বাংলা নিউজ > ময়দান > BCCI-এর সিদ্ধান্ত মেনে নিতে না পেরেই, টেস্ট দলের নেতৃত্ব ছাড়েন কোহলি, দাবি মদন লালের

BCCI-এর সিদ্ধান্ত মেনে নিতে না পেরেই, টেস্ট দলের নেতৃত্ব ছাড়েন কোহলি, দাবি মদন লালের

বিরাট কোহলি।

মদন লাল দাবি করেছেন, ওডিআই-এর নেতৃত্ব থেকে তাঁকে সরানোর বিষয়টি মানতে পারেননি কোহলি। সেটা তাঁর মনে যথেষ্ট প্রভাব ফেলেছিল। আর এই ঘটনাটাই কোহলিকে টেস্ট দলের নেতৃত্ব ছাড়তে বড় ভূমিকা নিয়েছে।

বিরাট কোহলির টেস্ট দলের নেতৃত্ব ছাড়ার খবরে খুবই হতবাক ভারতের প্রাক্তন অলরাউন্ডার এবং বিশ্বকাপজয়ী তারকা ক্রিকেটার মদন লাল। আর কোহলির এই সিদ্ধান্তের জন্য বিসিসিআই-কেই কাঠগড়ায় তুলেছেন মদল লাল। তিনি মনে করেন, বিসিসিআই যে ভাবে ওডিআই-এর নেতৃত্ব থেকে কোহলিকে সরিয়ে দিয়েছে, তাতে তাঁর হতাশ এবং বিরক্ত হওয়াটাই স্বাভাবিক। সেই কারণেই টেস্ট দলের নেতৃত্বও কোহলি ছেড়ে দিয়েছেন বলে দাবি মদন লালের।

১৬ সেপ্টেম্বর স্বেচ্ছায় টি-টোয়েন্টির নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর কথা ঘোষণা করেছিলেন বিরাট কোহলি। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর যে তিনি এই ফর্ম্যাটে দলকে নেতৃত্ব দেবেন না জানিয়ে দিয়েছিলেন কোহলি। ৮ নভেম্বর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শেষ ম্যাচ নামিবিয়ার বিরুদ্ধে খেলে ভারত। আর সেই ম্যাচেই শেষ বার টি-টোয়েন্টি ফর্ম্যাটে নেতৃত্ব দেন বিরাট কোহলি। এই ঘটনার ঠিক এক মাস বাদে ৮ ডিসেম্বর বিসিসিআই রোহিত শর্মাকে নতুন সাদা বলের অধিনায়ক করে দেয়। অর্থাৎ কোহলিকে ওডিআই-এর নেতৃত্ব থেকে তাঁর ইচ্ছের বিরুদ্ধেই সরিয়ে রোহিতকে দায়িত্ব দেওয়া হয়। 

বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় সে সময়ে বলেছিলেন, বোর্ড বিরাট কোহলিকে টি-২০ ক্যাপ্টেন্সি ছাড়তে বারণ করেছিল। তিনি নিজে এই বিষয়ে কথা বলেছিলেন বিরাটের সঙ্গে। এবং সাদা বলের ক্রিকেটে বোর্ড দু'জন অধিনায়ক চাইছে না। এ দিকে দক্ষিণ আফ্রিকায় উড়ে যাওয়ার আগে সাংবাদিক সম্মেলনে বিরাট কোহলি জানান, তাঁকে কেউ ক্যাপ্টেন্সি ছাড়তে বারণ করেননি। এবং দক্ষিণ আফ্রিকা টেস্ট সিরিজের জন্য দল নির্বাচনের ৯০ মিনিট আগে তাঁকে ওডিআই-এর নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়। সুতরাং কে সত্যি বলেছেন, আর কে মিথ্যে, তা নিয়ে এখনও জল্পনা চলছে। তা নিয়ে জলঘোলাও অব্যাহত রয়েছে। এই ঘটনায় কোহলি এবং সৌরভ দু'জনেই চরম অস্বস্তিতেও রয়েছে।

কোহলির সিদ্ধান্ত নিয়ে ইন্ডিয়া টুডে-এর সাথে কথা বলার সময়ে মদন লাল দাবি করেছেন, ওডিআই-এর নেতৃত্ব থেকে তাঁকে সরানোর বিষয়টি মানতে পারেননি কোহলি। সেটা তাঁর মনে যথেষ্ট প্রভাব ফেলেছিল। আর এই ঘটনাটাই কোহলিকে টেস্ট দলের নেতৃত্ব ছাড়তে বড় ভূমিকা নিয়েছে।

মদন লাল বলেছেন, ‘বিরাট কোহলির টেস্ট দলের অধিনায়কত্ব ছাড়ার ঘটনা, আমাকে বিস্মিত করেছে। আমি মনে করি, ওকে ৫০ ওভারের নেতৃত্ব থেকে সরানোর যে সিদ্ধান্ত বোর্ড নিয়েছিল, সেটা নিয়ে এখনও খুবই বিরক্ত কোহলি। আমার মনে হয়, ও এখনও ভাবে, কেন বোর্ড ৫০ ওভারের ফরম্যাট থেকে ওকে সরিয়ে দিল? আর এই কারণে টেস্ট দলে নেতৃত্বও ছেড়ে দিয়েছে কোহলি।’

বন্ধ করুন