বাংলা নিউজ > ময়দান > খেলা ছাড়ব বললেই ছাড়া যাবে না, দেশের হয়ে খেলা ছেড়েই ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে মাঠে নেমে পড়বেন, সেটিও আর হচ্ছে না
শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট টিম। ফাইল ছবি- রয়টার্স।
শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট টিম। ফাইল ছবি- রয়টার্স।

খেলা ছাড়ব বললেই ছাড়া যাবে না, দেশের হয়ে খেলা ছেড়েই ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে মাঠে নেমে পড়বেন, সেটিও আর হচ্ছে না

  • অবসরেও নোটিশ পিরিয়ড! কর্পোরেট ধাঁচে কড়া নিয়ম চালু করল শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড।

দেশের হয়ে খেলা ছেড়েই ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে মাঠে নেমে পড়বেন, সেটি আর হচ্ছে না। এমনকি অবসর নেওয়ার পরে সারা বছর ঘুরে বেড়িয়ে শুধু হাই-প্রোফাইল ঘরোয়া ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে মাঠে নামবেন, তেমনটা ভেবে থাকলে, সে গুড়ে বালি। তার থেকেও বড় কথা, খেলা ছাড়ব বললেই ছাড়া যাবে না। অবসর নেওয়ার আগে নোটিশ পিরিয়ডে থাকতে হবে।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে কর্পোরেট ধাঁচের এমনই সব কড়া নিয়ম-কানুন চালু করল শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড। নতুন নিয়মগুলি অবিলম্বে লাগু করার কথাও জানিয়ে দেওয়া দেওয়া হয় বোর্ডের তরফে।

আসলে কয়েক দিনের ব্যবধানে ভানুকা রাজাপক্ষে ও দনুষ্কা গুণতিলকের আচমকা অবসর ঘোষণার পরেই নড়চড়ে বসে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড। সম্প্রতি দেশের হয়ে খেলা থেকে অবসর নিয়ে ক্রিকেটারদের বিদেশি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে মাঠে নামার প্রবণতাও চোখে পড়ছে। সব দিক দেখে শুনে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড তিনটি গুরুত্বপূর্ণ নিয়ম চালু করে।

প্রথমত, জাতীয় দলের হয়ে খেলা ক্রিকেটাররা অবসর নিতে চাইলে তিন মাস আগে বোর্ডের কাছে খেলা ছাড়তে চাওয়ার নোটিশ দিতে হবে।

দ্বিতীয়ত, জাতীয় দল থেকে অবসর নেওয়ার পর ৬ মাস কাটলে তার পরে কোনও ক্রিকেটারকে বিদেশি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে খেলার জন্য নো অবজেকশন সার্টিফিকেট দেওয়া হবে। তার আগে নয়।

তৃতীয়ত, জাতীয় দল থেকে অবসর নেওয়া খেলোয়াড়রা সরাসরি লঙ্কা প্রিমিয়র লিগের মতো টুর্নামেন্টে মাঠে নেমে পড়তে পারবেন না। এমন টুর্নামেন্টগুলি শুরুর আগে ঘরোয়া ক্রিকেটের অন্তত ৮০ শতাংশ ম্যাচ খেললে তবেই অবসর নেওয়া কোনও ক্রিকেটারকে অংশ নিতে দেওয়া হবে এলপিএলের মতো টুর্নামেন্টে।

বন্ধ করুন