বাংলা নিউজ > ময়দান > ক্লাব-লাইসেন্সিংয়ের আবেদন ইস্টবেঙ্গলের, অনুশীলন দেখতে লাল-হলুদে ক্রীড়ামন্ত্রী
ইস্টবেঙ্গলের অনুশীলন দেখতে হাজির ক্রীড়ামন্ত্রী অরুপ বিশ্বাস।

ক্লাব-লাইসেন্সিংয়ের আবেদন ইস্টবেঙ্গলের, অনুশীলন দেখতে লাল-হলুদে ক্রীড়ামন্ত্রী

  • ইস্টবেঙ্গলের বিদেশিদের নামও কালকের মধ্যেই চূড়ান্ত হয়ে যাওয়ার কথা। হেড কোচ স্টিফেন কনস্টানটাইনের উপরই বিদেশি ঠিক করার ভার দিয়েছিলেন ইস্টবেঙ্গল এবং ইমামির কর্তারা। ক্লাব সূত্রে খবর, যে বিদেশিরা আসছেন তাঁরা এর আগে কখনও ভারতে খেলেননি

শুক্রবার বিকেলে স্টিফেন কনস্ট্যানটাইনের প্র্যাক্টিস দেখতে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবে হাজির হয়েছিলেন স্বয়ং ক্রীড়ামন্ত্রী অরুপ বিশ্বাস। বেশ কিছুক্ষণ মাঠের ধারে বসে কনস্ট্যানটাইনের প্র্যাকটিস দেখেন তিবি। অন্যতম শীর্ষকর্তা দেবব্রত সরকার সহ বাকিদের সঙ্গে আলোচনাও করতে দেখা যায় ক্রীড়ামন্ত্রীকে।

ইস্টবেঙ্গলের অনুশীলনে এ দিন হাজির হয়েছিলেন প্রাক্তন ফুটবলাররাও। প্রথম দিন হাজির ছিলেন ভাস্কর গঙ্গোপাধ্যায়, বিকাশ পাঁজি, সৌমিকদেরা। শুক্রবার জাতীয় দলের পুরনো কোচের সঙ্গে দেখা করতে এসেছিলেন দেবজিৎ ঘোষ, অনিত ঘোষ, রহিম নবি, অর্ণব মণ্ডলরা।

দ্বিতীয় দিন কনস্ট্যানটাইনের কড়া নজরদারিতে প্রায় দেড় ঘণ্টা অনুশীলন চলে। এ দিন প্র্যাকটিসে যোগ দেন সুমিত পাসি। রাউন্ডগ্লাস পঞ্জাব থেকে এই দেশীয় স্ট্রাইকারকে নেওয়া হয়েছে। তিনি জাতীয় দলের হয়েও ৮টি ম্যাচ খেলেছেন। ইন্ডিয়ান অ্যারোজ, স্পোর্টিং গোয়া, নর্থইস্ট ইউনাইটেড, ডিএসকে শিবাজিয়ান্স (লোন), জামশেদপুর এফসির হয়েও খেলেছেন সুমিত। গত বছর ছিলেন রাউন্ডগ্লাসে।

আরও পড়ুন: এখানে হারতে আসিনি, প্রতিপক্ষ ভয় পাবে- অনুশীলনে নেমেই হুঙ্কার ইস্টবেঙ্গল কোচের

এ ছাড়া শ্রীনিধি ডেকান ছেড়ে লালচুংনুঙ্গাও আসন্ন মরশুমে লাল হলুদ জার্সি পরেই খেলবেন। গোলকিপার শুভাশিস রায়চৌধুরীও গতকাল থেকেই ইস্টবেঙ্গল দলের সঙ্গে অনুশীলন করছেন। এই ফুটবলারদের নাম ক্লাবের তরফে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণাও করা হবে।

আরও পড়ুন: প্রয়াত তিন প্রধানে খেলা জাতীয় দলের তারকা ফুটবলার

সপ্তাহ শেষে স্থানীয় ফুটবলাররা চলে আসবে। সোমবার থেকে পুরোদমে অনুশীলন শুরু হবে। এখনই দু'বেলা করে চলছে ট্রেনিং। সকালে রিজার্ভ দলকে কোচিং করাচ্ছেন বিনো জর্জ। বিকেলে সিনিয়র দলের অনুশীলন চলছে স্টিফেনের তত্ত্বাবধানে।

ইস্টবেঙ্গলের বিদেশিদের নামও কালকের মধ্যেই চূড়ান্ত হয়ে যাওয়ার কথা। হেড কোচ স্টিফেন কনস্টানটাইনের উপরই বিদেশি ঠিক করার ভার দিয়েছিলেন ইস্টবেঙ্গল এবং ইমামির কর্তারা। ক্লাব সূত্রে খবর, যে বিদেশিরা আসছেন তাঁরা এর আগে কখনও ভারতে খেলেননি। ইরান থেকে সম্ভবত আসছেন এশিয়া কোটার ফুটবলার। তাঁকে পছন্দ করেছেন মজিদ বিসকর। সব মিলিয়ে দল গঠনে দেরি হলেও শক্তিশালী দল গড়েই অভিযানে নামতে চায় লাল হলুদ।

এ দিকে ক্লাব লাইসেন্সিংয়ের জন্য ফেডারেশনে আবেদন ইমামি ইস্টবেঙ্গল ফুটবল ক্লাবের। আইএফএর সমস্ত টুর্নামেন্ট এই নামেই খেলবে ইস্টবেঙ্গল। বাংলার ফুটবল নিয়ামক সংস্থায় ইতিমধ্যেই নাম পরিবর্তন হয়ে গিয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে ফেডারেশনকেও চিঠি পাঠান লাল হলুদের কর্তারা। কাগজপত্র খতিয়ে দেখে এএফসির কাছে পাঠাবে ফেডারেশন।

বন্ধ করুন