বাংলা নিউজ > ময়দান > করোনার জেরে স্বপ্নভঙ্গ, টোকিয়ো যাওয়ার আশা কার্যত শেষ সাইনা-শ্রীকান্তের
অলিম্পিক্সে যাওয়ার সম্ভাবনা কার্যত শেষ সাইনা-শ্রীকান্তের।
অলিম্পিক্সে যাওয়ার সম্ভাবনা কার্যত শেষ সাইনা-শ্রীকান্তের।

করোনার জেরে স্বপ্নভঙ্গ, টোকিয়ো যাওয়ার আশা কার্যত শেষ সাইনা-শ্রীকান্তের

  • এমনিতেই ৩১ বছরের সাইনা সে ভাবে ছন্দে নেই। তার উপর বয়স বেড়েছে। পরের বছর আদৌ তিনি অলিম্পিক্সে যাওয়ার মতো পরিস্থিতিতে থাকবেন কিনা, সেটা নিয়েও সন্দেহ রয়েছে।

করোনার জেরেই ভারতের দুই তারকা শাটলারের অলিম্পিক্সে যাওয়া হল না। টোকিয়ো অলিম্পিক্সের  ছাড়পত্র পাওয়ার আর কোনও সম্ভাবনাই থাকল না সাইনা নেহওয়াল এবং কিদম্বি শ্রীকান্তের।

করোনার জন্য একের পর এক টুর্নামন্ট বাতিল হয়ে গিয়েছে। যার জেরে সাইনারা যোগ্যতা অর্জন করার শেষ সুযোগটুকুও পাইনি। এর আগে যে টুর্নামেন্টগুলি সাইনা-শ্রীকান্ত খেলেছিলেন, তাতেও ভাল কিছু করতে পারেননি। তারকা দুই শাটলারকেই তাঁদের ফর্মের ধারেকাছে পাওয়া যায়নি। তার পর করোনার জেরে শেষরক্ষাটুকুও হল না।

এমনিতেই ৩১ বছরের সাইনা সে ভাবে ছন্দে নেই। তার উপর বয়স বেড়েছে। পরের বছর আদৌ তিনি অলিম্পিক্সে যাওয়ার মতো পরিস্থিতিতে থাকবেন কিনা, সেটা নিয়েও সন্দেহ রয়েছে। এই অলিম্পিক্সে না যেতে পারাটা তাঁর জীবনের বিশাল একটা ক্ষতি।

আন্তর্জাতিক ব্যাডমিন্টন ফেডারেশন এক বিবৃতিতে বলে দেওয়া হয়েছে, ১৫ জুন টোকিয়ো অলিম্পিকের যোগ্যতা নির্ধারণের শেষ সময়সীমা। আর এই সময় সূচির কোনও পরিবর্তন হবে না। এ দিকে এই তারিখের মধ্যে কোনও টুর্নামেন্টও নেই। স্বভাবতই, সাইনা আর শ্রীকান্তের অলিম্পিক্সে যোগ্যতা অর্জনের আর কোনও সুযোগও নেই।

অলিম্পিক্সে ব্রোঞ্জজয়ী সাইনার বর্তমান বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং ২২। আর শ্রীকান্তের ২০। তাও ১৬-র মধ্যে র‍্যাঙ্কিং থাকলে অলিম্পিক্সে যোগ্যতা অর্জনের একটা সুযোগ থাকত। বিশ্ব ব্যাডমিন্টন সংস্থার সচিব থমাস লুন্ড বলে দিয়েছেন, ‘টোকিয়ো অলিম্পিক্সে যোগ্যতা অর্জন করার প্রক্রিয়া শেষ হয়ে গিয়েছে। এখন আর কারও পক্ষেই যোগ্যতা অর্জন সম্ভব নয়।’

সাইনা-শ্রীকান্ত যোগ্যতা অর্জন করতে না পারলেও, ভারতের হয়ে মেয়ে এবং ছেলেদের সিঙ্গলসে দেখা যাবে পিভি সিন্ধু এবং সাই প্রণীতকে। আর ছেলেদের ডাবলসে অংশ নেবেন সাত্ত্বিকসাইরাজ রানকিরেড্ডি ও চিরাগ শেট্টি জুটি।

বন্ধ করুন