ভারত-বাংলাদেশের পাঁচজন ক্রিকেটারকে শাস্তি দিল বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থা (ছবি-সংগ্রহীত)
ভারত-বাংলাদেশের পাঁচজন ক্রিকেটারকে শাস্তি দিল বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থা (ছবি-সংগ্রহীত)

U19 World Cup Final:ধাক্কাধাক্কির ঘটনায় ভারত-বাংলাদেশের পাঁচ ক্রিকেটারের শাস্তি

  • ধাক্কাধাক্কির ঘটনায় আইসিসি কোড অব কন্ডাক্ট -এর ২.২১ ধারা লঙ্খন করেছে তিন বাংলাদেশি ক্রিকেটার-তৌহিদ হৃদয়, শামিম হোসেন ও রকিবুল হাসান এবং টিম ইন্ডিয়ার আকাশ সিং ও রবি বিষ্ণোই।

রবিবার অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ফাইনালে ভারতকে পরাজিত করে ইতিহাস রচনা করেছে বাংলাদেশ। তবে ম্যাচের শেষে দুইদলের প্লেয়ারদের ধাক্কাধাক্কির ঘটনা সেই রুদ্ধশ্বাস ফাইনালের রঙ অনেকখানি ফিকে করেছে।

বাংলাদেশের প্রথম ক্রিকেট বিশ্বকাপ জয়ের আনন্দের মাঝেই ধাক্কাধাক্কি বিতর্ক নিয়ে কম শোরগোল হয়নি দুই দেশের ক্রিকেট মহলে। আগেই জানা গিয়েছিল, গোটা বিষয়টিতে কড়া অবস্থান নিয়েছে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থা। এবার আইসিসি-র শাস্তির মুখে পড়ল ঘটনার সঙ্গে জড়িয়ে থাকা তিন বাংলাদেশি ও দুই ভারতীয় ক্রিকেটার। মঙ্গলবার ভোরে আইসিসি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, রবিবার দক্ষিণ আফ্রিকার পোচেফস্ট্রুমে ফাইনালে ধাক্কাধাক্কির ঘটনায় আইসিসি কোড অব কন্ডাক্ট এর ২.২১ ধারা লঙ্খন করেছে তিন বাংলাদেশি ক্রিকেটার-তৌহিদ হৃদয়, শামিম হোসেন ও রকিবুল হাসান এবং টিম ইন্ডিয়ার আকাশ সিং ও রবি বিষ্ণোই।

আইসিসির আচরণবিধির ৩ নম্বর ধারা ভাঙায় বাংলাদেশে তৌদিদ হৃদয় ও শামিম পেয়েছেন যথাক্রমে ১০ ও ৮ সাসপেনশন পয়েন্ট-যা ৬ ডিমেরিট পয়েন্টের সমান। অন্যদিকে রকিবুল ৪ সাসপেশন পয়েন্ট পেয়েছেন যা ৫ ডিমেরিট পয়েন্টে সমান।

ভারতের আকাশ সিং ৮ সাসপেশন পয়েন্ট ও ৬ ডিমেরিট পয়েন্ট পেয়েছেন। ম্যাচ শেষে ধাক্কাধাক্কির ঘটনায় রবি বিষ্ণোই ৫ সাসপেনশন পয়েন্ট ও ৫ ডিমেরিট পয়েন্ট পয়েছেন। তবে ২৩ ওভারে অভিষেক দাসকে আউট করার পর অশ্লীল ভাষা ব্যবহারের জন্য তাঁর খাতায় আরও ২ ডিমেরিট পয়েন্ট যোগ হয়েছে আইসিসির ২.৫ ধারা ভাঙায়। পাঁচজন ক্রিকেটারই এই শাস্তি মেনে নিয়েছেন। এই শাস্তির ফলে আগামী দু বছর সিনিয়র বা অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেটে শাস্তি ভোগ করবেন এই পাঁচ ক্রিকেটার।

সোমবার আইসিসির ম্যাচ রেফারি গ্রায়েম ল্যাব্রয়ের জমা দেওয়া রিপোর্ট অনুসারেই শাস্তি পেলেন দুই দেশের এই পাঁচ ক্রিকেটার।

কী হয়েছিল ফাইনালে?

জয়ের পর বাংলাদেশের কয়েকজন খেলোয়াড় উত্তেজিত অঙ্গভঙ্গি করেন। অশ্রাব্য ভাষা প্রয়োগের অভিযোগে এক বাংলাদেশি খেলোয়াড়কে ধাক্কা মারেন এক ভারতীয় খেলোয়াড়। তা নিয়ে দুই দলের মধ্যে প্রায় হাতাহাতি হওয়ার উপক্রম হয়। যদিও ভারতের কোচ পরশ মামরে মাঠে নেমে এসে পরিস্থিতি শান্ত করেন।



এক সাসপেনশন পয়েন্ট মানেই একটি ওয়ানডে বা টি-টোয়েন্টি ম্যাচে, অনূর্ধ্ব-১৯ বা সিনিয়র কিংবা এ দলের হয়ে একটি ম্যাচ খেলতে না পারার শাস্তি। সে অনুযায়ী আইসিসির বড় শাস্তির মুখে তৌহিদ হৃদয়, শামিম হোসেন ও রকিবুল হাসান, আকাশ সিং ও রবি বিষ্ণোই।



বন্ধ করুন