বাংলা নিউজ > ময়দান > 'পিচ দেখে একে অপরের দিকে তাকাই', ২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনালে সচিনের সঙ্গে ইশারায় কী কথা হয়েছিল, অজানা গল্প শোনালেন সেহওয়াগ
সচিন তেন্ডুলকর ও বীরেন্দ্র সেহওয়াগ। ছবি- গেটি।

'পিচ দেখে একে অপরের দিকে তাকাই', ২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনালে সচিনের সঙ্গে ইশারায় কী কথা হয়েছিল, অজানা গল্প শোনালেন সেহওয়াগ

  • ভারতের ২০১১ বিশ্বকাপ জয় নিয়ে বিস্তর মুখোরোচক গল্প শোনা যায়। তবে এবার বীরেন্দ্র সেহওয়াগ নিজে এমন এক ঘটনা সামনে আনলেন, যা এর আগে কখনও শোনা যায়নি।

পিচের জৌলুস দেখে চোখে চোখে ইশারা সচিন-সেহওয়াগের, এই পিচে হেব্বি ব্যাট করা যাবে। শেষমেশ ব্যাট হাতে ডাহা ফেল দু'জনেই। ২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনালের এমনই অজানা গল্প সামনে আনলেন বীরু নিজেই।

ক্রিকবাজের আলোচনায় সেহওয়াগ জানান, সেদিন ঠিক কী ঘটেছিল ওয়াংখেড়েতে। আসলে ২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনাল যে পিচে খেলা হচ্ছিল, সন্ধ্যার সময় তার জৌলুস দেখে সচিন-সেহওয়াগ দু'জনেরই মনে হয়েছিল যে, এমন বাইশগজে দারুণ ব্যাট করা যাবে। তবে শেষ পর্যন্ত সচিন-সৌরভ দু'জনের কেউই বড় রানের মুখ দেখেননি।

আরও পড়ুন:- আবেগের বশে রোহিতকে টেস্ট অধিনায়ক করা হয়, ওর ফিটনেস নিয়ে প্রশ্ন আছে, বোমা যুবির

সেহওয়াগ বলেন, ‘২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনাল নিয়ে আপনাদের একটা গল্প শোনাই। সচিন তেন্ডুলকর মিড-উইকেটে দাঁড়িয়েছিল। আমি ডিপ স্কোয়ার-লেগে দাঁড়িয়েছিলাম। সূর্যাস্তের সময় ছিল। পিচের জৌলুস চোখে পড়ে আমাদের। দু’জনেই এটা লক্ষ্য করি। তার পরে একে অপরের দিকে তাকাই এবং ইশারা করি যে, এই পিচে ব্যাট করতে দারুণ মজা হবে। শেষমেশ আমারা দু'জনেই রান পাইনি।'

আরও পড়ুন:- ছিটকে গিয়েছেন জেমিমা-শেফালিরা, শেষ চারে মন্ধনার দল, সিনিয়র ওমেনস T20-র কোয়ার্টারের ফলাফল ও সেমিফাইনালের সূচিতে চোখ রাখুন

উল্লেখ্য, ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে ২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনালে টস জিতে শুরুতে ব্যাট করতে নামে শ্রীলঙ্কা। জয়াবর্ধনের শতরানে (অপরাজিত ১০৩) ভর করে শ্রীলঙ্কা ৬ উইকেটে ২৭৪ রান তোলে। পালটা ব্যাট করেত নেমে সেহওয়াগ শূন্য রানে আউট হন। তেন্ডুলকর সাজঘরে ফেরেন ১৮ রান করে। গম্ভীর (৯৭) ও ধোনির (অপরাজিত ৯১) ব্যাটে ভর করে ভারত ৪ উইকেটে ২৭৭ রান তুলে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয়।

বন্ধ করুন