বাংলা নিউজ > ময়দান > সৌরভকে ঘিরে স্বার্থের সংঘাতের একাধিক অভিযোগ, AGM-এ জবাব দিতে পারবেন BCCI সভাপতি?
সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। ছবি সৌজন্য : রয়টার্স (REUTERS)
সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। ছবি সৌজন্য : রয়টার্স (REUTERS)

সৌরভকে ঘিরে স্বার্থের সংঘাতের একাধিক অভিযোগ, AGM-এ জবাব দিতে পারবেন BCCI সভাপতি?

  • বোর্ড প্রেসিডেন্ট হয়েও কীভাবে অনলাইন ফ্যান্টাসি গেমের প্রচার চালান সৌরভ, তা নিয়েও উঠছে প্রশ্ন।

লোধা কমিটির প্রস্তাব অনুযায়ী বিসিসিআইয়ের গঠনতন্ত্রে যে আমূল পরিবর্তন এসেছে, তার মধ্যে অন্যতম বিষয় ছিল স্বার্থের সংঘাত। একই ব্যক্তির একাধিক পদে থাকা নিয়ে যেমন প্রবল আপত্তি উঠেছিল, ঠিক তেমনই বোর্ডের স্বার্থ বিরোধী কাজে যুক্ত থাকা কর্তাদের দিকেও সরাসরি আঙুল উঠেছে।

স্বার্থের সংঘাতের আওতায় থাকার অভিযোগ উঠেছিল, শ্রীনিবাসন, সৌরভ, দ্রাবিড়, লক্ষ্মণের মতো ভারতীয় ক্রিকেটের প্রথমসারির প্রশাসক ও প্রাক্তন ক্রিকেটারদের বিরুদ্ধে। সেই স্বার্থের সংঘাতের প্রসঙ্গ আবার ফিরে এল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের অন্দরমহলে এবং ফের সরাসরি আঙুল উঠল স্বয়ং বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের দিকে। পরিস্থিতি যেদিকে মোড় নিয়েছে, তাতে বোর্ডের বার্ষিক সাধারণ সভা উত্তাল হতে পারে সৌরভের স্বার্থের সংঘাত প্রসঙ্গে।

প্রথমত, বিসিসিআই সভাপতি হয়েও সৌরভ কীভাবে অনলাইন ফ্যান্টাসি গেমের বিজ্ঞাপন করেন, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে বিভিন্নমহল থেকে। অনলাইন ফ্যান্টাসি গেমকে কার্যত খেলার মোড়কে জুয়া হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। সেই নিরিখে সৌরভের মতো ব্যক্তিত্ব কীভাবে যুবসমাজকে এমন জুয়ার প্রতি আকৃষ্ট করেন, তা নিয়ে নৈতিকতার প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

দ্বিতীয়ত, বিসিসিআই সভাপতি হিসেবে সৌরভ এমন কিছু সংস্থার সঙ্গে বাণিজ্যিকভাবে যুক্ত, যেগুলি বিসিসিআইয়ের একাধিক স্পনসরের বিরোধী সংস্থা। যেমন ড্রিম ইলেভেন আইপিএলের স্পনসর হলেও সৌরভ ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর মাই ইলেভেন সার্কলের। দু'টিই অনলাইন ফ্যান্টাসি গেমিং প্ল্যাটফর্ম। অন্যদিকে, বাইজু'স ভারতীয় দলের স্পনসর হওয়া সত্ত্বেও সৌরভ যুক্ত হয়েছেন ক্লাসপ্লাসের সঙ্গে। দু'টি সংস্থা বাণিজ্যিক দিক দিয়ে একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বী।

তৃতীয়ত, সৌরভ জেএসডব্লিউ সিমেন্টের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর। এই জেএসডব্লিউর হাতে রয়েছে আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি দিল্লি ক্যাপিটালসের মালিকানা। বিসিসিআই সভাপতি হওয়া সত্ত্বেও সৌরভ একটি আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিক পক্ষের হয়ে বিজ্ঞাপন করেন কীভাবে তা নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন বেশ কয়েকটি রাজ্য ক্রিকেট সংস্থার প্রতিনিধিরা।

এক্ষেত্রে পালটা যুক্তি হল, ড্রিম ইলেভেনের সঙ্গে বোর্ডের স্পনসরশিপ চুক্তির আগে থেকেই সৌরভ যুক্ত রয়েছেন মাই ইলেভেন সার্কলের সঙ্গে। ড্রিম ইলেভেনর এই নিয়ে কোনও আপত্তিও নেই। তাছাড়া জেএসডব্লিউর হাতে আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিকানা থাকলেও তারা স্পনসর নয়।

এখন দেখার যে, বার্ষিক সাধারণ সভায় তাঁকে নিয়ে তৈরি হওয়া যাবতীয় অসন্তোষের যথাযথ জবাব দিতে পারেন কিনা সৌরভ।

বন্ধ করুন