বাংলা নিউজ > ময়দান > যে তিনটি কারণে শুভমন গিলের পরিবর্তে পৃথ্বী শ'কে ইংল্যান্ডে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া উচিত নয়
অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জয়ী ভারতীয় দলের দুই সতীর্থ পৃথ্বী ও গিল। ছবি- টুইটার।
অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জয়ী ভারতীয় দলের দুই সতীর্থ পৃথ্বী ও গিল। ছবি- টুইটার।

যে তিনটি কারণে শুভমন গিলের পরিবর্তে পৃথ্বী শ'কে ইংল্যান্ডে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া উচিত নয়

  • চোটের জন্য ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে খেলা হবে না শুভমন গিলের।

চোটের জন্য ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে খেলা হবে না টিম ইন্ডিয়ার তরুণ ওপেনার শুভমন গিলের। ভারতীয় স্কোয়াডে ওপেনারের বিকল্প নেহাত কম নেই। মায়াঙ্ক আগরওয়াল, লোকেশ রাহুল স্কোয়াডে রয়েছেন। হনুমা বিহারী ওপেন করতে পারেন। স্ট্যান্ড-বাই হিসেবে দলের সঙ্গে ইংল্যান্ডে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে অভিমন্যু ঈশ্বরণকে।

তা সত্ত্বেও শোনা যাচ্ছে যে টিম ম্যানেজমেন্টের নজরে রয়েছেন পৃথ্বী শ। আপাতত রাহুল দ্রাবিড়ের প্রশিক্ষণাধীন সীমিত ওভারের স্কোয়াডের সঙ্গে শ্রীলঙ্কা সফরে উড়ে গিয়েছেন পৃথ্বী। তাঁকে ইংল্যান্ড সিরিজের জন্য তুলে নিয়ে যাওয়া হতে পারে বলে খবর।

যদিও পৃথ্বীকে তড়িঘড়ি ইংল্যান্ডে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া উচিত নয় বলে দাবি বিশেষজ্ঞদের একাংশের। দেখে নেওয়া যাক কোন তিনটি কারণে পৃথ্বীর ধাওয়ানের সংসার ছেড়ে কোহলির আস্তানায় ওঠা উচিত নয়।

প্রথমত, পৃথ্বী শ সীমিত ওভারের ক্রিকেটে দুরন্ত ছন্দে রয়েছেন। ঘরোয়া বিজয় হাজারে ট্রফি ও আইপিএলে দুরন্ত ফর্মে ছিলেন পৃথ্বী। তবে তার আগে অস্ট্রেলিয়া সফরের প্রথম টেস্টে ব্যাট হাতে চূড়ান্ত ব্যর্থ হন তিনি। ফলে তাঁর আত্মবিশ্বাসে চিড় ধরে। আপাতত সিমিত ওভারের ক্রিকেটে আন্তর্জাতিক মঞ্চে আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নিতে পারলে তার পরেই পৃথ্বীকে টেস্ট ক্রিকেটে মাঠে নামানো উচিত। ইংল্যান্ডের মতো কঠিন সফরে ব্যাট হাতে শুরুতেই ব্যর্থ হলে চাপ বাড়বে তরুণ ওপেনারের উপর।

দ্বিতীয়ত, মায়াঙ্ক আগরওয়াল ও লোকেশ রাহুলের মতো দুই ওপেনার প্রথম একাদশে সুযোগের অপেক্ষায় রয়েছেন। তাঁদের গুরুত্ব না দিয়ে পৃথ্বীকে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হলে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে দুই তারকার উপরে। টিম ম্যানেজমেন্টের আস্থা নেই ভেবে হতদ্যম হতে পারেন মায়াঙ্করা। তাছাড়া অভিমন্যু ঈশ্বরণকে স্ট্যান্ড-বাই হিসেবে ইংল্যান্ডে নিয়ে যাওয়ার যৌক্তিকতা নিয়েও প্রশ্ন উঠবে তখন।

তৃতীয়ত, শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য দীর্ঘদিন কোয়ারান্টাইনে ছিলেন পৃথ্বী। ইংল্যান্ডে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হলে পুনরায় কঠোর কোয়ারান্টাইনে থাকতে হবে তাঁকে। পরপর দু'বার কোয়ারান্টাইনে থাকতে হলে পৃথ্বীর মানসিক স্বাস্থ্যের উপর প্রভাব পড়তে পারে।

বন্ধ করুন