বাংলা নিউজ > ময়দান > কার্গিল যুদ্ধে অংশ নিতে চেয়েছিলেন আখতার! ফিরিয়ে দিয়েছিলেন কোটি টাকার প্রস্তাব
বাইশ গজে শোয়েব আখতার (ছবি-টুইটার)

কার্গিল যুদ্ধে অংশ নিতে চেয়েছিলেন আখতার! ফিরিয়ে দিয়েছিলেন কোটি টাকার প্রস্তাব

  • কার্গিল যুদ্ধের প্রভাব পড়েছিল ভারত ও পাকিস্তানের ক্রিকেটেও। জানেন কি পাকিস্তানের প্রাক্তন ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতারও কার্গিলের যুদ্ধে ভারতকে আক্রমণ করতে চেয়ে ছিলেন। হ্যাঁ, তিনি শুধু কার্গিল যুদ্ধের জন্যই কোটি কোটি টাকার প্রস্তাব ছেড়ে দিয়ে ছিলেন।

কার্গিল যুদ্ধে ভারতের জয়ের ২৩ বছর পূর্ণ হল। এই যুদ্ধটি ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে ১৯৯৯ সালে সংঘটিত হয়েছিল। যেখানে ২৬ জুলাই ভারত তার বিজয় পতাকা উড়িয়েছিল। এই যুদ্ধের প্রভাব পড়েছিল ভারত ও পাকিস্তানের ক্রিকেটেও। সম্পর্কের টানাপোড়েনের পাশাপাশি পরবর্তী সংঘর্ষকে উভয় দেশের জনগণ কোনো যুদ্ধের চেয়ে কম মনে করেনি। কিন্তু জানেন কি পাকিস্তানের প্রাক্তন ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতারও কার্গিলের যুদ্ধে ভারতকে আক্রমণ করতে চেয়ে ছিলেন। হ্যাঁ, তিনি শুধু কার্গিল যুদ্ধের জন্যই কোটি কোটি টাকার প্রস্তাব ছেড়ে দিয়ে ছিলেন।

১৯৯৯ সালের মে থেকে জুলাইয়ের মধ্যে কার্গিল যুদ্ধ হয়েছিল। যেখানে ভারত ও পাকিস্তানের হাজার হাজার সৈন্যিকের প্রাণ গিয়েছিল। সেই যুদ্ধের আড়াই দশক পর, শোয়েব আখতার জানিয়েছেন যে তিনিও পাকিস্তানের হয়ে যুদ্ধ করতে প্রস্তুত ছিলেন। শোয়েব আখতার পাকিস্তানের নিউজ চ্যানেল এআরওয়াই নিউজের সঙ্গে কথোপকথনে বলেছেন, ‘আমার এই গল্পটি খুব কম লোকই জানে, আমি কার্গিল যুদ্ধে ইংল্যান্ডের কাউন্টি দল নটিংহামশায়ার থেকে ১ কোটি ১৬ লাখ টাকার বেশি প্রস্তাব পেয়েছিলাম। কিন্তু পাকিস্তানের হয়ে কার্গিল যুদ্ধে লড়াই করব বলে আমি এই প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলাম।’ 

প্রাক্তন এই ক্রিকেটার আরও বলেছিলেন যে লড়াইয়ে অংশ নেওয়ার জন্য তিনি পাকিস্তানি জেনারেলের সঙ্গেও কথা বলেছেন। জেনারেল তখন আখতারকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন যে তিনি সেখানে গিয়ে কি করবেন। এ বিষয়ে আখতার বলেছিলেন, যুদ্ধ শুরু হতে চলেছে, এটা ভালো যে আমরা সকলে একসঙ্গে লড়ব, একসঙ্গে মরব। শোয়েব আখতারের নিজের এই ইচ্ছা পূরণের জন্য কোটি টাকার চুক্তি প্রত্যাখ্যান করার জন্যও তার কোনও আফসোস ছিল না। বরং, আখতার কাশ্মীরে এক বন্ধুকে বলেছিলেন যে তাঁকেও যুদ্ধ করতে প্রস্তুত থাকতে হবে।

শোয়েব আখতারের এই প্রকাশ অবশ্যই আকর্ষণীয়। কারণ এখন পর্যন্ত ভারতের বিরুদ্ধে তার বোলিং দেখেছিল বিশ্ব ক্রিকেট। আখতার বলেছিলেন যে তিনি যখন ক্রিকেট খেলতে আসেন, তখন সচিনকে ক্রিকেটে ঈশ্বর বলা হত। কিন্তু তিনি জানতেন, সচিন যদি সচিন হয়, তবে তারও নিজস্ব স্টাইল আছে। তিনি বলেছিলেন যে তিনি যখন ক্রিকেটে এসেছিলেন, তিনি প্রথম বলেই সচিনের উইকেট নিতে চেয়েছিলেন এবং তা করে দেখিয়েছিলেন।

বন্ধ করুন