বাংলা নিউজ > ময়দান > কোভিডকে হারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠলেন ভারতীয় মহিলা হকি দলের অধিনায়ক সহ ৮ সদস্য
ভারতীয় মহিলা হকি দলের অধিনায়ক রানি রামপাল (ছবি: টুইটার)

কোভিডকে হারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠলেন ভারতীয় মহিলা হকি দলের অধিনায়ক সহ ৮ সদস্য

  • কোভিড থেকে সুস্থ হয়ে উঠলেন ভারতীয় মহিলা হকি দলের অধিনায়ক রানি রামপাল। শুধু রানি নয়, সুস্থ হয়েছেন ভারতীয় মহিলা দলের আরও ছয় জন খেলোয়াড় সহ দলের ২ জন সদস্য।

কোভিড থেকে সুস্থ হয়ে উঠলেন ভারতীয় মহিলা হকি দলের অধিনায়ক রানি রামপাল। শুধু রানি নয়, সুস্থ হয়েছেন ভারতীয় মহিলা দলের আরও ছয় জন খেলোয়াড় সহ দলের ২ জন সদস্য। দীর্ঘ ২ সপ্তাহ নিভৃতবাসে থাকার পরে শেষ পর্যন্ত ফের কোভিড পরীক্ষা করা হয় তাঁদের। পরে তাদের রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। অবশেষে নিশ্চিন্ত হয়ে ভারতের হকি সংস্থা। সুস্থ হওয়ার পরে সকলের উদ্দেশ্যে সোশ্যাল মিডিয়াতে একটি বার্তাও দেন রানি।

   

 

অলিম্পিক্সের প্রস্তুতি শুরু করার আগেই ঘোর বিপদ পড়েছিল ভারতের মহিলা হকি দল। সমস্যার কারণ ছিল করোনা।  বেঙ্গালুরুর স্পোর্টস অথরিটি অফ ইন্ডিয়া (সাই) সেন্টারে বসেছে ভারতীয় মহিলা হকি দলের অলিম্পিক্সের প্রস্তুতি শিবির। সেখানেই শিবির চলাকালীন করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন ভারতীয় দলের অধিনায়ক রানি রামপাল-সহ বেশ কিছু মহিলা হকি খেলোয়াড়।

 এই নিয়ে সাই এবং হকি ইন্ডিয়ার মধ্যে শুরু হয়েছিল চাপান উতোর। করোনা অতিমারীর মধ্যে জৈব সুরক্ষা বলয়ে মাঝেই ভারতীয় মহিলা হকি দলকে বেঙ্গালুরুর স্পোর্টস অথরিটি অফ ইন্ডিয়া সেন্টারে রাখা হয়েছে। সাইয়ে যেভাবে বায়ো-বাবলের ব্যবস্থা করা হয়েছে, তাতে একেবারেই খুশি ছিলনা হকি ইন্ডিয়া। সাইয়ের দাবি ছিল ক্যাম্পাসের মধ্যে বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়কে বাইরে থেকে খাবার আনিয়ে খেতে দেখা গিয়েছে। যু্ক্তি পাল্টা যুক্তির মধ্যেই সুস্থ হয়ে ওঠেন রানি রামপালরা। 

সুস্থ হওয়ার পরে রানি রামপাল নিজের সোশ্যাল মিডিয়াতে লিখেছেন, ‘ম্যাসেজ এবং ফোন কলের মাধ্যমে যারা এই সময় আমাদের পাশে থেকেছেন ও মানসিক সাপোর্ট দিয়েছেন তাদের সকলকে অনেক ধন্যবাদ। আমি এবং আমাদের দলের সদস্যরা এখন সম্পূর্ণ সুস্থ। আমাদের পরিবার, হকির মানুষজন, বন্ধু, সমর্থক, ভক্ত সকলের আশীর্বাদে আজ আমরা সুস্থ। বিশেষ করে হকি ইন্ডিয়া ও সাইকে ধন্যবাদ জানাই যারা আমাদের এত ভাল খেয়াল রেখেছিলেন। আমার খারাপ লাগছে অনেকেই নিজেদের প্রিয়জনদের হারাচ্ছেন, তাদের জন্য আমি প্রার্থনা করি। বেশি করে নিজেরপ্রয় মানুষ ও পাশের মানুষের সাহায্য করুন। একসঙ্গে আমরা এই অতিমারীর সঙ্গে লড়াই করব। সাবধানে থাকবেন এবং মাস্ক পড়বেন এবং কোভিডের নিয়ম মেনে চলবেন।’

বন্ধ করুন