বাড়ি > ময়দান > Suresh Raina Retires: 'ক্রিকেট নিয়ে বেঁচেছি, আমার রন্ধ্রে রন্ধ্রে ক্রিকেট', আবেগঘন বার্তা রায়নার
২০১৫ সালের বিশ্বকাপে সুরেশ রায়না (ছবি সৌজন্য টুইটার)
২০১৫ সালের বিশ্বকাপে সুরেশ রায়না (ছবি সৌজন্য টুইটার)

Suresh Raina Retires: 'ক্রিকেট নিয়ে বেঁচেছি, আমার রন্ধ্রে রন্ধ্রে ক্রিকেট', আবেগঘন বার্তা রায়নার

  • বিরাট কোহলিকেও ধন্যবাদ জানিয়েছেন সুরেশ রায়না।

নিজের 'পথপ্রদর্শক', 'বড় দাদা'-র অবসরগ্রহণের আবেগের মধ্যেই নিজেও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায় জানিয়েছিলেন। ফলে পুরোটাই অগোছালো ছিল। সেই ঘোষণার প্রায় ২৪ ঘণ্টা পর বিবৃতি জারি করে সুরেশ রায়না জানালেন, তাঁর রন্ধ্রে রন্ধ্রে ক্রিকেট আছে। 

দেশের ৭৪ তম স্বাধীনতা দিবসের সন্ধ্যায় অনেকটা তাৎক্ষণিক সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর রবিবার ক্রিকেটের প্রতি নিজের আবেগ প্রকাশ করেছেন রায়না। তিনি বলেন, ‘অনেক মিশ্র অনুভূতি নিয়ে আমি অবসরের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছি। ভারতীয় দলে সুযোগ পাওয়ার আগে বাচ্চা ছেলে হিসেবে আমার ছোটো শহরের প্রতিটি রাস্তা, গলি, মোড়ে আমি ক্রিকেট নিয়ে বেঁচেছি। আমি যা কিছু জানি, সেটা ক্রিকেট। যা কিছু করেছি, তা ক্রিকেট এবং এটা আমার শিরা দিয়ে প্রবাহিত হয়।’

ধোনির মতোই রায়না নিজের ক্রিকেট কেরিয়ারের কয়েকটি মুহূর্তের কোলাজে একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেছেন। ২ মিনিট ১৯ সেকেন্ডের সেই ভিডিয়োয় ভারতীয় দলে অভিষেক, শতরান, দুর্ধর্ষ ব্যাটিং পারফরম্যান্স, অসামান্য ক্যাচ, বিশ্বকাপ জয়, আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি নিয়ে উৎসব, অস্ত্রোপচারের বিভিন্ন কোলাজ তুলে ধরেছেন। আছে চেন্নাই সুপার কিংসে ধোনির সঙ্গে কয়েকটি মুহূর্তও। সঙ্গে ব্যাকগ্রাউন্ডে চলেছে - ‘কুছ তো বাতা জিন্দেগি।’

আবেনঘন বিবৃতিতে ঈশ্বর ও অসংখ্য অনুরাগীদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন সাদা বল ক্রিকেটে ভারতের অন্যতম দিকপাল খেলোয়াড়। যিনি যুবরাজ সিং এবং মহম্মদ কাইফের পর দেখিয়েছিলেন, ফিল্ডিংয়ে একজন সুরেশ রায়নাও আছেন। যিনি প্রতি ম্যাচে রান বাঁচাবেন। দুর্ধর্ষ রান আউট করবেন। অসামান্য ক্যাচ নেবেন। এখন যে ভারতীয় দলের ফিল্ডিংয়ে শিখরে পৌঁছেছে, তার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনকারীদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন রায়না। 

বিদায়ী বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘আমি শুধু চাইতাম, সেই আশীর্বাদের মর্যাদা দেওয়া এবং পরিবর্তে আমার খেলা, আমার দেশ ও যাঁরা আমার সঙ্গে ছিলেন, তাঁদের প্রতি সবকিছু উজাড় করে দেওয়া।’ তাঁর পাশে থাকার জন্য বাবা-মা, স্ত্রী প্রিয়াঙ্কা, মেয়ে গ্রেসিয়া এবং রিও, ভাইবোন, কোচ-সহ সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন রায়না।

ভারতীয় ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়দের ধন্যবাদ জানিয়ে রায়না বলেন, ‘রাহুল ভাই’ (রাহুল দ্রাবিড়), অনিল ভাই (অনিল কুম্বলে), সচিন পাজি (সচিন তেন্ডুলকর), চিকু (বিরাট কোহলি) এবং @mahi7781-এর মতো ভারতীয় ক্রিকেটের সেরা মস্তিষ্কদের অধিনায়কত্বে খেলতে পেরে নিজেরে ভাগ্যবান মনে করি। বিশেষত @mahi7781-এর সঙ্গে, যিনি আমায় বন্ধু ও মেন্টর হিসেবে পথ দেখিয়েছেন।'

বন্ধ করুন