বাংলা নিউজ > ময়দান > TNPL 2022 Final: বৃষ্টিতে ভেস্তে যাওয়া TNPL ফাইনালে আগুনে বোলিং KKR প্রাক্তনীর, উজ্বল IPL-র ২ সাই
লাইকা কোভাই কিংস এবং চিপক সুপার গিলিসকে যুগ্মভাবে TNPL-র বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। (ছবি সৌজন্যে @StarSportsIndia)

TNPL 2022 Final: বৃষ্টিতে ভেস্তে যাওয়া TNPL ফাইনালে আগুনে বোলিং KKR প্রাক্তনীর, উজ্বল IPL-র ২ সাই

  • লাইকা কোভাই কিংস এবং চিপক সুপার গিলিসকে যুগ্মভাবে তামিলনাড়ু প্রিমিয়ার লিগের (TNPL 2022) বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। ফাইনালের সেরা নির্বাচিত হন কলকাতা নাইট রাইডার্সের প্রাক্তন বোলার। 

বৃষ্টির জন্য ভেস্তে গেল তামিলনাড়ু প্রিমিয়ার লিগের ফাইনাল (TNPL 2022)।ওভার কমিয়ে খেলার চেষ্টা করা হলেও কোনও লাভ হয়নি। দ্বিতীয় ইনিংসের চতুর্থ ওভারের পর আর খেলা চালিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়নি। সেই পরিস্থিতিতে লাইকা কোভাই কিংস এবং চিপক সুপার গিলিসকে যুগ্মভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।

রবিবার বৃষ্টির জন্য দেরিতে শুরু হয় ফাইনাল। বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে টসে জিতে প্রথমে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় চিপক। তবে বৃষ্টির জেরে ম্যাচ কমে দাঁড়ায় ১৭ ওভারে। সেই পরিস্থিতিতে দ্বিতীয় ওভারেই ধাক্কা খায় কোভাই। ওপেনার সুরেশ কুমারকে আউট করেন চিপক তথা কলকাতা নাইট রাইডার্সের (কেকেআর) প্রাক্তনী সন্দীপ ওয়ারিয়র। 

সেই ধাক্কা সামলে কোভাইকে এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন সাই সুদর্শন এবং গঙ্গা শ্রীধর রাজু। দ্রুতগতিতে রান তুলতে থাকেন। ষষ্ঠ ওভারের শেষ বলে সেই জুটি ভাঙেন সোনু যাদব। সেইসময় চিপকের স্কোর দাঁড়ায় দুই উইকেটে ৫১ রান। তারপর মূলত রানের দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নেন সাই। দশম ওভারে তিন বলে চিপকের দু'উইকেট পড়লেও তিনি অবিচল থাকেন।

আরও পড়ুন: TNPL 2022: ৪,৬,৪, নিজের স্টাইলেই ম্যাচ ফিনিশ করলেন শাহরুখ, ঝোড়ো হাফ-সেঞ্চুরি করে ফাইনালে তুললেন দলকে

কিন্তু ১৪.৫ ওভারে শাহরুখ খান (১৭ বলে ২২ রান) আউট হওয়ার পরেই খেলা ঘুরে যায়। পরপর উইকেট হারাতে থাকে কোভাই। একটা সময় যেখানে ১৪.৪ ওভারে চার উইকেট ১২৭ রান ছিল, সেখান থেকে ন'উইকেটে শেষ ১৩৮ রানের বেশি তুলতে পারেননি শাহরুখরা। ১২ বলে মাত্র চার রান তোলে কোভাই। হারায় পাঁচটি উইকেট। যে চিপক বোলারের ধাক্কায় পরপর উইকেট হারায় কোভাই, সেই সন্দীপ চার ওভারে ২৯ রান দিয়ে চারটি উইকেট নেন। সমসংখ্যক ওভারে ২৬ রান দিয়ে তিনটি উইকেট তোলেন আইপিএলের চ্যাম্পিয়ন দলের সাই কিশোর। দুটি উইকেট পান সোনু।

ট্রফি জয়ের জন্য ব্যাট করতে নেমে দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলেই আউট হয়ে যান কৌশিক গান্ধী। সেই ওভার থেকেই ফের বৃষ্টি শুরু হয়। যা তৃতীয় ওভারে আরও বাড়ে। শেষপর্যন্ত চতুর্থ ওভারের পর খেলা স্থগিত করতে হয়। সেইসময় চিপকের স্কোর দাঁড়ায় চার ওভারে ১৪ রান। পড়ে গিয়েছিল দুটি উইকেট। ম্যাচের ফলাফলের জন্য কমপক্ষে একটি ওভারের প্রয়োজন ছিল। কিন্তু সেই সুযোগ আসেনি কোভাইয়ের সামনে (জয়ের জন্য পাঁচ ওভারে ৪০ রান দরকার ছিল চিপকের, দুটি উইকেট)। তার ফলে যুগ্মভাবে কোভাই এবং চিপককে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।

আরও পড়ুন: ভিডিয়ো: ম্যাচ চলাকালীন মাঠে দর্শকের সঙ্গে ধস্তাধস্তি, ঝামেলায় জড়ালেন মুরলি বিজয়

ফাইনালের সেরা: সন্দীপ ওয়ারিয়র।

টুর্নামেন্টের সেরা: সঞ্জয় যাদব।

বন্ধ করুন