বাংলা নিউজ > ময়দান > ট্রফি আসেনি, তবুও ঈর্ষা করার মতো সাফল্য পেয়েছেন টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক কোহলি
বিরাট কোহলি।
বিরাট কোহলি।

ট্রফি আসেনি, তবুও ঈর্ষা করার মতো সাফল্য পেয়েছেন টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক কোহলি

  • অধিনায়ক হিসেবে আইপিএলের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি রান করেছেন বিরাট কোহলি। আর জাতীয় দলের জার্সিতে একমাত্র ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি, যাঁর নেতৃত্বে দক্ষিণ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে দ্বিপাক্ষিক টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতেছে ভারত। রয়েছে নজর কাড়া আরও নজির।

একটা জল্পনা চলছিল। সেই জল্পনাকেই সত্যি করে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর এই ফর্ম্যাটের অধিনায়ক পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেন বিরাট কোহলি। ভারতের অন্যতম সফল অধিনায়কের হঠাৎ করেই সরে দাঁড়ানোর খবরে তুমুল জল্পনা শুরু হয়েছে। তবে বিশ্বকাপের পর রোহিত শর্মার হাতেই সম্ভবত টি-টোয়েন্টি অধিনায়কের দায়িত্ব তুলে দেওয়া হতে পারে।

তবে টি-টোয়েন্টিতে জাতীয় দলের অধিনায়ক হিসেবে বিরাটের সাফল্য নেহাৎ কম নয়। যদিও এখনও পর্যন্ত তিনি ভারতকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন করতে পারেননি। তবে জাতীয় দলের জার্সিতে টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক হিসেবে বহু রেকর্ডই করে ফেলেছেন কোহলি। চৌম্বকে দেখে নিন জাতীয় দলের জার্সিতে টি-টোয়েন্টিতে অধিনায়ক হিসেবে বিরাটের রেকর্ডের খতিয়ান:

১) ভারতীয় অধিনায়ক হিসেবে কোহলি সর্বোচ্চ টি-টোয়েন্টি রান করে ফেলেছেন। তাঁর মোট সংগ্রহ ১৪২১ রান। আর গোটা বিশ্বের মধ্যে অধিনায়ক হিসেবে সর্বোচ্চ রানের তালিকায় বিরাট রয়েছেন চার নম্বরে।

২) বিরাট হলেন ভারতের দ্বিতীয় সফল টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। মহেন্দ্র সিং ধোনির টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক হিসেবে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ (৪১) জেতার রেকর্ড রয়েছে। ধোনি ৭২টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে অধিনায়কত্ব করেছেন। আর বিরাট ২৭টি ম্যাচে জিতেছেন। তিনি ৪৫টি ম্যাচে অধিনায়কত্ব করেছেন।

৩) অধিনায়ক হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে দ্রুততম ১০০০ রান করার রেকর্ড রয়েছে কোহলির। ৩০ ইনিংস খেলে তিনি হাজার রান পূরণ করেন।

৪) একমাত্র ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি, যাঁর নেতৃত্বে দক্ষিণ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে দ্বিপাক্ষিক টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতেছে ভারত। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ২০২০ সালে ৫-০ সিরিজ জিতেছিল ভারত। ওই বছরই অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ২-১ সিরিজ জিতেছিল। ২০১৮ সালে ইংল্যান্ড এবং দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ২-১ করে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতেছিল কোহলির ভারত। 

৫) গোটা বিশ্বের মধ্যে টি-টোয়েন্টিতে সাফল্য এনে দেওয়া অধিনায়ক হিসেবে কোহলি রয়েছেন চারে। ২৭টি ম্যাচে তিনি দেশকে জিতিয়েছেন। এই তালিকার শীর্ষে রয়েছেন আসগার আফগান (৪২)। তার পর রয়েছেন ধোনি (৪২) এবং ইয়ন মর্গ্যান (৩৭)।

আইপিএলে অধিনায়ক কোহলি এখনও পর্যন্ত তাঁর টিম রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুকে চ্যাম্পিয়ন করতে পারেননি। এমন কী জাতীয় দলের জার্সিতে কোহলির যা রেকর্ড রয়েছে, তার ধারেকাছেও যাবে না আইপিএলে তাঁর রেকর্ডের পরিসংখ্যান। তবু অধিনায়ক হিসেবে কিছু নজির তিনি গড়ে ফেলেছেন।

১) ১৩২টি আইপিএল ম্যাচে আরসিবি-কে নেতৃত্ব দিয়েছেন কোহলি। যেটা আইপিএলের ইতিহাসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। অধিনায়ক হিসেবে দলকে সবচেয়ে বেশি ম্যাচে নেতৃত্ব দেওয়ার পরিসংখ্যান অনুযায়ী কোহলির আগে শীর্ষে রয়েছেন একমাত্র মহেন্দ্র সিং ধোনি।

২) আইপিএলের ইতিহাসে অধিনায়ক হিসেবে বিরাট কোহলি সবচেয়ে বেশি রান করেছেন।

৩) ২০১১ আইপিএলে ২২ বছর বয়সে প্রথমে আরসিবি-কে নেতৃত্ব দিয়ে নতুন রেকর্ড করেছিলেন কোহলি। সবচেয়ে কম বয়সের অধিনায়ক হিসেবে আইপিএলের কোনও দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার নজির গড়েছিলেন তিনি। সেই সময়ে ড্যানিয়েল ভেত্তোরির অনুপস্থিতিতে তিন ম্যাচে অধিনায়কত্ব করেছিলেন কোহলি।

বন্ধ করুন