বাংলা নিউজ > ময়দান > SL vs IND: বায়ো বাবল ভাঙা ক্রিকেটারদের মাফ করতে রাজি নন অরবিন্দ ডি’সিলভা
অরবিন্দ ডি’সিলভা (ছবি:গেটি ইমেজ)
অরবিন্দ ডি’সিলভা (ছবি:গেটি ইমেজ)

SL vs IND: বায়ো বাবল ভাঙা ক্রিকেটারদের মাফ করতে রাজি নন অরবিন্দ ডি’সিলভা

  • এই তিন ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে আরও কঠিন শাস্তি চান অরবিন্দ ডি’সিলভা।

জৈব সুরক্ষা বলয়ের নিয়ম ভাঙার পরে বড় শাস্তির মুখে পড়তে হয়েছিল শ্রীলঙ্কার তিন ক্রিকেটার কুশল মেন্ডিস, নিরোশান ডিকওয়েলা এবং দনুষ্কা গুনাথিলাকাকে। আগেই তিন জনকেই সাসপেন্ড করা হয়েছিল। ইংল্যান্ড থেকে সোজা দেশে ফিরিয়ে আনা হয়েছিল। এবার শ্রীলঙ্কার সেই তিন ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে কড়া শাস্তি চাইলেন শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন বিশ্বকাপ জয়ী দলের সদস্য ও বর্তমানে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট প্রশাসনের অন্যতম কর্তা অরবিন্দ ডি’সিলভা। 

এই তিন ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নিয়ে নতুন দৃষ্টান্ত তৈরি করতে চান অরবিন্দ ডি’সিলভা। কারণ এর আগেও তারা এই ভুল করেছিলেন। অরবিন্দ ডি’সিলভা জানিয়েছেন, ‘ক্যারিয়ারের শুরুতেই এই তিন খেলোয়াড়ের সম্বন্ধে খারাপ রেকর্ড রয়েছে। আমরা যদি সেই সময়ে উপযুক্ত শাস্তি দিতাম তবে তারা এই ধরণের ভুলের পুনরাবৃত্তি করত না। আমরা যদি তাদের উপযুক্ত শাস্তি দিতে না পারি তবে তারা এই ঘটনা থেকে কোনও শিক্ষা নিতে পারবে না।’

করোনার মধ্যেই ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ চলাকালীন গভীর রাতে শ্রীলঙ্কার দুই ক্রিকেটার কুশল মেন্ডিস এবং নিরোশান ডিকওয়েলা ডারহ্যামের রাস্তায় বসে ছিলেন। অনেকের অনুমাণ ছিল তারা সেলিব্রেশন করতে বেড়িয়েছিলেন। ভিডিয়োতে দুই ক্রিকেটারকে দেখা গেলেও, তদন্তে জানা যায়, এঁদের সঙ্গে দনুষ্কাও ছিলেন। স্বভাবতই জৈব সুরক্ষা বলয়ের নিয়ম ভাঙার অভিযোগে তিন জনকেই কঠোর শাস্তি পেতে হয়েছিল। 

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের সচিব মোহন ডি’সিলভা সেই সময় বলেছিলেন, ‘জৈব সুরক্ষা বলয়ের নিয়ম ভাঙার জন্য কুশল মেন্ডিস, দনুষ্কা গুনাথিলাকা এবং নিরোশান ডিকওয়েলাকে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের কার্যনির্বাহী কমিটি সাসপেন্ড করেছে এবং তিন জনকেই শ্রীলঙ্কায় ফিরিয়ে আনা হচ্ছে।’ এরপরে অরবিন্দ ডি’সিলভা জানিয়েছেন, ‘তারা মাঠের বাইরে কী দোষ করেছে তা বুঝতে হবে এবং তাদের উচিত, নিজেদের দুর্ব্যবহার সম্পর্কে অবগত হতে হবে। দেশের প্রতি নিজেদের দায়িত্ব উপলব্ধি করে দেশকে প্রতিনিধিত্ব করার বিষয়টা তাদের বুঝতে হবে। যখন একটি বায়ো বাবল তৈরি করা হয় তাদের নিয়মকানুন অনুসারে বাঁচতে হবে।’

বন্ধ করুন