বাংলা নিউজ > ময়দান > 'গ্রেপ চ্যাপেলের কোপে পড়া থেকে নিজেই গ্রেগ', বিরাটকাণ্ড নিয়ে খোঁচা সৌরভকে
গ্রেগ চ্যাপেল এবং সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।(ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)
গ্রেগ চ্যাপেল এবং সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।(ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)

'গ্রেপ চ্যাপেলের কোপে পড়া থেকে নিজেই গ্রেগ', বিরাটকাণ্ড নিয়ে খোঁচা সৌরভকে

  • একদিনের ক্রিকেটে বিরাট কোহলির নেতৃত্ব যাওয়ার পরই তোপের মুখে পড়েছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

একদিনের ক্রিকেটে বিরাট কোহলির নেতৃত্ব যাওয়ার পরই তোপের মুখে পড়েছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। তা নিয়ে মজা শুরু করলেন কমেডিয়ানরা। তেমনই একজন কমেডিয়ান সৌরভের নাম না করে বলেন, একসময় যিনি গ্রেপ চ্যাপেলের কোপে পড়েছিলেন। আজ তিনিই হয়েছেন চ্যাপেল।

কমেডিয়ান অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় লেখেন, 'কখনও আপনি গ্রেগ চ্যাপেলড হন। কখনও আবার আপনিই গ্রেপ চ্যাপেল হয়ে ওঠেন। (এটাই) জীবন।' সেই টুইটের কোথাও বিরাট বা ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) প্রেসিডেন্টের নাম উল্লেখ না করলেও নেটিজেনদের মতে, প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক সৌরভকে নিয়েই সেই মন্তব্য করেছেন অভিজিৎ। এক নেটিজেন বলেন, 'সৌরভ দাদাকে খোঁচা দিও না। তোমার আত্মীয় না।' (একটি ভিডিয়ো করেছিলেন সৌরভকে নিয়ে)।

উল্লেখ্য, ২০০৫ সালে টানা বাজে ফর্মের জেরে সৌরভকে ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। সঙ্গে ছিল তত্‍কালীন ভারতীয় কোচ গ্রেপ চ্যাপেলের বিস্ফোরক ইমেল। চ্যাপেল দাবি করেছিলেন, ভারতীয় ক্রিকেট দলের নেতৃত্ব দেওয়ার যোগ্য নন সৌরভ। তাঁর আচরণে দলের ক্ষতি হচ্ছে। তা নিয়ে তুমুল বিতর্ক হয়েছিল। একাংশের দাবি ছিল, অনৈতিকভাবে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। পরে সৌরভ ভারতীয় দলে প্রত্যাবর্তন করেছিলেন। এখন তাঁর বোর্ডই বিরাটকে একদিনের ক্রিকেটে ভারতের অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে দিয়েছে। তা নিয়ে রীতিমতো ক্ষুব্ধ হয়েছেন বিরাট সমর্থকরা। যদিও সংবাদসংস্থা এএনআইকে সৌরভ বলেছেন, ‘বিসিসিআই এবং নির্বাচকরা মিলিতভাবে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আসলে টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব না ছাড়ার জন্য বিরাটকে অনুরোধ করেছিল বিসিসিআই। কিন্তু ও সেটায় রাজি হয়নি। সেই পরিস্থিতিতে সাদা বলের দুটি ফর্ম্যাটে দু'জন ভিন্ন অধিনায়ক রাখাটা ঠিক হবে বলে মনে করেননি নির্বাচকরা।’ সঙ্গে সৌরভ যোগ করেন, ‘তাই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে টেস্ট দলের অধিনায়ক থাকবেন বিরাট। সাদা বলের ক্রিকেটে ভারতের অধিনায়কত্ব করবেন রোহিত (শর্মা)। বিসিসিআইয়ের সভাপতি হিসেবে আমি নিজে বিরাটের সঙ্গে কথা বলেছি। নির্বাচক প্রধানও তাঁর সঙ্গে কথা বলেছেন।’

বন্ধ করুন