বাংলা নিউজ > ময়দান > ওয়াসিমের আত্মজীবনীতে কী লিখেছেন সচিন? জেনে নিন

ওয়াসিমের আত্মজীবনীতে কী লিখেছেন সচিন? জেনে নিন

সচিন তেন্ডুলকর এবং ওয়াসিম আক্রম। ছবি- গেটি ইমেজ

পাকিস্তানের কিংবদন্তি ফার্স্ট বোলার ওয়াসিম আক্রমের আত্মজীবনী সুলতান: আ মেমোয়িরে সচিন তেন্ডুলকর লিখেছেন, তিনি যখন প্রথমবার আক্রমের বিরুদ্ধে খেলতে নেমেছিলেন তখন তাঁকে ছাড়া আর কাউকে তিনি দেখেননি।

সচিন তেন্ডুলকর। যাকে গোটা বিশ্ব চেনে। এক ডাকেই তাঁর পরিচয় পাওয়া সম্ভব। ১৬ বছরের ছোট্ট বালক ওয়াসিম আক্রম, ওয়াকার ইউনিসের মত বোলারদের নির্দ্বিধায় সামলেছেন। থুতনিতে এসে লেগেছে জোরালো বল। তাও লড়াই চালিয়ে গিয়েছেন। ভারত তথা বিশ্বের সর্বকালের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার সচিন তেন্ডুলকর। তাঁর তৈরি করা রেকর্ডের বর্ণনা করতে গেলে শব্দ কম পড়বে। টেস্ট ও একদিনের ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রান। ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরির মালিক। টেস্ট এবং ওডিআই মিলিয়ে ১০০টি সেঞ্চুরি রয়েছে তাঁর পকেটে। তার ২৪ বছরের দীর্ঘ ক্রিকেট কেরিয়ারে সামলেছেন তাবড় তাবড় বোলারদের। তাঁদের মধ্যে অন্যতম পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটার ওয়াসিম আক্রম।

তেন্ডুলকরের অনেকটা আগেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পাকিস্তানের হয়ে অভিষেক ঘটিয়েছিলেন ওয়াসিম আক্রম। প্রতিটা ব্যাটারের মতো সচিনকেও চাপে রাখতেন আক্রম। তাঁরা কঠোর প্রতিপক্ষ হওয়া সত্ত্বেও নিজেদের মধ্যে পারস্পরিক শ্রদ্ধার সম্পর্ক তৈরি করেছিলেন। সেই সম্পর্কের কারণেই ওয়াসিম আক্রমের আত্মজীবনী সুলতান: আ মেমোয়িরে একটি বিশেষ অবদান রেখেছেন সচিন তেন্ডুলকর। আক্রমের আত্মজীবনীতে মাস্টার ব্লাস্টার লিখেছেন, 'আক্রম একজন বিশ্বমানের বোলার। ও যেকোনও সময় আপনাকে আউট করে দিতে পারেন। আক্রম বলের সঙ্গে কথা বলতে পারতেন। ক্রিকেট একটি দলগত খেলা। কিন্তু সব সময় একজন বোলার ও ব্যাটারের মধ্যে যুদ্ধ হতে থাকে। ওয়াসিম এমন ধরনের বোলার ছিলেন যাকে প্রত্যেক ব্যাটার ভয় পেতেন। এইরকম মহান বোলারের সঙ্গে যখন প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয় তখন নিজের খেলারও উন্নতি হয়। অভিজ্ঞতার সঞ্চার হয়।'

তেন্ডুলকর আরও লিখেছেন, 'ওয়াসিমের রানআপ খুবই স্বাভাবিক ছিল। বেশিরভাগ ফাস্ট বোলারের মতো, তাকে তাঁর পদক্ষেপ পরিমাপ করার প্রয়োজন হত না। তিনি যে কোনও জায়গা থেকে শুরু করতে পারতেন এবং সফলও হতেন। আমি ওয়াসিমের সঙ্গে খেলার আগে কোনও দিনই তাঁর মতো বোলারের সম্মুখীন হইনি। একে অপরের বিরুদ্ধে খেলা প্রতিটি ম্যাচ আমার এখনও মনে আছে। তবে এখনও আমাদের মধ্যে বন্ধুত্ব বজায় আছে। দেখা হলেই আমরা উষ্ণ ভাব বিনিময় করি।'

ওয়াসিম আক্রম পাকিস্তান তথা বিশ্বের ক্রিকেট ইতিহাসে একজন সফল ফার্স্ট বোলার। তিনি ৩৫৬টি একদিনের ম্যাচ খেলেছেন পাকিস্তানের হয়ে। নিয়েছেন ৫০২টি উইকেট। ৫০০টির বেশি উইকেট নেওয়ার কীর্তি স্থাপন করা প্রথম বোলার তিনি। আক্রম ১০৬টি টেস্ট ম্যাচে নিয়েছেন ৪১৪টি উইকেট।

বন্ধ করুন