বাংলা নিউজ > ময়দান > মাঝ আকাশে বিমান বিভ্রাট, ত্রাতা ভারত, রোমহর্ষক ঘটনার সাক্ষী থাকল শ্রীলঙ্কা টিম
মাঝ আকাশে বিমানের মধ্যে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিল শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটাররা।
মাঝ আকাশে বিমানের মধ্যে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিল শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটাররা।

মাঝ আকাশে বিমান বিভ্রাট, ত্রাতা ভারত, রোমহর্ষক ঘটনার সাক্ষী থাকল শ্রীলঙ্কা টিম

  • ইংল্যান্ড থেকে যে বিমানে শ্রীলঙ্কা টিম ফিরছিল, তার জ্বালানি ফুরিয়ে গিয়েছিল। তখন মাঝ আকাশে ছিল বিমান।

সময়টা একেবারেই ভাল যাচ্ছে না শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট টিমের। ইংল্যান্ডের কাছে বিশ্রি ভাবে হার থেকে শুরু করে করোনা আতঙ্ক তো রয়েছেই। সেই সঙ্গে বিমান বিভ্রাটের মধ্যেও পড়তে হয়েছিল শ্রীলঙ্কা টিমকে। ইংল্যান্ড থেকে যে বিমানে শ্রীলঙ্কা টিম ফিরছিল, তার জ্বালানি ফুরিয়ে গিয়েছিল। তখন মাঝ আকাশে ছিল বিমান। আর এই ঘটনায় মারাত্মক ভয় পেয়ে গিয়েছিলেন মিকি আর্থার ব্রিগেড। শেষ পর্যন্ত ভারতে জরুরি অবতরণ করিয়ে কোনও রকমে রক্ষে পাওয়া যায়। এমনই রোমহর্ষক ঘটনা প্রকাশ্যে এসেছে।

একেই ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচের সিরিজে হোয়াইট ওয়াশ হয়েছে শ্রীলঙ্কা টিম। একদিনের ক্রিকেটেও হোয়াইট ওয়াশ হতে হতে বৃষ্টির জন্য বেঁচে গিয়েছে তারা। ২-০ সিরিজ হেরেছে শ্রীলঙ্কা। তিন নম্বর ম্যাচটি বৃষ্টিতে ভেস্তে গিয়েছে।

তার উপর আবার ইংল্যান্ড শিবিরে করোনা হানা দিয়েছে। আর তাতে সমস্যায় পড়েছে শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটাররাও। কারণ ইংল্যান্ডের সঙ্গেই তো শ্রীলঙ্কা ম্যাচ খেলেছে। তাই শ্রীলঙ্কা বোর্ড ঠিক করেছিল, করোনার দু'টি টেস্টের রেজাল্টে নেগেটিভ না আসা পর্যন্ত ক্রিকেটারদের আইসোলেশনে থাকতে হবে। এর মাঝেই আবার মাঝ-আকাশে বিমানের জ্বালানি ফুরিয়ে ভয়ঙ্কর অবস্থার মধ্যে পড়েছিল শ্রীলঙ্কা টিম।

শ্রীলঙ্কার কোচ মিকি আর্থার বলেছেন, ‘আমাদের ভারতে নামতে হয়েছিল। কারণ জ্বালানি ফুরিয়ে গিয়েছিল।’ এর সঙ্গেই তিনি বলেন, ‘ভারতে নামার পর আমি ফোনটি চালু করেছিলাম। তখন ওয়েন বেন্টলের (ইংল্যান্ডের অপারেশন ম্য়ানেজার) থেকে কিছু মেসেজ আমি পাই। যে আমাদের পুরো পরিস্থিতি (ইংল্যান্ডের সাত জন করোনায় আক্রান্ত) সম্পর্কে জানায়। সেটা শুনে আমরা সত্যিই খুব নার্ভাস হয়ে পড়েছিলাম।’

বন্ধ করুন