বাংলা নিউজ > ময়দান > টোকিয়ো অলিম্পিক্সে সম্ভবত দর্শক প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে না
সেইকো হাসিমোতো।
সেইকো হাসিমোতো।

টোকিয়ো অলিম্পিক্সে সম্ভবত দর্শক প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে না

  • জাপানের বেশির ভাগ লোকই এখন চাইছে হয় অলিম্পিক্স পিছিয়ে যাক, অথবা পুরোপুরি বাতিল হয়ে যাক। আসলে জাপানে এই মুহূর্তে মারাত্মক হারে করোনা সংক্রমণের বৃদ্ধির কারণে টোকিয়ো সহ অন্যান্য জায়গায় জরুরি অবস্থা জারি হয়েছে। যে কারণে আশঙ্কায় রয়েছেন জাপানিরা।

ঐতিহাসিক ঘটনা ঘটতে চলেছে এ বছরের টোকিয়ো অলিম্পিক্সে। যা পরিস্থিতি তাতে সম্ভবত দর্শক ছাড়াই অলিম্পিক্সের আয়োজন করতে হবে। টোকিয়ো অলিম্পিক্সের প্রেসিডেন্ট সেইকো হাসিমোতো শুক্রবার বলে দিয়েছেন, এ বছর সম্ভবত ‘ক্লোজ ডোর’ অলিম্পিক্স আয়োজন করা হবে।

নতুন করে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির কারণে নানা জটিলতা তৈরি হয়েছে। যার জেরে অলিম্পিক্স আয়োজন নিয়েই বেশ সমস্যায় পড়ে গিয়েছে জাপান। করোনার জন্য আগে থেকেই বিদেশি দর্শক প্রবেশের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছিল। এ বার দেশের দর্শকরা আদৌ অলিম্পিক্স দেখার ছাড়পত্র পাবে কিনা, তা নিয়ে তীব্র সংশয় তৈরি হয়েছে। যদিও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, এই বিষয়ে জুনের আগে কোন সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে না। 

তবে হাসিমোতো বলছিলেন, ‘হয়তো এ রকম পরিস্থিতিও হতে পারে, আমরা কোনও দর্শক প্রবেশের অনুমতিই দেব না।’ হাসিমোতোর আরও দাবি, ‘যখন আমরা সমস্ত অ্যাথলিট এবং জাপানের প্রতিটা মানুষকে সুরক্ষিত রেখে এই গেমস করতে পারব, তখনই এটা সাফল্য পাবে।’ 

জাপানের বেশির ভাগ লোকই এখন চাইছে হয় অলিম্পিক্স পিছিয়ে যাক, অথবা পুরোপুরি বাতিল হয়ে যাক। আসলে জাপানে এই মুহূর্তে মারাত্মক হারে করোনা সংক্রমণের বৃদ্ধির কারণে টোকিয়ো সহ অন্যান্য জায়গায় জরুরি অবস্থা জারি হয়েছে। যে কারণে আশঙ্কায় রয়েছেন জাপানিরা।

করোনার জন্য এমনিতেই স্বাস্থ্য পরিষেবা মারাত্মক চাপের মধ্যে রয়েছে। এর মধ্যে আবার অলিম্পিক্সের আয়োজকরা ভলেন্টিয়র স্বাস্থ্য কর্মীর জন্য আবেদন জানিয়ে প্রবল সমালোচনার মুখে পড়েছে। সব মিলিয়ে করোনা পরিস্থিতি টোকিয়ো অলিম্পিক্স করা নিয়ে তীব্র ডামাডোল চলছে।

বন্ধ করুন