বাংলা নিউজ > ময়দান > রোহিতকে কেন অস্ট্রেলিয়া সফরের দলে রাখা উচিত ছিল নির্বাচকদের, নিজের কেরিয়ারের উদাহরণ দিয়ে বোঝালেন সেহওয়াগ
রোহিত শর্মা। ছবি- আইপিএল।
রোহিত শর্মা। ছবি- আইপিএল।

রোহিতকে কেন অস্ট্রেলিয়া সফরের দলে রাখা উচিত ছিল নির্বাচকদের, নিজের কেরিয়ারের উদাহরণ দিয়ে বোঝালেন সেহওয়াগ

বিকল্প রাস্তা খোলা রাখা যেত বলেও মত টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন ওপেনারের।

চোটের জন্য অস্ট্রেলিয়া সফরের ভারতীয় দলে নেই রোহিত শর্মা। অথচ তিনি আইপিএল খেলছেন মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে। টিম ইন্ডিয়ার তারকা ওপেনারের এটা কী ধরণের চোট, তা নিয়ে সঙ্গত কারণেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে ভারতীয় ক্রিকেটমহলে, যার কোনও সদুত্তর নেই কারও কাছেই।

টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন ওপেনার বীরেন্দ্র সেহওয়াগ মনে করছেন যে, রোহিতকে অস্ট্রেলিয়া সফরের দলে রাখা উচিত ছিল জাতীয় নির্বাচকদের। প্রয়োজনে রোহিতের সঙ্গে একজন সম্ভাব্য পরিবর্তকেও অস্ট্রেলিয়ায় পাঠানোর কথা বিবেচনা করতে পারতেন নির্বাচকরা।

এক্ষেত্রে নিজের কেরিয়ারের উদাহরণ দিয়ে সেহওয়াগ বোঝালেন যে, কোনও ক্রিকেটারের চোট থাকলে কোচ, টিম ম্যানেজমেন্ট ও নির্বাচকদের কাছে সে সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা থাকা দরকার।

ক্রিকবাজকে সেহওয়াগ বলেন, ‘যদি মুম্বইয়ের ফিজিওদের তরফে নির্বাচকদের কাছে এই মর্মে রিপোর্ট যেত যে, রোহিতের চোট কতদিনে সেরে উঠবে তা নির্দিষ্ট করে বলা সম্ভব নয় এবং তার পরে যদি নির্বাচকরা দল বেছে নিতেন, তাহলে কিছু বলার ছিল না। দলের সেরা একজন ক্রিকেটার সম্পর্কে আপানর ধারণা থাকত।’

পরে সেহওয়াগ বলেন, ‘নিজের কেরিয়ারের একটা উদাহরণ দিই। ২০১১ বিশ্বকাপের আগে আমার কাঁধে সমস্যা ছিল। চোটের জায়গায় অস্ত্রোপচার করাতে হতো। আমি কোচ কার্স্টেন ও বিসিসিআইকে জানাই বিষয়টা। ২০১০-এর ডিসেম্বরে কাঁধে অস্ত্রোপচার করালে বিশ্বকাপ খেলা সম্ভব হতো না। সিদ্ধান্ত ছিল কার্স্টেন ও নির্বাচকদের হাতে। ওরাই আমাকে বলে বিশ্বকাপের পর অস্ত্রোপচার করাতে। সেই মতো আমি চোট যাতে বেড়ে না যায়, তাই ওয়ান ডে খেলতাম না ওই সময়। শুধু টেস্ট খেলেছি। সুতরাং, আর্মার চোট নিয়ে সবকিছুই সবাই জানত।’

শেষে রোহিত প্রসঙ্গে বীরু বলেন, ‘একইভাবে রোহিতের চোট নিয়ে সবার কাছে স্পষ্ট ধারণা থাকা দরকার। রোহিতকে অস্ট্রেলিয়া সফরের দলে রাখা উচিত ছিল। পরে ও ফিট না হলে ওর পরিবর্ত পাঠানো যেত, বা বায়ো-বাবলের কথা মাথায় রেখে রোহিতের সঙ্গেই একজন সম্ভাব্য পরিবর্ত পাঠানো যেত অস্ট্রেলিয়ায়।’

বন্ধ করুন