বাংলা নিউজ > ময়দান > Ranji-তে দুরন্ত পারফরম্যান্স, বাংলাদেশের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে ভাগ্য খুলতে পারে সরফরাজের: রিপোর্ট
জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে সরফরাজের।

Ranji-তে দুরন্ত পারফরম্যান্স, বাংলাদেশের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে ভাগ্য খুলতে পারে সরফরাজের: রিপোর্ট

  • এ বারের রঞ্জি মরশুমেও দুরন্ত ছন্দে রয়েছেন সরফরাজ। গত বারের চ্যাম্পিয়ন সৌরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ২৭৫ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলার পাশাপাশি অন্য দুই ম্যাচে অসাধারণ ছন্দে ১৬৫ এবং ১৫৩ রান করেন। ফাইনালেও সেঞ্চুরি হাঁকান। ন'শোর উপর রান হয়ে গিয়েছে তাঁর।

ঘরোয়া ক্রিকেটে দুরন্ত ছন্দে রয়েছেন সরফরাজ খান। রঞ্জিতে পরপর দু' মরশুমে ৯০০-র উপর রান করে ফেলেছেন তিনি। প্রসঙ্গত, ২০২০-২১ করোনার কারণে রঞ্জি হয়নি। আর বৃহস্পতিবার রঞ্জি ট্রফির ফাইনালে মধ্যপ্রদেশের হয়ে সেঞ্চুরি করার পর সরফরাজকে ভারতীয় দলে সুযোগ দেওয়া নিয়ে সরব হয়েছেন প্রাক্তনীরাও।

সূত্র মরফৎ জানা গিয়েছে, মধ্যপ্রদেশের বিরুদ্ধে রঞ্জির ফাইনালে সরফরাজ ১৩৪ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলার পর, তাঁর জন্য জাতীয় দলের দরজা খুলতে পারে। এমনই সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। শোনা যাচ্ছে, নভেম্বরে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের জন্য তাঁকে বাছাই করা হতে পারে।

বিসিসিআই-এর এক নির্ভরযোগ্য সূত্র টাইমস অফ ইন্ডিয়াকে বলেছেন, ‘এখন ওকে উপেক্ষা করা অসম্ভব। ওর পারফরম্যান্স ওর বিশাল ক্ষমতার কথা বলছে এবং ভারতীয় দলে অনেকের উপর চাপ সৃষ্টি করছে। নির্বাচকরা যখন বাংলাদেশ টেস্ট সিরিজের জন্য ভারতীয় দল বেছে নেবেন, তখন ওর নিশ্চিত ভাবে জায়গা হবে। গত বছর দক্ষিণ আফ্রিকাতেও ভারতীয় ‘এ’ দলের হয়ে ও ভালো করেছে। এবং ও একজন চমৎকার ফিল্ডার।’

আরও পড়ুন: Ranji-র ফাইনালে শতরানের পর সরফরাজের জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়া নিয়ে সরব প্রাক্তনীরা

বেশ কয়েক বছর আগের ঘটনা। সুযোগের অভাব, ফিটনেস সমস্যা এবং তার ফর্মের কারণে সরফরাজ খান কেরিয়ারের লক্ষ্য থেকে লাইনচ্যুত হয়ে পড়ছিলেন। কিন্তু সেই ছেলেটাই অসম্ভব ভালো কামব্যাক করেছেন। গত দু'বছরে নিজের খেলাই বদলে ফেলেছেন সরফরাজ। ২০১৯-২০ রঞ্জি ট্রফি থেকেই তিনি একেবারে আলাদা একজন ব্যাটসম্যান হয়ে উঠেছেন।

এ বারের রঞ্জি মরশুমেও দুরন্ত ছন্দে রয়েছেন সরফরাজ। গত বারের চ্যাম্পিয়ন সৌরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ২৭৫ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলেছিলেন। এ ছাড়াও অন্য দুই ম্যাচে ১৬৫ এবং ১৫৩ রানের আরও দু'টি চোখ ধাঁধানো ইনিংস খেলেন। ২০১৯ সালের রঞ্জি থেকে যদি ধরা যায় তবে ১৫টি ইনিংসে ১৫০-র উপর গড়ে, সাড়ে সতেরোশোর কাছাকাছি রান করে ফেলেছেন সরফরাজ। একটি ট্রিপল ও দু'টি ডাবল সেঞ্চুরি এবং চারটি শতরান করে ফেলেছেন তিনি।

এই মরশুমে রঞ্জিতে সরফরাজই সবচেয়ে বেশি রান করেছেন। তাঁর এখনও পর্যন্ত সংগ্রহ ৯৩৭ রান। এ বার রঞ্জিতে চারটি সেঞ্চুরি রয়েছে তাঁর নামের পাশে। হাজার রান পূরণ করতে আর ৬৩ রান বাকি ২৪ বছরের তারকার। ফাইনালের দ্বিতীয় ইনিংসে যদি সেটা করতে পারেন, তবে ভিভিএস লক্ষ্মণ, ওয়াসিম জাফর, অজিঙ্কা রাহানের মতো সুপারস্টারদের সঙ্গে একাসনে বসে পড়তে পারেন সরফরাজ খান।

রঞ্জির এক মরশুমে সব থেকে বেশি রান করার রেকর্ড রয়েছে ভিভিএস লক্ষ্মণের নামে। ১৯৯৯-২০০০ মরশুমে লক্ষ্মণ হায়দরাবাদের হয়ে ১৪১৫ রান করেছিলেন। এখনও পর্যন্ত মোট ১০ জন ক্রিকেটার রঞ্জির এক মরশুমে হাজার রানের গণ্ডি টপকেছেন, যাঁদের মধ্যে তিনজন হলেন মুম্বইয়ের। ওয়াসিম জাফর, অজিঙ্কা রাহানে ও শ্রেয়স আইয়ারের পরে মুম্বইয়ের চতুর্থ ক্রিকেটার হিসেবে এমন নজির গড়তে পারেন সরফরাজ।

বন্ধ করুন