বাংলা নিউজ > ময়দান > অনেক হয়েছে, আর নেওয়া যাচ্ছে না! কোহলির আচরণে ক্ষুব্ধ ওয়ার্ন, গিলক্রিস্ট

অনেক হয়েছে, আর নেওয়া যাচ্ছে না! কোহলির আচরণে ক্ষুব্ধ ওয়ার্ন, গিলক্রিস্ট

বিরাটের ঘটনায় শেন ওয়ার্ন ও অ্যাডাম গিলক্রিস্টের মন্তব্য (ছবি:রয়টার্স ও গেটি ইমেজ)

প্রাক্তন লেগ-স্পিনার এমন সিদ্ধান্তের জন্য হতাশার দিকে ইঙ্গিত করেছিলেন, যা সময়ের সাথে সাথে আরও খারাপ হয়েছিল।

ভারত বনাম দক্ষিণ আফ্রিকার কেপ টাউন টেস্টের সময় বিতর্কিত ডিআরএস সিদ্ধান্তে টিম ইন্ডিয়ার অধিনায়ক বিরাট কোহলির স্ট্যাম্প মাইক ক্যামেরার সামনে প্রতিবাদের কড়া সমালোচনা করলেন প্রাক্তন অভিজ্ঞ ক্রিকেটাররা। প্রাক্তন ইংলিশ অধিনায়ক মাইকেল ভন বলেছেন যে কোহলিকে তার কাজের জন্য জরিমানা বা সাসপেন্ড করা উচিত। অন্যদিকে, দক্ষিণ আফ্রিকার প্রাক্তন ব্যাটসম্যান ড্যারিল কালিনান মনে করেন, ভারত অধিনায়ককে 'কঠোর শাস্তি' দেওয়া উচিত। এবার মুখ খুললেন অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন কিংবদন্তি শেন ওয়ার্ন এবং অ্যাডাম গিলক্রিস্টও।

প্রাক্তন লেগ-স্পিনার এমন সিদ্ধান্তের জন্য হতাশার দিকে ইঙ্গিত করেছিলেন, যা সময়ের সাথে সাথে আরও খারাপ হয়েছিল। ওয়ার্ন বলেছেন, ‘দেখুন, এটি একটি আকর্ষণীয় ঘটনা, আমি নিশ্চিত নই যে একটি আন্তর্জাতিক দলের অধিনায়কের এটি করা উচিত। কিন্তু মাঝে মাঝে হতাশা বাড়ে, আপনি খুব হতাশ হয়ে পড়েন এবং সেই কারণেই আমি বলেছিলাম যে আমি ভাবছি এই সিরিজে তিন বা চারবার এমন হয়েছে কিনা এবং তারপরে তারা ভেবেছিল এটাই যথেষ্ট, এখন এটি আর ঘটবে না।’

বিষয়টি নিয়ে নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান অ্যাডাম গিলক্রিস্ট বলেছিলেন যে ভারতীয় অধিনায়কের হতাশা বাড়ছিল এবং তারপরে তা সেই চরম মুহূর্তে পৌঁছেছিল। গিলক্রিস্ট বলেছেন, ‘আমি যে অভিযোগটি নিয়ে আগ্রহী তা হল এটি সমস্ত পূর্বপরিকল্পিত বলে মনে হচ্ছে। অনেকদিন ধরেই এমনটা হয়ে আসছিল তারপরে সেদিন তা একটা ব্রেকিং পয়েন্টে পৌঁছেছে।’ ওয়ার্ন স্বীকার করেছেন যে বলটি স্টাম্পে আঘাত করার মতো দেখাচ্ছে, 'বলটি মিডল স্টাম্পে যেতে পারে, যদিও উইকেটের উপর দিয়ে যাওয়ার উপায় ছিল না।’ ২০১৮ সালের ব্যানক্রফ্ট স্যান্ডপেপার ঘটনাটিও তুলে ধরেন অ্যাডাম গিলক্রিস্ট।

বন্ধ করুন