বাড়ি > ময়দান > ম্যাকেনরো থেকে সেরেনা, জকোভিচের আগে মন্দ আচরণের জন্য টুর্নামেন্ট থেকে বহিস্কৃত হওয়ার পাঁচটি নজির
লাইন জাজের সঙ্গে জকোভিচ। ছবি- গেটি ইমেজেস।
লাইন জাজের সঙ্গে জকোভিচ। ছবি- গেটি ইমেজেস।

ম্যাকেনরো থেকে সেরেনা, জকোভিচের আগে মন্দ আচরণের জন্য টুর্নামেন্ট থেকে বহিস্কৃত হওয়ার পাঁচটি নজির

  • মহিলা লাইন জাজকে অনিচ্ছাকৃত আঘাত করে যুক্তরাষ্ট ওপেন থেকে ছিটকে যেতে হয় বিশ্বের এক নম্বর তারকাকে।

ইচ্ছাকৃত না হলেও মহিলা লাইন জাজকে আঘাত করে শৃঙ্খলাজনীত কারণে চলতি যুক্তরাষ্ট্র ওপেন থেকে বহিস্কৃত হয়েছেন নোভাক জকোভিচ। কোর্ট ছেড়ে সাইড লাইনের দিকে যাওয়ার সময় জোকার একটি বলে পিছনের দিকে শট নেন সেটিকে কোর্টের বাইরে বার করে দেওয়ার জন্য। দুর্ভাগ্যবশত সেটি গিয়ে আঘাত করে লাইন জাজকে। চেয়ার আম্পায়ার-সহ বাকি ম্যাচ অফিসিয়ালরা মেনে নেন, বিশ্বের এক নম্বর তারকা এমন দুর্ঘটনা ইচ্ছাকৃতভাবে ঘটাননি। তবু কোর্টে মন্দ আচরণের জন্য শাস্তি দেওয়া হয় সার্বিয়ান তারকাকে।

যদিও টেনিস কোর্টে মন্দ আচরণের জন্য বহিস্কৃত হওয়া একমাত্র তারকা নন জকোভিচ। তাঁর আগে নিক কির্গিয়স, ডেনিস শাপোভালোভ, সেরেনা উইলিয়ামস এমনকি জন ম্যাকেনরোর মতো কিংবদন্তিও আচরণজনীত কারণে বহিস্কৃত হয়েছেন টুর্নামেন্ট থেকে। দেখে নেওয়া যাক জকোভিচের আগে এমনই পাঁচটি লজ্জার নজির।

নিক কির্গিয়স:- ২০১৯-এর অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচ চলাকালীন অজি তারকা কোর্টে চেয়ার ছুঁড়ে ফেলায় তাঁকে বহিস্কৃত করা হয় ইভেন্ট থেকে।

ডেনিস শাপোভালোভ:- কানাডিয়ান তরুণ ২০১৭-র ডেভিস কাপ চলাকালীন বিরক্তি প্রকাশ করতে গিয়ে চেয়ার আম্পায়ারের মুখে বল মেরে বসেন। ফলে তাঁকে বার করে দেওয়া হয় কোর্ট থেকে।

সেরেনা উইলিয়ামস:- ২০০৯ সালে যুক্তরাষ্ট্র ওপেনেই লাইন জাজকে গালাগাল করে বহিস্কৃত হন সেরেনা।

ডেভিড নালবান্দিয়ান:- ২০১২ সালে কুইন্স ক্লাব চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল চলাকালীন আর্জেন্তাইন তারকা একটি বজ্ঞাপনি বিলবোর্ডে লাথি মারলে লাইন জাজ আহত হন। ফলে ডেভিডকে বার করে দেওয়া হয় টুর্নামেন্ট থেকে।

জন ম্যাকেনরো:- ১৯৯০ সালে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে চতুর্থ রাউন্ডের ম্যাচ চলাকালীন তিনবার আচরণবিধি ভাঙার জন্য টুর্নামেন্ট থেকে বাদ পড়তে হয় মার্কিন তারকাকে।

এছাড়া অতীতে কোর্টে আচরণবিধি উপেক্ষা করে বহিস্কৃত হয়েছেন টিম হেনম্যান, জেরেমি বেটিস, জেফ তারাঙ্গো, কার্স্টেন অ্যারিয়েন্স, ইরিনা স্পার্লেয়া, অ্যানাস্তেসিয়া রদিওনোভা, স্টেফান কৌবেক প্রমুখ।

বন্ধ করুন