বাংলা নিউজ > ময়দান > ঠুকঠুকে পূজারা কিনা ঝড়ের গতিতে রান তুললেন দ্বিতীয় ইনিংসে! চেতেশ্বরের রুদ্রমূর্তির কারণ জানালেন শার্দুল
চেতেশ্বর পূজারা। ছবি- বিসিসিআই।
চেতেশ্বর পূজারা। ছবি- বিসিসিআই।

ঠুকঠুকে পূজারা কিনা ঝড়ের গতিতে রান তুললেন দ্বিতীয় ইনিংসে! চেতেশ্বরের রুদ্রমূর্তির কারণ জানালেন শার্দুল

  • জোহানেসবার্গ টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে সবার নজর কাড়ে চেতেশ্বর পূজারার স্ট্রাইক-রেট।

পরিচিত ছন্দের ধারে-কাছে নেই চেতেশ্বর পূজারা। পরিস্থিতি এমন জায়গায় দাঁড়িয়ে যে, জোহানেসবার্গ টেস্টে ব্যাট হাতে ব্যর্থ হলে টেস্টে কেরিয়ারে ইতি পড়ে যেতে পারে টিম ইন্ডিয়ার তারকা ব্যাটসম্যানের। পূজারার ব্যাটিং স্টাইল কারও অজানা নয়। লাল বলের ক্রিকেটে খুঁটে খুঁটে ইনিংস গড়ে তোলাই তাঁর স্বভাব।

স্লো ব্যাটিংয়ের জন্য টেস্টেও যে পূজারার স্ট্রাইক-রেট নিয়ে অতীতে একাধিকবার প্রশ্ন উঠেছে, সেই তিনিই কিনা জোহানেসবার্গের কঠিন পিচে দিনের শেষবেলার পড়ন্ত আলোয় প্রোটিয়া বোলারদের অনায়াসে বাউন্ডারিতে পাঠালেন বেশ কয়েকবার।

ভারত ৪৪ রানে ২ উইকেট হারিয়ে বসে দ্বিতীয় ইনিংসে। সুতরাং, ঠুকে ঠুকে খেলার আদর্শ মঞ্চ প্রস্তুত ছিল চেতেশ্বরের সামনে। তবে ওয়ান্ডারার্সে দেখা যায় অচেনা পূজারাকে। ৭টি বাউন্ডারির সাহায্যে মাত্র ৪২ বলে ৩৫ রান করে দ্বিতীয় দিনে অপরাজিত থাকেন তিনি।

চেতেশ্বরের এমন ভোলবদল নিয়ে স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন শুনতে হয় দিনের শেষে সাংবাদিক সম্মেলনে আসা শার্দুল ঠাকুরকে। টিম ম্যানেজমেন্টের তরফে পূজারাকে আগ্রাসী খেলার কোনও বার্তা দেওয়া হয়েছিল কিনা, সেবিষয়ে জানতে চাওয়া হয় ঠাকুরের কাছে। তিনি স্পষ্ট তা অস্বীকার করেন।

শার্দুল বলেন, ‘আমি মনে করি যে, পূজারা দারুণ ব্যাট করছে। কোনও ব্যাটসম্যানের জন্য বিশেষ কোনও বার্তা দেওয়া হয়নি। কেননা সবাই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার। সবার ব্যক্তিগত পরিকল্পনা ও ব্যাটিং স্টাইল থাকে। নির্দিষ্ট দিনের পরিস্থিতি অনুযায়ী সবাই ব্যাটিং করে। আজ পূজারা সম্ভবত নিজে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করছিল। তাই শট খেলছে।’

শার্দুল আরও যোগ করেন, ‘তাছাড়া আজ শট নেওয়ার জন্য বেশ কিছু খারাপ বল পেয়েছে পূজারা। কারণ, দক্ষিণ আফ্রিকা উইকেট নেওয়ার চেষ্টায় ফুল লেনথ বল করছিল। স্পিনারদের বিরুদ্ধে কাট শট খেলারও সুযোগ পেয়েছে ও। স্পিনারদের বিরুদ্ধে ২-৪টে অতি সহজ শট খেলার সুযোগ পেয়েছে। ও যদি এমন খেলতে থাকে, তবে অবশ্যই রান আসবে।’

বন্ধ করুন