বাংলা নিউজ > ময়দান > ক্যাপ্টেন একাই ১৭৫, বাকিদের অবদান প্রায় কিছুই নেই, এমন একার কাঁধে ম্যাচ জেতানোর নজির ক্রিকেটে খুব বেশি নেই
একা ম্যাচ জেতালেন কুয়েত অধিনায়ক। ছবি- এসিসি।
একা ম্যাচ জেতালেন কুয়েত অধিনায়ক। ছবি- এসিসি।

ক্যাপ্টেন একাই ১৭৫, বাকিদের অবদান প্রায় কিছুই নেই, এমন একার কাঁধে ম্যাচ জেতানোর নজির ক্রিকেটে খুব বেশি নেই

  • অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপে অবিশ্বাস্য ইনিংস খেলেন কুয়েত অধিনায়ক।

ক্রিকেটে কার্যত একার কাঁধে ম্যাচ জেতানোর ছবি খুব অপরিচিত নয়। তবে বাকিদের অবদান ছাড়াই ক্যাপ্টেনকে এভাবে দায়িত্ব নিয়ে একা ম্যাচ জেতাতে খুব কমই দেখা গিয়েছে। মঙ্গলবার অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপে বি-গ্রুপের শেষ ম্যাচে নেপালকে ১ উইকেটের সংক্ষিপ্ত ব্যবধানে পরাজিত করে কুয়েতের যুব দল। রোমাঞ্চকর ম্যাচে ব্যাট হাতে কুয়েতকে একা জয় এনে ক্যাপ্টেন মিত ভাবসার।

টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নেপাল ৪২.৩ ওভারে ২৩৯ রানে অল-আউট হয়ে যায়। বিবেক মাগার ৫০, বসির আহমেদ ৫৬, মহম্মদ আদিল ৪৯ ও শের মাল্লা ২১ রান করেন। ৩টি করে উইকেট নেন মির্জা আহমেদ ও আব্দুল সাদিক। ২টি করে উইকেট পকেটে পোরেন হেনরি থমাস ও মহম্মদ বাস্তকি।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে একপ্রান্ত দিয়ে ধারাবাহিকভাবে উইকেট হারাতে থাকে কুয়েত। তবে ওপেন করতে নেমে অপর প্রান্ত দিয়ে ঝড়ের গতিতে রান তুলতে থাকেন ভাবসার। একসময় ২২৮ রানে ৯ উইকেট হারিয়ে বসেছিল কুয়েত। থমাসকে সঙ্গে নিয়ে শেষ উইকেটের জুটিতে দলের জয় নিশ্চিত করেন কুয়েত অধিনায়ক।

উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, ভাবসার একাই ১৭৫ রান করে অপরাজিত থাকেন। ১৪৯ বলের ইনিংসে তিনি ২৪টি চার ও ১টি ছক্কা মারেন। বাকিদের মধ্যে অপর ওপেনার সালদানহার ২৫ রান ছাড়া আর কারও বিশেষ অবদান নেই দলের জয়ে। দুই ওপেনার ছাড়া কুয়েতের বাকি ৯ জন ব্যাটসম্যানের ব্যক্তিগত সংগ্রহ যথাক্রমে ২, ০, ১, ১, ৫, ০, ৭, ০ ও অপরাজিত ০।

৭ বল বাকি থাকতে ম্যাচ জেতে কুয়েত। সঙ্গত কারণেই ম্যাচের সেরা ক্রিকেটার নির্বাচিত হয়েছেন কুয়েত অধিনায়ক ভাবসার।

বন্ধ করুন