বাংলা নিউজ > ময়দান > পরিবেশ, খাদ্যাভ্যাসের কারণেই নাকি পাক ফাস্টবোলারদের চেয়ে পিছিয়ে রয়েছেন বুমরাহরা, দাবি শোয়েবের
মহম্মদ শামি, জসপ্রীত বুমরাহ, মহম্মদ সিরাজ, ইশান্ত শর্মা।

পরিবেশ, খাদ্যাভ্যাসের কারণেই নাকি পাক ফাস্টবোলারদের চেয়ে পিছিয়ে রয়েছেন বুমরাহরা, দাবি শোয়েবের

  • কয়েক বছর ধরেই ভারতীয় সিম বোলিংয়ে যে অগ্রগতি হয়েছে, তার প্রশংসা করলেও, শোয়েব আখতার মনে করেন, পাকিস্তানের সিমারদের তুলনায় এখনও পিছিয়ে ভারত। পাক ক্রিকেটে সিমারদের যে শক্তি রয়েছে, সেটা অনুপস্থিত ভারতীয় ক্রিকেটে। এর পিছনের কারণও ব্যাখ্যা করেছেন শোয়েব।

ভারত ও পাকিস্তানের পেসারদের তুলনা করতে গিয়ে একটি আকর্ষণীয় পর্যবেক্ষণ করেছেন রাওয়ালপিণ্ডি এক্সপ্রেস। কয়েক বছর ধরেই ভারতীয় সিম বোলিংয়ে যে অগ্রগতি হয়েছে, তার প্রশংসা করলেও, শোয়েব আখতার মনে করেন, পাকিস্তানের সিমারদের তুলনায় এখনও পিছিয়ে ভারত। পাক ক্রিকেটে সিমারদের যে শক্তি রয়েছে, সেটা অনুপস্থিত ভারতীয় ক্রিকেটে। এর পিছনের কারণও ব্যাখ্যা করেছেন শোয়েব।

অস্ট্রেলিয়ার কিংবদন্তি ব্রেট লি'র সাথে একটি পডকাস্টে কথা বলার সময় শোয়েব দাবি করেছেন, ‘পাকিস্তান এবং ভারতের মধ্যে পার্থক্য রয়েছে। ভারতীয়রা ভাল ফাস্ট বোলার তৈরি করছে ঠিকই, কিন্তু সেই ফাস্টবোলারদের মধ্যে সেই আগ্রাসী ভাবটা নেই, চোখেমুখে সেই রাগ, এ বার শেষ করে দেবো- সেই মানসিকতার অভাব রয়েছে।’

আর এই পার্থক্য হওয়ার কারণটাও শোয়েব আখতার উল্লেখ করেছেন। তাঁর মতে, পরিবেশ এবং খাদ্যাভ্যাসের ফলেই এই পার্থক্য রয়েছে দুই দলের পেসারদের মধ্যে। পাশাপাশি ফাস্ট বোলিং বিভাগে পাকিস্তানের আধিপত্যের কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে, শোয়েব এই মনোভাবের পিছনে একটি প্রধান কারণ হিসাবে আইডল বাছাইয়ের উল্লেখ করেছেন।

রাওয়ালপিণ্ডি এক্সপ্রেস দাবি করেছেন, ‘আমাদের যারা আইডল হিসেবে রয়েছে, তাদের মনোভাবের পাশাপাশি পরিবেশ এবং খাদ্যাভ্যাস এবং আগ্রাসী মনোভাব সিমারদের উপর প্রভাব ফেলে। আবার আমার মতো মানুষ রয়েছে, যারা শক্তিতে পরিপূর্ণ। এটা আমাদের দ্রুত বল করতে আনন্দ দেয়।’

তিনি আরও উল্লেখ করেছেন যে, পাকিস্তানের লোকেরা আমিশ খাবারই পছন্দ করেন এবং খেয়ে থাকেন। আর এটাই পাকিস্তানের বোলারদের ‘সিংহের মতো দৌড়ে’র একটি কারণ।

তিনি ব্যাখ্যা করেছেন, ‘আমাদের দেশের লোকেরা প্রচুর পরিমাণে মাংস খায় এবং দিনের শেষে পশুর মতোই শক্তি আমাদের হয়ে যায়। ফাস্ট বোলাররাও সে কারণে সিংহের মতো দৌড়ায়।’

বন্ধ করুন