বাড়ি > ময়দান > রোনাল্ডো-মেসিকে টপকে বার্ষিক আয়ে এক নম্বরে উঠে এলেন ফেডেরার
রজার ফেডেরার। ছবি- টুইটার।
রজার ফেডেরার। ছবি- টুইটার।

রোনাল্ডো-মেসিকে টপকে বার্ষিক আয়ে এক নম্বরে উঠে এলেন ফেডেরার

  • সেরেনাকে পিছনে ফেলে বছরের সর্বোচ্চ উপার্জনকারী মহিলা অ্যাথলিট নাওমি ওসাকা।

বার্ষিক উপার্জনের নিরিখে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো ও লিওনেল মেসিকে পিছনে ফেলে দিলেন রজার ফেডেরার। সিআর সেভেন ও এলএম টেনকে টপকে ফোর্বসের বিচারে বছরের সর্বোচ্চ আয়ের ক্রীড়াবিদদের তালিকায় শীর্ষে উঠে এলেন সুইস টেনিস তারকা।

ফোর্বসের সদ্য প্রকাশিত তালিকা অনুযায়ী ২০২০ সালের সর্বোচ্চ উপার্জনকারী ক্রীড়াবিদ হলেন ফেডেরার। করোনা মহামারির জেরে রোনাল্ডো-মেসিদের ক্লাব তাঁদের পারিশ্রমিকে কাটছাঁট করায় দুই ফুটবলারকে রোজগারের লড়াইয়ে পিছিয়ে পড়তে হয়। গত বছর তালিকার শীর্ষে ছিলেন মেসি। এবার তিনি নেমে গিয়েছেন তিন নম্বরে। অন্যদিকে, ফেডেরার চার ধাপ উঠে এসে প্রথম টেনিস তারকা হিসেবে সর্বোচ্চ আয়ের ক্রীড়াবিদদের তালিকায় এক নম্বর স্থান দখল করেন।

ফোর্বস ২০১৯-এর ১ জুন থেকে ২০২০-র ১ জুন পর্যন্ত সময়সীমায় ক্রীড়াবিদদের মোট আয়ের হিসাব করে এই তালিকা প্রকাশ করে। আয়ের মধ্যে ধরা হয়েছে পুরস্কার মূল্য, চুক্তির বোনাস, বিজ্ঞাপনী বিনিয়োগ, বিভিন্ন স্বত্ব ও উপস্থিতির জন্য প্রাপ্ত অর্থ।

এই নিরিখে গত ১২ মাসে ফেডেরার উপার্জন করেছেন ১০৬.৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। যার মধ্যে ১০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার এসেছে বাণিজ্যিক চুক্তি থেকে। গত ১২ মাসে রোনাল্ডো উপার্জন করেছেন ১০৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। মেসির পকেট ঢুকেছে ১০৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। আরেক তারকা ফুটবলার নেইমারের বার্ষিক উপার্জন ৯৫.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। তিনি রয়েছেন তালিকার চতুর্থ স্থানে। বাস্কেটবল তারকা লিবর্ন জেমস উপার্জন করেছেন ৮৮.২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। তালিকার প্রথম পাঁচের তিনি শেষ সদস্য।

গত এক বছরে বিশ্বের সর্বোচ্চ উপার্জনকারী মহিলা অ্যাথলিট হলেন জাপানের টেনিস তারকা নাওমি ওসাকা। তাঁর বার্ষিক উপার্জন ৩৭.৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। সার্বিক তালিকায় ২৯ নম্বরে রয়েছেন তিনি। ওসাকা পিছনে ফেলে দিয়েছেন সেরেনা উইলিয়ামসকে। গত ১২ মাসে সেরেনার উপার্জন ৩৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

বন্ধ করুন