বাংলা নিউজ > ময়দান > সূর্য ভাই-এর এই টিপসেই কি এমন ইনিংস! ম্যাচের পরে কী বলেছিলেন অক্ষর প্যাটেল?

সূর্য ভাই-এর এই টিপসেই কি এমন ইনিংস! ম্যাচের পরে কী বলেছিলেন অক্ষর প্যাটেল?

রাজকোটে অক্ষর প্যাটেল (ছবি-পিটিআই)

ভক্তদের উদ্দেশ্য করে অক্ষর প্যাটেল বলেন, ‘সিরিজ ১-১ হয়ে গিয়েছে, ফলে সিরিজের শেষ টি টোয়েন্টি ম্যাচটা বেশ গুরুত্বপূর্ণ। গুজরাতের রাজকোটে খেলা, আমি গুজরাতি আর গুজরাতে খেলা ফলে বিষয়টা বেশ হতে চলেছে। এটা সিরিজ ডিসাইডার, তাই বলব এস এবং ম্যাচের মজা নিন।’

৫ জানুয়ারি এমসিএ পুনে স্টেডিয়ামে ভারত বনাম শ্রীলঙ্কার মধ্যে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ। এই উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে, সফরকারী দল স্বাগতিক ভারতকে ১৬ রানে পরাজিত করে এবং টি-টোয়েন্টি সিরিজে ১-১ সমতায় নিয়ে আসে। এই ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করার সময়, শ্রীলঙ্কা ভারতের সামনে জয়ের জন্য ২০৭ রানের পাহাড় সমান রানের লক্ষ্য রেখেছিল। যখন ভারত ব্যাট করতে নামে, ৫৭ রানে পাঁচ উইকেট হারানোর পরে, মনে হয়েছিল টিম ইন্ডিয়া বড় রানে হারতে চলেছে। এই ম্যাচ তো জিততে পারবেই না বরং লজ্জার হারের সম্মুখীন হবে হার্দিকরা।

আরও পড়ুন… একটু সতর্ক হতে হবে- নো বল নিয়ে ছাত্রকে বকা দিলেন আর্শদীপের ছোটবেলার কোচ

তবে অলরাউন্ডার অক্ষর প্যাটেল এবং এক নম্বর টি-টোয়েন্টি ব্যাটসম্যান সূর্যকুমার যাদব ম্যাচটিকে জয়ের সরণীতে নিয়ে যান। ১৬তম ওভারে ৫১ রান করে সূর্যকুমার যাদব আউট হন। এর পরে, অক্ষর প্যাটেল শেষ পর্যন্ত ক্রিজে ছিলেন। জানিয়ে রাখি যে টিম ইন্ডিয়ার জয়ের জন্য শেষ ওভারে ২১ রান দরকার ছিল। কিন্তু শেষ ওভারের তৃতীয় বলে বড় শট মেরে আউট হন অক্ষর প্যাটেল। অক্ষর প্যাটেল এই ম্যাচে তার টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের সেরা পারফরমেন্স করেছিলেন। ইনিংস খেলতে গিয়ে ৩১ বলে ৩ চার ও ৬ ছক্কায় যোগ করেন ৬৫ রান। যদিও তিনি তার দলকে জেতাতে পারেননি এবং শ্রীলঙ্কা ম্যাচটি ১৬ রানে জিতে যায়।

আরও পড়ুন… BBL: ব্যাট কোথায়-বল কোথায়? তবু আউট! বিতর্কিত ক্যাচ, প্রশ্নের মুখে টিভি আম্পায়ার

ম্যাচ শেষ হওয়ার পরে অক্ষর প্যাটেলের একটি ভিডিয়ো বিসিসিআই-এর অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডেলে পোস্ট করা হয়েছে, যেখানে তিনি তাঁর প্রথম হাফ সেঞ্চুরি সম্পর্কে কথা বলছেন এবং ম্যাচের সেই সময়ে তিনি কী ভাবছিলেন সে বিষয়ে মুখ খুলেছিলেন। ভিডিয়ো অনুসারে, অক্ষর প্যাটেল বলেছেন, ‘আমার পদ্ধতি ছিল যে আমরা ইনটেন্টে দেখাব এবং সূর্য ভাই আমাকে একই কথা বলেছিলেন। এমনকি যদি এক ওভারে ১০-১২ রান আসে তবে যে কোনও কিছু ঘটতে পারে এবং শেষ পর্যন্ত যদি আমরা এক বা দুই ওভার পাই তবে যে কোনও কিছু ঘটতে পারে। এটাই ছিল একমাত্র পন্থা এবং এই উদ্দেশ্য নিয়ে খেলা চালাচ্ছিলাম এবং ইনিংস এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলাম। এর পরে আমি এক বা দুটি শট পেতে শুরু করেছিলাম তাই ১৪তম ওভারে যখন হাসারাঙ্গা বল করতে এসেছিল, আমি এখানে মারব নাকি সেখানে মারব তা ভাবছিলাম না। আমি শুধু বলের লাইনে গিয়ে খেলছিলাম।’

তিনি আরও বলেন, ‘এই দিনে আমি যেই ফিফটি করেছিলাম সেটা ভালোই ছিল হবে ম্যাচ হেরে যাওয়ার কারণে সেটা খুব একটা ভালো লাগেনি। এখন মনে হচ্ছে আমি ম্য়াচটা ফিনিশ করতে পারতাম। অবশ্যই জীবনের প্রথম পঞ্চাশ করেছি অবশ্যই ভালো লাগে। আমি খুব একটা বেশি পরিকল্পনা করে খেলিনি। আমি কাউ কে টার্গেট করে খেলিনি। আমাদের ইনটেন্ট এই রকমই ছিল। কারণ আমরা টিম মিটিং-এ এই বিষয়টা নিয়েই কথা বলি।’

ভক্তদের উদ্দেশ্য করে অক্ষর প্যাটেল বলেন, ‘সিরিজ ১-১ হয়ে গিয়েছে, ফলে সিরিজের শেষ টি টোয়েন্টি ম্যাচটা বেশ গুরুত্বপূর্ণ। গুজরাতের রাজকোটে খেলা, আমি গুজরাতি আর গুজরাতে খেলা ফলে বিষয়টা বেশ হতে চলেছে। এটা সিরিজ ডিসাইডার, তাই বলব এস এবং ম্যাচের মজা নিন।’

বন্ধ করুন