৯-এর সচিনের শট উস্কে দিল দুই দশক আগের স্মৃতি- ভিডিয়ো

শ্রীলঙ্কার হয়ে জয়সূর্যের ৪ উইকেট ছাড়াও নুয়ান কুলাসেকারা এবং চতুরঙ্গ ডি'সিলভা ২টি করে উইকেট নিয়েছেন।

রান তাড়া করতে নেমে ১৪.৩ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ৭৯ তুলে ফেলে শ্রীলঙ্কা। ৩৩ বল বাকি থাকতেই ধীরেসুস্থে তারা ৭ উইকেটে ম্যাচ জিতে নেয়। ওপেন করতে নেমে দিলশান মুনাবীরা করেন ২৪ রান। উপুল থারাঙ্গা ২৩ করেন। মোদ্দা কথা, শ্রীলঙ্কাকে রান তুলতে নেমে সে ভাবে খাটতেই হয়নি। গা ছেড়ে ধীরেসুস্থে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় তারা।

বন্ধ করুন