বাংলা নিউজ > ময়দান > মাঠের পারফরম্যান্স ছাড়া খেলায় কিছু গুরুত্ব পায় না, অর্জুন-বিতর্কের আবহে বার্তা সচিনের
পুত্র অর্জুনের সঙ্গে সচিন তেন্ডুলকর। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
পুত্র অর্জুনের সঙ্গে সচিন তেন্ডুলকর। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

মাঠের পারফরম্যান্স ছাড়া খেলায় কিছু গুরুত্ব পায় না, অর্জুন-বিতর্কের আবহে বার্তা সচিনের

  • ছেলে অর্জুন তেন্ডুলকরকে নিয়ে ‘নেপোটিজম’ বিতর্ক অব্যাহত।

ছেলে অর্জুন তেন্ডুলকরকে নিয়ে ‘নেপোটিজম’ বিতর্ক অব্যাহত। তারইমধ্যে সচিন জানালেন, যে কোনও খেলোয়াড়ের ক্ষেত্রে মাঠের দক্ষতাই একমাত্র বিবেচ্য বিষয়। সেই পারফরম্যান্সের উপর ভিত্তিতেই সবকিছু নির্ভর করে। মাঠে খেলোয়াড়দের পূর্বপরিচয়, পারিবারিক ইতিহাস একেবারেই গুরুত্বহীন।

একটি ই-লার্নিং প্ল্যাটফর্মের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর হওয়ার পর ভার্চুয়াল আলাপচারিতায় সচিন বলেন, ‘আমরা যখনই ড্রেসিংরুমে ঢুকে যাই, তখন তুমি কোথা থেকে এসেছ, দেশের কোন অংশের মানুষ, তা একেবারেই গুরুত্ব পায় না। মাঠে এটা সবার ক্ষেত্রেই সমান।’ সঙ্গে যোগ করেন, ‘মাঠে তোমার পারফরম্যান্স ছাড়া খেলাধুলোয় কোনও বিষয় গুরুত্ব পায় না। ’

এমনিতেই আইপিএল নিলামে অর্জুন দল পাওয়ার থেকেই তুঙ্গে উঠেছে ‘নেপোটিজম’ বিতর্ক। একটি অংশের দাবি, কেবলমাত্র সচিনের পুত্র হওয়ার কারণে অর্জুনকে ২০ লাখ টাকা দিয়ে দলে নিয়েছে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। আর পাঁচজন ক্রিকেটার হলে সেই সুযোগ পেতেন না। যদিও মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের তরফে স্পষ্টভাবে জানানো হয়, নেপোটিজমের কোনও প্রশ্নই উঠছে না। স্রেফ যোগ্যতার ভিত্তিতেই অর্জুনকে দলে নেওয়া হয়েছে। মুম্বইয়ের ক্রিকেট অপারেশনসের ডিরেক্টর জাহির খান বলেছিলেন, 'বিষয়টা সহজভাবে দেখুন। একজন তরুণ ক্রিকেটার দলে এসেছে। ওকে ভালো খেলে নিজের দক্ষতা প্রমাণ করতে হবে। সর্বোচ্চ পর্যায়ে ও কেমন খেলবে, সেটা এখন পুরোপুরি ওর হাতে।'

ভাইয়ের পাশে দাঁড়ান সচিন-কন্যা সারা। সংক্ষিপ্ত ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে সারা লিখেছিলেন, 'এই প্রাপ্তি তোমার কাছ থেকে কেউ কেড়ে নিতে পারবে না। এটা শুধু তোমার।' এমনকী বিরাট কোহলির অবসাদ নিয়ে ‘হিন্দুস্তান টাইমস’-এর একটি প্রতিবেদন টুইটারে পোস্ট করে ঘুরিয়ে সচিনও নেপোটিজমের অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছিলেন বলে মনে করছিলেন অনেকে।

বন্ধ করুন