বাংলা নিউজ > ময়দান > ধর্ষণের মামলায় ইয়াসির শাহের বিরুদ্ধে FIR, ক্ষুব্ধ পিসিবি প্রধান
পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান রামিজ রাজা (ছবি:পিটিআই)
পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান রামিজ রাজা (ছবি:পিটিআই)

ধর্ষণের মামলায় ইয়াসির শাহের বিরুদ্ধে FIR, ক্ষুব্ধ পিসিবি প্রধান

  • ক্ষুব্ধ পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) চেয়ারম্যান রামিজ রাজা। তিনি বুধবার স্বীকার করেছেন, লেগ-স্পিনার ইয়াসির শাহের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগের ফলে পাকিস্তান ক্রিকেটের ইমেজ নষ্ট হচ্ছে।

ক্ষুব্ধ পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) চেয়ারম্যান রামিজ রাজা। তিনি বুধবার স্বীকার করেছেন, লেগ-স্পিনার ইয়াসির শাহের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগের ফলে পাকিস্তান ক্রিকেটের ইমেজ নষ্ট হচ্ছে। তার মতে পাক ক্রিকেট যা নিজের অতীতের গৌরব ধীরে ধীরে ফিরে পাচ্ছে তাদের মাথা ক্ষতি করছে এই ঘটনা। দু'দিন আগে, এক দম্পতি ইসলামাবাদের শালিমার থানায় একটি এফআইআর দায়ের করেছিলেন। যেখানে পাক ক্রিকেটার ইয়াসির শাহের নাম রয়েছে। দম্পতি অভিযোগ করেছেন যে তাদের ১৪ বছর বয়সী ভাগ্নীকে ধর্ষণ করা হয়েছে। পাক ক্রিকেটার তাঁর বন্ধুকে এই কাজে সাহায্য করেছিলেন। 

বুধবার সংবাদ সম্মেলনে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান রামিজ রাজা বলেন, ‘ইয়াসির যে একজন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার তা সকলেই জানেন এবং আমরা এই খেলোয়াড়দের প্রশিক্ষণ ও শিক্ষিত করি। তাদের ভূমিকা খেলার দূত হিসাবে এটা তাদের জানা উচিত। তাদের বোঝা দরকার তারা কাদের সাথে রয়েছে। কখন কীভাবে আচরণ করতে হবে তাও তাদের বোঝা উচিৎ।’

এফআইআরে বলা হয়েছে যে স্বামী ও স্ত্রী যখন ইয়াসিরের কাছে সাহায্যের জন্য যান, তখন তিনি তাদের উপহাস করেন, পুরো ঘটনা নিয়ে মজা করেন, তাদের এবং তাদের ভাগ্নিকে হত্যার হুমকি দেন। তিনি তাদের আদালতে টেনে আনতে তার প্রভাব ব্যবহার করবেন বলেও জানান। ইয়াসির ও তার বন্ধুর সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি এবং পুলিশ এখনও এই মামলায় তাদের খুঁজছে।

পিসিবি চেয়ারম্যান বলেন, ‘এই বিষয়টির সত্যতা কী তা আমি জানি না, তবে আসল বিষয়টি হল এই ধরনের শিরোনাম পাকিস্তান ক্রিকেটের জন্য ভালো নয়। বিশেষ করে এমন সময়ে এটা হচ্ছে যখন পাকিস্তান ক্রিকেটে ভালো সময় ফিরে আসছে।’ রামিজ বলেন, ‘ইয়াসিরসহ সকল চুক্তিবদ্ধ খেলোয়াড়দের নিয়মিত বোঝানো হয় যে তারা হলেন খেলার দূত। তাদের দায়িত্ব এবং জনসমক্ষে কীভাবে আচরণ করতে হয় তা প্রতি নিয়ত স্মরণ করিয়ে দেওয়া হয়।’

বন্ধ করুন