বাংলা নিউজ > ময়দান > Tokyo Paralympic: নিজের রেকর্ড ভেঙে ফের বিশ্ব রেকর্ড গড়লেন দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়া
বিশ্ব রেকর্ড গড়লেন দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়া (ছবি:টুইটার)
বিশ্ব রেকর্ড গড়লেন দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়া (ছবি:টুইটার)

Tokyo Paralympic: নিজের রেকর্ড ভেঙে ফের বিশ্ব রেকর্ড গড়লেন দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়া

  • দু’বারের সোনা জয়ী অ্যাথলিট ৪০ বছরের দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়া ভাঙলেন নিজের রেকর্ড

প্যারালিম্পিক্সের দু’বারের সোনা জয়ী অ্যাথলিট দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়া ভাঙলেন নিজের রেকর্ড। আরও একবার সোনা জয়ের লক্ষ্যে এগিয়ে গেলেন ভারতের অন্যতেম সেরা অ্যাথলিট। শারীরিক অক্ষমতাকে দূরে সরিয়ে, সকল বাঁধাকে জয় করে, অলিম্পিক্সের আগে নিজের প্রস্তুতি চালিয়ে যাচ্ছেন দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়া। জ্যাভলিন থ্রোয়ে ফের বিশ্ব রেকর্ড করলেন ভারতের এই জ্যাভলিন থ্রোয়ার। শারীরিক অক্ষমতাকে জয় করে নিজেকে আরও একবার প্রমাণ করলেন যে তিনিই সেরা। নিজের রেকর্ড আরও একবার নিজেই ভাঙলেন। ৬৫.৭১ মিটার জ্যাভলিন থ্রো করে নতুন রেকর্ড গড়লেন দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়া। এর আগে প্যারালিম্পিক্সে দুটো সোনা জিতেছেন তিনি। ২০০৪ এবং ২০১৬ সালের পরে আরও একবার সোনা জয়ের উদ্দেশ্যে নিজের লক্ষ্যে এগিয়ে চলেছেন দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়া।

শারীরিক অক্ষমতাকে হেলায় উড়িয়ে ও বয়সকে শুধু মাত্র একটা সংখ্যা প্রমাণ করলেন দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়া। আরও একবার বিশ্বরকের্ড গড়লেন দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়া। এর আগে ২০০৪ সালে আথেন্স প্যারালিম্পিক্স ও ২০১৬ সালে রিও প্যারালিম্পিক্সের জাভলিন থ্রোয়ে ইতিহাস গড়েছিলেন দেবেন্দ্র। ২০১৬ সালেও নিজের রেকর্ড নিজেই ভেঙেছিলেন প্যারালিম্পিক্সের জোড়া স্বর্ণপদক বিজয়ী। এবার প্যারালিম্পিক্সের আগে আরও একবার নিজের রেকর্ড নিজেই ভেঙে ইতিহাসের পাতায় নাম তুললেন দেবেন্দ্র।

২০০৪ সালে প্যারালিম্পিক্সে এফ৪৬ ইভেন্টে ৬২.১৫ মিটার জ্যাভেলিন ছুড়ে সোনা জিতেছিলেন দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়া। ২০১৬ রিও প্যারালিম্পিক্সের আগে পর্যন্ত সেটাই ছিল এই ইভেন্টের বিশ্বরেকর্ড। কিন্তু রিওতে জ্যাভেলিন থ্রো-এ নিজের ১২ বছরের পুরনো বিশ্ব রেকর্ড ভেঙে প্রথম ভারতীয় হিসাবে প্যারালিম্পিক্সে দু’টি সোনা জেতেন দেবেন্দ্র। রিওতে তিনি ৬৩.৯৭ মিটার জ্যাভলিন ছুড়ে নতুন রেকর্ড তৈরি করেছিলেন। এবার প্যারালিম্পিক্সের আগে নেহেরু স্টেডিয়ামে ট্রায়াল চলছিল। সেখানে ৬৫.৭ মিটার জ্যাভলিন থ্রো করে নতুন রেকর্ড গডলেন দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়া। এই সাফল্যের পরে নিজের টুইটারে দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়া জানান, ‘আমার পরিবারের সমর্থন, এবং আমার কোচ সুনীল তানওয়ার এবং ফিটনেস প্রশিক্ষক বাত্রার প্রচেষ্টার কারণে এটি সম্ভব হয়েছে।’

বন্ধ করুন