বাংলা নিউজ > ময়দান > এই বাচ্চাটার উপর অনেক খাটতে হবে শ্রী, কার প্রসঙ্গে বলেছিলেন রবি শাস্ত্রী

এই বাচ্চাটার উপর অনেক খাটতে হবে শ্রী, কার প্রসঙ্গে বলেছিলেন রবি শাস্ত্রী

Ravi Shastri and R Sridhar.   (Getty Images)

ভারতের প্রাক্তন ফিল্ডিং কোচ আর শ্রীধর জানিয়েছেন যে ভারতের তারকা ব্যাটারের একটি বড় দুর্বলতা। ২০১৮ সালে তাঁর অভিষেকের সময় থেকেই এই দুর্বলতা চোখে এসেছিল। শাস্ত্রী আগেই বলেছিলেন, শ্রীধর জানালেন ভারতীয় তারকার দুর্বলতা ধরে ফেলেছে সকলে

বর্তমান ভারতীয় দল দারুণ ফর্মে রয়েছেন। দলের মধ্যে ম্যাচ-উইনারদের সংখ্যা একাধিক রয়েছে। এমনকি যারা বেঞ্চ বসে রয়েছেন তাদেরকে নিয়েও খুব সহজেই বিশ্বের শীর্ষ একাদশ তৈরি করা যেতে পারে। এটি দেখায় যে ভারতীয় ক্রিকেট অসাধারণ গভীরতা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। তবে বাঁহাতি দ্রুতগামী বোলারদের বিরুদ্ধে দুর্বলতা এবং টপ-অর্ডারের পতনের দুর্বলতার বিষয়টি চোখে লাগলেও, এই ভারতীয় দলের ত্রুটির সংখ্যা খুব কমই।

বলা হচ্ছে, বিরাট কোহলিকে বাদ দিলে প্রত্যেক খেলোয়াড়ই বর্তমানে দারুণ ছন্দে রয়েছেন। বিরাট কোহলি বারবার বাইরের বলের ফাঁদে পড়ে যাচ্ছেন। তবে বিরাট ছাড়াও চাপে রয়েছেন ভারতের আরও একজন ক্রিকেটার। শ্রেয়স আইয়ারের উপরেও তৈরি হয়েছে আলাদা চাপ। ২০২২ আইপিএল থেকেই শর্ট বলের বিরুদ্ধে আইয়ারের দুর্বলতা সম্পর্কে অনেক কিছু লেখা হয়েছে। কলকাতা নাইট রাইডার্সের অধিনায়ককে নিয়ে অনেক কিছু বলা হয়েছে। কিন্তু ভারতের প্রাক্তন ফিল্ডিং কোচ আর শ্রীধর জানিয়েছেন যে এই সমস্যাটি ২০১৮ সালেও ছিল। শ্রেয়স আইয়ার যখন ভারতের হয়ে অভিষেক করে ছিলেন তখন থেকেই এই সমস্যাটা দেখা গিয়েছিল।

আর শ্রীধর ক্রিকেট ডটকমকে বলেছেন, ‘এটি একটি খুব অনুভূত দুর্বলতা। শুধু এখন নয়, আগেও আমরা সবাই এটিকে সর্বোচ্চ স্তরেও দেখছি। ২০১৮ সালে পোর্ট এলিজাবেথের একটি ঘটনা আমার মনে আছে। শ্রেয়স আইয়ার ভারতে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে অভিষেক করেছিলেন এবং তার পরে দ্রুতই আমরা বহু-ফর্ম্যাট সফরের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়েছিলাম। আমি ভুল না করলে শ্রেয়স চতুর্থ ওয়ানডে খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন। তিনি মরকেলের বিরুদ্ধে ব্যাট করতে গিয়েছিলেন এবং সরাসরি তিনি (মরকেল) তাঁকে (শ্রেয়স আইয়ার) শর্ট বল দিয়ে পরীক্ষা করেছিলেন। এবং তিনি এটিকে থার্ড ম্যানের কাছে ফিরিয়ে দিয়েছেন।’

এরপরে তিনি বলেন, ‘রবি শাস্ত্রী আমার পাশে বসে ছিলেন এবং তিনি বলেছিলেন 'শ্রী, ইয়ে বাঁচে পে বহুত কাম করনা পড়েগা।’ শাস্ত্রী মাত্র একটি বল দেখেছেন। আমি নিশ্চিত শ্রেয়স ব্যাটিং কোচের সঙ্গে খুব পরিশ্রম করছেন। তিনি সম্ভবত সেরা কোচ পেয়েছেন। তাঁকে সাহায্য করার জন্য - রাহুল দ্রাবিড়, বিক্রম রাঠৌর। মুম্বইতে তাঁর ব্যক্তিগত কোচও থাকতে পারে, যাদের সঙ্গে সে এই বিষয়ে কথা বলবে।"

আইয়ার ২০১৮ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে চতুর্থ ওডিআইতে ভারতের বাইরে সে প্রথম ম্যাচ খেলতে গিয়েছিলেন। সেই ম্যাচটি ছিল জোহানেসবার্গে। ৫ম ওডিআই ছিল পোর্ট এলিজাবেথে এবং উভয় ক্ষেতেই তিনি মর্কেলের বিরুদ্ধে খেলেন কিন্তু লুঙ্গি এনগিদির বলে আউট হন।

আইয়ার প্রসঙ্গে শ্রীধর বলেন, ‘আমি মনে করি এটি অন্য যে কোনও কিছুর চেয়ে মানসিক জিনিস বেশি। আইয়ার সুপার ফিট। তিনি ভালো কৌশল পেয়েছেন এবং যেদিন তিনি শর্ট-পিচ বোলিং কোডটি ভেঙে ফেলবেন; বোলারদের কাছে তাঁকে বল করার কোন উপায় থাকবে না। কারণ তিনি লাইন এবং সেই সমস্ত জিনিসের মধ্য দিয়ে আঘাত করতে পারেন। সে এর থেকে বেরিয়ে আসা কেবল সময়ের অপেক্ষা কিন্তু। অনেক খেলোয়াড়ের কাছেই তাদের শক্তি তাদের দুর্বলতাটা একটা বড় বিষয়।’

বন্ধ করুন