বাংলা নিউজ > ময়দান > এ বারও ইতিহাস লেখা হল না কোহলিদের, দক্ষিণ আফ্রিকায় ফের সিরিজ হারের ৫ কারণ জেনে নিন
দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ১-২ সিরিজ হারতে হল ভারতকে। ছবি: রয়টার্স

এ বারও ইতিহাস লেখা হল না কোহলিদের, দক্ষিণ আফ্রিকায় ফের সিরিজ হারের ৫ কারণ জেনে নিন

  • কেপ টাউনেও ৭ উইকেটে হারল ভারত। সেই সঙ্গে ১-২ সিরিজও হেরে বসে থাকল বিরাট কোহলি ব্রিগেড।

সেঞ্চুরিয়নে প্রথম টেস্টে ভারত দাপটের সঙ্গে জয় দিয়ে শুরু করেছিল। কিন্তু দ্বিতীয় টেস্ট থেকে তারা মুখ থুবড়ে পড়ে। জোহানেসবার্গ টেস্টে বিরাট কোহলি খেলেননি। এবং সেই টেস্ট ভারত বাজে ভাবে হারে। কিন্তু কেপ টাউন টেস্টে চোট সারিয়ে দলে ফেরেন কোহলি। রানও পান ভারত অধিনায়ক। অনেকেই আশা করেছিল, এই টেস্ট জিতে ভারত দক্ষিণ আফ্রিকায় নতুন ইতিহাস লিখবে। কারণ এখনও পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকায় ভারত কোনও টেস্ট সিরিজ জেতেনি। নতুন কোচ রাহুল দ্রাবিড়ের শাসনে এবং বিরাট কোহলির নেতৃত্বে ভারত এ বার নতুন নজির গড়তে চেয়েছিল। কিন্তু এবারও সেটা সম্ভব হল না। কেন হল না? চৌম্বকে অনেকগুলো কারণ উঠে আসছে। তার মধ্যে আসল পাঁচটি কারণ কি, জেনে নেওয়া যাক:

১) ভারতের ব্যাটিং অর্ডারের ব্যর্থতা। দ্বিতীয় টেস্টেও হারের পর ৫০-৬০ রান কম করায় ভারতীয় ব্যাটিং অর্ডারকে কাঠগড়ায় উঠতে হয়েছিল। তৃতীয় টেস্টেও একই ধারা অব্যাহত। প্রথম ইনিংসে ভারত ২২৩ রানে অল আউট হয়ে যায়। আর দ্বিতীয় ইনিংসে তারা করে মাত্র ১৯৮ রান। যার মধ্যে ভারতের দ্বিতীয় ইনিংসে ঋষভ পন্ত একাই ১০০ রান করেন। বাকিরা সবাই মিলে মাত্র ৯৮ রান করেছেন।

২) প্রশ্ন উঠেছে চেতেশ্বর পূজারা এবং অজিঙ্কা রাহানের পারফরম্যান্স নিয়েও। যদিও পূজারা প্রথম ইনিংসে ৪৩ রান করেছেন। তবে রাহানে করেন ৯ রান। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে পূজারার সংগ্রহ ৯ এবং রাহানে করেন মাত্র ১ রান। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে চলতি টেস্ট সিরিজে দুই অভিজ্ঞ খেলোয়াড়ই পারফরম্যান্সে মোটেও ভালো নয়। অজিঙ্কা রাহানে ৬ ইনিংসে ১৩৬ রান করেছেন এবং চেতেশ্বর পূজারা এই সফরে ৬ ইনিংসে মাত্র ১২৪ রান করেছেন। এই সিরিজে উভয় ব্যাটসম্যানই একটি করে হাফ সেঞ্চুরি করেছেন। কিন্তু তাদের এই পরিসংখ্যান একেবারেই ভালো নয়। এই দুই ব্যাটসম্যানকে আর কত সুযোগ দেওয়া হবে? উঠে গিয়েছে প্রশ্ন। অনেকেই মনে করেছেন রাহানে-পূজারাকে না খেলিয়ে অন্য কাউকে খেলানো হলে, হয়তো অন্য রকম ফল হতে পারত। 

৩) প্রশ্ন উঠেছে বোলারদের পারফরম্যান্স নিয়েও। প্রথম ইনিংসে পাস করে গেলেও, দ্বিতীয় ইনিংসে বারবার চাপের মুখে নাস্তানাবুদ হচ্ছেন ভারতীয় বোলাররা। জোহানেসবার্গেও একই ঘটনা ঘটেছিল। চাপের মুখে দক্ষিণ আফ্রিকাকে অল আউট করতে ব্যর্থ হয়েছিল ভারতীয় বোলাররা। কেপ টাউন টেস্টেও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটল। প্রথম ইনিংসে যেমন জসপ্রীত বুমরাহ (৫), মহম্মদ শামি (২), উমেশ যাদবরা (২) দুরন্ত ছন্দে ২১০ রানে অল আউট করে দিয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকা। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে সেই কাজটাই করে উঠতে পারলেন না ভারতীয় বোলাররা। ৭ উইকেটে ম্যাচটি জিতে যায় প্রোটিয়ারা।

৪) ম্যানেজমেন্টের টিম নির্বাচন নিয়েও উঠেছে প্রশ্ন। দল নির্বাচন নিয়ে অনেক ভুলত্রুটি রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। বিশেষ করে ব্যাটিং লাইন আপে। হনুমা বিহারী বা শ্রেয়স আইয়ারদের কেন সুযোগ দেওয়া হল না, বিশেষ করে তৃতীয় টেস্টে, তা নিয়ে তীব্র সমালোচনা চলছে। ময়াঙ্ক আগরওয়ালের পারফরম্যান্স নিয়েও উঠেছে প্রশ্ন।

৫) লোয়ার অর্ডারের ব্যর্থতা একটি বড় কারণ। ভারতীয় ব্যাটিং অর্ডারের ৭-১১ নম্বরের এই সিরিজে গড় রান প্রায় ৯.৬। ১৯৭৯'র পরে যা সবর্নিম্ন। চলতি কেপ টাউন টেস্টে ভারতীয় ব্যাটিংয়ের লোয়ার অর্ডারে ৭-১১ নম্বর পজিশনে খেলেছেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন, শার্দুল ঠাকুর, উমেশ যাদব,মহম্মদ শামি এবং জসপ্রীত বুমরাহ।

বন্ধ করুন