বাংলা নিউজ > ময়দান > KKR ক্যাপ্টেনকে ভারত অধিনায়ক হিসেবে দেখতে চান তাঁর গুরু নায়ার

KKR ক্যাপ্টেনকে ভারত অধিনায়ক হিসেবে দেখতে চান তাঁর গুরু নায়ার

শ্রেয়স আইয়ার।

বয়সের সঙ্গে সঙ্গে ব্যাট হাতে তাঁর ধারাবাহিকতা এবং চাপের পরিস্থিতি থেকে দলকে বাঁচানোর ক্ষেত্রে মাথা ঠান্ডা রাখা শ্রেয়স আইয়ারের বড় গুণ। যে কারণে ২৮ বছরের তারকাকে রোহিত-পরবর্তী যুগে একজন সফল অধিনায়ক হওয়ার বিষয়ে অনেকেই এগিয়ে রাখছেন।

অধিনায়কত্ব নিয়ে ভারতীয় ক্রিকেটে এখন জোর চর্চা চলছে। রোহিত শর্মার চোট, টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক হিসেবে হার্দিক পাণ্ডিয়ার সাফল্য, ব্যাটসম্যান হিসেবে কেএল রাহুলের ব্যর্থতার পর থেকে এই নিয়ে আরও জল্পনা বেড়ে গিয়েছে। এই সমস্ত কিছুর মধ্যে শ্রেয়স আইয়ারকে ভবিষ্যতের অধিনায়ক হিসেবে ভাবনাচিন্তা করা হচ্ছে। শ্রেয়স ক্রিকেটের পাশাপাশি আইপিএলে দলের নেতৃত্ব দিয়েছেন। ভারতীয় দলে নিজের জায়গা তিনি ধীরে ধীরে পাকা করছেন।

বয়সের সঙ্গে সঙ্গে ব্যাট হাতে তাঁর ধারাবাহিকতা এবং চাপের পরিস্থিতি থেকে দলকে বাঁচানোর ক্ষেত্রে মাথা ঠান্ডা রাখা শ্রেয়স আইয়ারের বড় গুণ। যে কারণে ২৮ বছরের তারকাকে রোহিত-পরবর্তী যুগে একজন সফল অধিনায়ক হওয়ার বিষয়ে অনেকেই এগিয়ে রাখছেন।

২০১৮ আইপিএলের মাঝপথে গৌতম গম্ভীর ফ্র্যাঞ্চাইজি দল দিল্লির দায়িত্ব থেকে নিজে সরে দাঁড়ালে, তখন শ্রেয়সের হাতে দায়িত্ব তুলে দেওয়া হয়। এবং শ্রেয়স নিরাশ করেননি। তিনি কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে প্রথম বারের মতো দিল্লির হয়ে অধিনায়কত্ব করেছিলেন এবং দলকে ৫৫ রানে জয় এনে দিয়েছিলেন। সেই ম্যাচে ৪০ বলে অপরাজিত ৯৩ রান করেছিলেন শ্রেয়স আইয়ার। এবং ‘ম্যান অফ দ্য ম্যাচ’ পুরস্কারও জিতেছিলেন।

আরও পড়ুন: সচিন-যুবি-বুমরাহদের ফিট করেছেন, এ বার পন্তের দায়িত্বে, জানেন কে এই ডক্টর দীনশ?

২০১৯ সালে শ্রেয়সকে দিল্লি ক্যাপিটালসের সম্পূর্ণ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। তিনি সেই বছর নতুন চেহারার দিল্লিকে প্লে অফে নিয়ে যান। দলটি ১৪টি ম্যাচের মধ্যে ন'টিতে জিতে তৃতীয় স্থানে লিগ পর্ব শেষ করেছিল। এবং সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে এলিমিনেটরে জিতে কোয়ালিফায়ার টু-তে উঠেছিল। তবে চেন্নাই সুপার কিংসের কাছে তারা কোয়ালিফায়ার টু-তে হেরে যায়।

এর পর ২০২০ সালে তাঁর নেতৃত্বেই দিল্লি ক্যাপিটালস ফাইনালে ওঠে। সে বারই প্রথম দিল্লি আইপিএলের ফাইনালে উঠেছিল। তবে ফাইনালে রোহিতের নেতৃত্বাধীন মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের কাছে ৫ উইকেটে হেরে যায়। শ্রেয়স ৫০ বলে অপরাজিত ৬৫ রানের একটি গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেছিলেন।

আরও পড়ুন: ও একজন যোদ্ধা, শক্ত মনের মানুষ- পন্তের মুম্বইয়ে আসার আগে বিশেষ বার্তা কিং খানের

প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার এবং ঘরোয়া তারকা অভিষেক নায়ার, যিনি শ্রেয়সের ক্যারিয়ার গঠনে একটি বড় ভূমিকা পালন করেছেন, তাঁর মতে, কেকেআর অধিনায়ক একজন স্বাভাবিক নেতা এবং ভারতের অধিনায়ক হিসেবে রোহিতের উত্তরাধিকারী হওয়ার সমস্ত গুণাবলী রয়েছে৷

ভারতের হয়ে তিনটি ওয়ানডে খেলা নায়ার টাইমস অফ ইন্ডিয়া ডটকমকে বলেছেন, ‘শ্রেয়স একজন স্বাভাবিক ভাবেই নেতা। আমরা ওকে আইপিএলে নেতৃত্ব দিতে দেখেছি। ও দিল্লি ক্যাপিটালস এবং এখন কলকাতা নাইট রাইডার্সের নেতৃত্ব দিচ্ছে। অল্প বয়স হলেও অধিনায়কের দায়িত্ব নিতে ও সক্ষম। ব্যাট হাতেও পারফর্ম করে। পাশাপাশি ওর মধ্যে সেই গুণ রয়েছে, যা ওকে নেতা হিসেবে বিশেষ করে তোলে।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘ও এমন একজন ক্যাপ্টেন, যে দলের প্লেয়ারদের নিজেদের মতো করে খেলতে দেন। ও খুব কৌশলী এবং খেলা সম্পর্কে সত্যিই গভীরে চিন্তাভাবনা করে। ও খেলাটি বিশ্লেষণ করে। পাশাপাশি শুধু নিজের খেলা নয়, সতীর্থদের আরও খেলার ক্ষেত্রে সাহায্যও করে। রোহিত শর্মা পরবর্তী যুগে শ্রেয়স একজন দুর্দান্ত প্রার্থী (অধিনায়কত্বের জন্য)। ভারতীয় দলের একজন ভালো নেতা হওয়ার সমস্ত গুণাবলী রয়েছে ওর।’

বন্ধ করুন