বাংলা নিউজ > ময়দান > সিডনিতে সেঞ্চুরি মিস করে হতাশ ছিলেন পন্ত, তবে বেশি কষ্ট পেয়েছেন অন্য কারণে
আগ্রাসী পন্ত। ছবি- টুইটার।
আগ্রাসী পন্ত। ছবি- টুইটার।

সিডনিতে সেঞ্চুরি মিস করে হতাশ ছিলেন পন্ত, তবে বেশি কষ্ট পেয়েছেন অন্য কারণে

  • সিডনি টেস্টের শেষ ইনিংসে ব্যাক্তিগত ৯৭ রানে আউট হন ঋষভ।

সিডনি টেস্টের শেষ ইনিংসে ব্যাক্তিগত ৯৭ রানে আউট হয়ে বসেন ঋষভ পন্ত। নিশ্চিত শতরান মাঠে ফেলে আসায় নিশ্চিতভাবেই হতাশ ছিলেন টিম ইন্ডিয়ার তরুণ উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান। তবে পন্ত নিজে জানালেন, সেঞ্চুরি হাতছাড়া করার থেকেও তাঁকে বেশি হতাশ করে দলের জিততে না পারা।

সিডনি টেস্টে জয়ের জন্য ভারতের সামনে ৪০৭ রানের লক্ষ্যমাত্রা ঝুলিয়ে দেয় অস্ট্রেলিয়া। ভারত শুরুটা মন্দ করেনি। তবে চতুর্থ দিনের শেষবেলায় আউট হয়ে বসেন দুই ওপেনার গিল ও রোহিত। শেষ দিনের শুরুতেই রাহানের উইকেট হারিয়ে বসে ভারত।

চেতেশ্বর পূজারার সঙ্গে জুটি বেঁধে ঋষভ পন্ত পালটা লড়াই চালান শেষ দিনে। পন্ত যতক্ষণ ব্যাট করছিলেন, ভারতের ম্যাচ জেতা অসম্ভব নয় বলে মনে হচ্ছিল। তবে ব্যক্তিগত শতরানের দোড়গোড়া থেকে ঋষভ ফিরে আসার পরেই ভারত নিজেদের পরিকল্পনা বদলাতে বাধ্য হয়।

বিহারী ও অশ্বিন চোট নিয়ে ব্যাট করছিলেন। রবীন্দ্র জাদেজা প্যাডআপ করে অপেক্ষা করলেও আঙুলের চোটে তাঁর মাঠে নামাই অনিশ্চিত ছিল। এই অবস্থায় টিম ইন্ডিয়ার ড্রয়ের জন্য খেলা ছাড়া উপায় ছিল না। ভারত দিনের বাকি সময়টায় ম্যাচ বাঁচাতে লড়াই চালায় এবং শেষমেশ ম্যাচ ড্র করতে সক্ষম হয়।

দেশে ফিরে দ্য উইক পত্রিকার সাক্ষাত্কারে পন্ত বলেন, ‘আমার ভীষণ খারাপ লাগছিল সেঞ্চুরি হাতছাড়া হয়েছে বলে নয়, বরং আমাদের ম্যাচ জেতা হয়নি বলে। ম্যাচ আমাদের হাতের মধ্যে ছিল। পূজি ভাই (চেতেশ্বর পূজারা) আর আমি ব্যাট করছিলাম। ম্যাচ জিততে পারলে দারুণ হতো। জয়ের সুযোগ হাতছাড়া হওয়াটা আমার কাছে সেঞ্চুরি মিস করার থেকেও বেশি হৃদয় বিদারক ছিল।’

বন্ধ করুন