টটেনহ্যামের তারকা ফুটবলার সন হিউং-মিন। ছবি- রয়টার্স।
টটেনহ্যামের তারকা ফুটবলার সন হিউং-মিন। ছবি- রয়টার্স।

করোনার জেরে প্রিমিয়র লিগ বন্ধ, মহামারীর মাঝেই সেনাবাহিনীর ট্রেনিংয়ে টটেনহ্যাম তারকা

  • দক্ষিণ কোরিয়ার সরকারি নিয়ম অনুযায়ী দেশের সকল সুস্থ শরীরের পুরুষকে ১৮ থেকে ৩৫ বছর বয়সের মধ্যে ২১ মাস বাধ্যতামূলকভাবে সেনাবাহিনীতে কাজ করতে হয়।

নিয়ম মতো সেনার পোশাকে ২১ মাস বাধ্যতামূলক দেশসেবা করার কথা। তবে ২০১৮ এশিয়ান গেমসে দেশেকে সোনা এনে দেওয়ায় নিয়মের ফাঁক গলে এড়িয়ে গিয়েছিলেন আর্মি ডিউটি। করোনা মহামারীর জেরে সারা বিশ্বে যখন খেলাধুলো বন্ধ, তখন সেনার প্রাথমিক ট্রেনিং নিয়ে রাখবেন টটেনহ্যামের তারকা ফুটবলার সন হিউং-মিন।

দক্ষিণ কোরিয়ার সরকারি নিয়ম অনুযায়ী দেশের সকল সুস্থ শরীরের পুরুষকে ১৮ থেকে ৩৫ বছর বয়সের মধ্যে ২১ মাস বাধ্যতামূলকভাবে সেনাবাহিনীতে কাজ করতে হয়। ছাড় পাওয়া যায় আন্তর্জাতিক মঞ্চে দেশকে গর্বিত করতে পারলে। ২৭ বছরের সন এশিয়ান গেমস থেকে দেশকে গোল্ড মেডেল এনে দেন। ফলে তাঁকে বাধ্যতামূলকভাবে সেনাবাহিনীতে যোগ দিতে হয়নি।

করোনা ভাইরাসের জন্য প্রিমিয়র লিগ আপাতত বন্ধ। মে মাসের আগে ইংল্যান্ডে পুনরায় ফুটবল শুরু হবে না বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। এই ঘোষণার পরেই দেশে ফেরার সিদ্ধান্ত নেন টটেনহ্যামের কোরিয়ান তারকা। আপাতত দেশে ফিরে কোয়ারান্টাইনে রয়েছেন তিনি। কোয়ারান্টাইন পর্ব শেষ হলেই তিনি রওনা দেবেন জেসু আইল্যান্ডে।

তারকা ফুটবলারের এজেন্ট জানিয়েছেন, 'কোয়ারান্টাইন শেষ হলেই ২০ এপ্রিল সন রওনা দেবেন জেসু আইল্যান্ডে। সেখানে নৌসেনার ৯ম ব্রিডেগে ৩ সপ্তাহের প্রাথমিক ট্রেনিং নেবেন তিনি। আগে এই ট্রেনিং পর্ব ছিল ৪ সপ্তাহের। ২০১৯ থেকে তা এক সপ্তাহ কমিয়ে দেওয়া হয়েছে।'

চলতি মরশুমেই অ্যাস্টন ভিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচের সময় হাত ভেঙেছিলেন সন। গত ফেব্রুয়ারিতে তাঁর হাতে অস্ত্রোপচার হয়।

বন্ধ করুন