জাতীয় দলের দুই নির্বাচকের নিয়োগের জন্য তিন সদস্যের কমিটি গঠন করল বিসিসিআই (পিটিআই)
জাতীয় দলের দুই নির্বাচকের নিয়োগের জন্য তিন সদস্যের কমিটি গঠন করল বিসিসিআই (পিটিআই)

বয়স নয় ২২ গজের অভিজ্ঞতাই মুখ্য নির্বাচক হওয়ার মাপকাঠি, ঘোষণা সৌরভের

  • বিসিসিআইয়ের নিময়ানুসারে 'সিনিয়র মোস্ট' শব্দের ব্যাখা দিলেন বোর্ড সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।
  • সবার আগে টেস্ট খেলা খেলোয়াড় নন, সবচেয়ে বেশি টেস্ট ম্যাচ খেলা ক্রিকেটারই পাঁচ সদস্যের কমিটির মুখ্য নির্বাচক হবেন।

শুক্রবার ভারতীয় দলের নির্বাচক বাছতে তিন সদস্যের ক্রিকেট অ্যাডভাইসারি কমিটির(CAC) গঠন করল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার মদন লাল, আরপি সিং এবং সুলক্ষণা নায়েকর এই ক্যাক বেছে নেবে টিম ইন্ডিয়ার নতুন দুই নির্বাচক। বর্তমান মুখ্য নির্বাচক এমএসকে প্রসাদের কার্যকাল শেষ হয়েছে গত বছর সেপ্টেম্বরে, তবে তাঁর পরির্তন নিয়োগ না হওয়া পর্যন্ত বোর্ডের তরফে তাঁকে কাজ চালিয়ে যাওয়ার কথা বলা হয়েছে। অপর বিদায়ী নির্বাচক হলেন গগণ খোড়া।

টিম ইন্ডিয়ার মুখ্য নির্বাচকের নিয়োগ প্রসঙ্গে হিন্দুস্তান টাইমসকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে বিসিসিআইয়ের সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়েছেন, 'পাঁচ সদস্যের এই কমিটিতে সবচেয়ে বেশি টেস্ট ম্যাচ খেলা ব্যক্তিই চেয়ারম্যান পদে নিযুক্ত হবেন, সবার আগে টেস্ট ম্যাচ খেলা ব্যক্তি নন'।

বিসিসিআইয়ের সংবিধানের একটি ধারা নিয়ে বেশ কিছু সংশয় দেখা গিয়েছিল, সেই ব্যাপারেই বিসিসিআইয়ের অবস্থান স্পষ্ট করেন সৌরভ। অজিত আগারকার, লক্ষ্মণ শিবারামাকৃষ্ণণ, ভেঙ্কটেশ প্রসাদ, রাজেশ চৌহান, নয়ণ মোঙ্গিয়া, নিখিল চোপড়া, অ্যাবে কুরুভিল্লার মতো প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটাররা এই পদের অন্য ইতিমধ্যেই আবেদন জমা দিয়েছেন।

পাশাপাশি জোনের ভিত্তিতে নির্বাচক নির্বাচিত হওয়ার যে প্রথা চলে আসছে সে ব্যাপারটিও এই নির্বাচনের ক্ষেত্রে তাৎপর্যপূর্ণ। প্রত্যেক অঞ্চল থেকে একজন করে নির্বাচক থাকেন, যেমন পশ্চিমাঞ্চল থেকে বর্তমানে রয়েছেন যতীন পারাঞ্জপি, তাহলে কি মহারাষ্ট্রের খেলোয়াড় আগারকর এই প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে পারবেন? ‘দেখা যাক, আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখব। ভারত বৈচিত্র্যময় দেশ, তাই আমরা জোনের কথা মাথায় রাখার চেষ্টা করি। সবাই যাঁরা আবেদন জানিয়েছেন তাঁরা যদি অন্যসব যোগ্যতা সফলভাবে উতরে যান তাহলে সুযোগ থাকবে’, জানিয়েছে বিসিসিআইয়ের এক সূত্র।



বন্ধ করুন