বাংলা নিউজ > ময়দান > বিরাট বাহিনীর অস্ট্রেলিয়া সফর নিয়ে কাটল জট, সিডনি-ক্যানবেরায় হবে ODI ও T20 সিরিজ
অ্যারন ফিঞ্চ ও বিরাট কোহলি (ফাইল ছবি)
অ্যারন ফিঞ্চ ও বিরাট কোহলি (ফাইল ছবি)

বিরাট বাহিনীর অস্ট্রেলিয়া সফর নিয়ে কাটল জট, সিডনি-ক্যানবেরায় হবে ODI ও T20 সিরিজ

  • কাটল জট। নিউ সাউথ ওয়েলস প্রশাসনের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার। কোয়ারেন্টাইনে থাকাকালীন মাঠে নেমে প্রশিক্ষণ করতে পারবে টিম ইন্ডিয়া। 

সিডনি ও ক্যানবেরা দিয়েই আগামী মাসে শুরু হবে ভারতীয় ক্রিকেট দলের দীর্ঘ অস্ট্রেলিয়া সফর। এই নিয়ে আজ একটি যৌথ চুক্তি স্বাক্ষর করল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (CA) এবং নিউ সাউথ ওয়েলস (NSW) প্রশাসন। ভারতীয় টিম এবং আইপিএল থেকে ফিরে আসা অজি ক্রিকেটাররা সিডনিতে কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন এবং তাঁদের নিকটবর্তী ট্রেনিং শিবিরে প্রশিক্ষণের অনুমতি দেওয়া হবে। এই চুক্তির জেরে ভারতের অস্ট্রেলিয়া সফর ঘিরে তৈরি হওয়া ধোঁয়াশা অনেকখানি কাটল। 

কোয়ারেন্টাইন প্রোটোকল ঘিরে বেশ কিছু সমস্যা দেখা দিয়েছিল, তবে বৃহস্পতিবার নিউ সাউথ ওয়েলস সরকারের অনুমোদন এসে যাওয়ার আর কোনও সমস্যা রইল না- যদিও এই চুক্তিতে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের স্বাক্ষরও প্রয়োজন। আগামী মাসের ২৭ তারিখ শুরু হচ্ছে বিরাট বাহিনীর অস্ট্রেলিয়া সফর। এদিন সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে প্রথম একদিবসীয় ম্যাচ খেলবে দুই দল। হাই ভোল্টেজ বর্ডার-গাভাস্কর ট্রফি শুরু আগে মোট তিনটি একদিনের ম্যাচ (ODI) ও তিনটি টি-টোয়েন্টি (T-20) ম্যাচ খেলবে ভারত-অস্ট্রেলিয়া। 

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সিরিজ খেলেই করোনা পরবর্তীতে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে ২২ গজে ফিরতে চলেছে ভারতীয় জাতীয় ক্রিকেট দল। ভারত-অস্ট্রেলিয়া দ্বিতীয় একদিনের ম্যাচ হবে সিডনিতে ২৯ নভেম্বর, তৃতীয় ম্যাচ খেলতে দুই দল পৌঁছাবে ক্যানবেরা। সেই ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ডিসেম্বরের ১ তারিখ। সেখানেই টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট শুরু হবে ৪ ডিসেম্বর, এরপর সিডনিতে ফিরে ৬ ও ৮ তারিখ বাকি দুটি ম্যাচ খেলবেন অ্যারন ফিঞ্চ-রোহিত শর্মারা। 

অন্যদিকে স্মিথবাহিনীর বিরুদ্ধে ১৭ ডিসেম্বর থেকে ভারতের পিঙ্ক বল টেস্ট সিরিজ শুরু হবে অ্যাডিলেড ওভালে। করোনার পরিস্থিতির জেরে এমসিজিতে বক্সিং ডে টেস্ট (২৬-৩০ ডিসেম্বর) সম্ভবপর না হলে এখানেই হবে সেই টেস্ট। তৃতীয় ও চতুর্থ টেস্ট যথাক্রমে অনুষ্ঠিত হবে সিডনি (৭-১১ জানুয়ারি) ও বিসব্রেনে (১৫-১৯ জানুয়ারি)।

এর আগে কুইন্সল্যান্ডের রাজ্য সরকারের সঙ্গে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া বারবার বৈঠকে বসলেও কোনওরকম সদার্থক ফল বেরিয়ে আসেনি ভারতীয় ক্রিকেটার ও আইপিএল ফেরত অজি ক্রিকেটারদের কোয়ারেন্টাইনের নিয়মাবলি নিয়ে। কোয়ারেন্টাইনে থাকাকালীন বিসব্রেন হোটেল থেকে বেরিয়ে অ্যালান বর্ডার ফিল্ডে পৌঁছে ট্রেনিং করার বিষয়ে বেঁকে বসেছিল কুইন্সল্যান্ডের হেলথ ডিপার্টমেন্ট। এরপর নিউ সাউথ ওয়েলস সরকারের সঙ্গে বৈঠকে বসে দ্রুত বিষয়টি নিয়ে সমঝোতায় পৌঁছায় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। 

করোনা আবহেই দুবাই থেকে সোজা অস্ট্রেলিয়া উড়ে যাবেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা। সিরিজে করোনার কথা মাথায় রেখে একাধিক ব্যবস্থা নেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে বোর্ডের তরফে। সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে শুধুমাত্র ক্রিকেটার এবং সাপোর্ট স্টাফদের নিয়ে যাওয়া হবে অস্ট্রেলিয়ায়। স্ত্রী, বান্ধবী বা পরিবারের কাউকে সঙ্গে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হবে না।

পুরো সিরিজ যেহেতু দীর্ঘ হতে চলেছে, সে কথা মাথায় রেখে ৩২ জন ক্রিকেটারের দল পাঠাতে পারে বিসিসিআই। সাপোর্ট স্টাফ মিলিয়ে ৫০ জন অস্ট্রেলিয়া যাবেন বলে বিসিসিআইয়ের সূত্রে খবর।

বন্ধ করুন