বাংলা নিউজ > ময়দান > লিভারপুল বাধা অতিক্রম করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ চারে চেলসির মুখোমুখি রিয়াল
রিয়াল মাদ্রিদ কোচ জিনেদিন জিদান। ছবি- রয়টার্স। (REUTERS)
রিয়াল মাদ্রিদ কোচ জিনেদিন জিদান। ছবি- রয়টার্স। (REUTERS)

লিভারপুল বাধা অতিক্রম করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ চারে চেলসির মুখোমুখি রিয়াল

  • চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে ছিটকে গিয়ে সহজ সুযোগ নষ্ট করা নিয়েই আক্ষেপ করেন লিভারপুল ক্লাবের সহ-অধিনায়ক জেমস মিলনার।

অধিনায়ক সার্জিও রামোস-সহ দলে নেই একাধিক তারকা। তাও অনায়াসেই লিভারপুলকে হারিয়ে (দু'লেগ মিলি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ চারে জায়গা পাকা করে নিল জিনেদিন জিদানের রিয়াল মাদ্রিদ। ম্যানেজার হিসেবে নিজের চতুর্থ চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেতাবের লক্ষ্যে জিদানের পরবর্তী গাঁট চেলসি।

মাদ্রিদে প্রথম লেগে ৩-১ গোলে জয়ের সুবাদে সেমিফাইনালের দিকে এক পা বাড়িয়েই ছিল রিয়াল। কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে জিতে বিগত ৬০ বারের মধ্যে ৪৭ বার সেমিফাইনালের টিকিট পাকা করতে সফল হয় রিয়াল। অপরদিকে লিভারপুলের দখলে প্রথম লেগে হারলেও প্রায় দ্বিতীয় লেগে জিতে সেমিফাইনালে প্রবেশ করার রেকর্ড। তাই ম্যাচ ঘিরে বেশ উত্তেজনা ছিল দর্শকমহলে।  তবে ফিরতি লেগে অ্যানফিল্ডে ম্যাচ গোলশূন্য শেষ হওয়ায় আবারও একবার নিজেদের ১৪ তম চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেতাব জয়ের লক্ষ্যে একধাপ এগিয়ে গেল রিয়াল। 

শুরুটা ভালোই করেছিলেন মহম্মদ সালাহরা। ম্যাচের মাত্র দু'মিনিটের মাথায় সাদিও মানের বাড়ানো বলে মাদ্রিদ জালে বল জড়িয়ে দেওয়ার সুযোগ হাতছাড়া করেন সালাহ। লিভারপুলের স্বভাবচিত গেগেন প্রেসিংয়ে কিছুটা নড়বড়ে দেখায় স্পেনের চ্যাম্পিয়নদের। সময় গড়ালে ম্যাচের রাশ কিছুটা নিজেদের দখলে আনেন টনি ক্রুসরা। তবে প্রথমার্ধে বারংবার মাদ্রিদ গোলে আক্রমণ হানাতে থাকে লিভারপুল। প্রথমার্ধের শেষের দিকে সহজ সুযোগ পেয়েও গোলে বল রাখতে ব্যর্থ হন জর্জিনিয়ো ওয়াইন্যালডম। দ্বিতীয়ার্ধেও ছবিটা প্রায় একই রকম দেখায়। শুরুতেই রবার্তো ফিরমিনো সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি। মার্সিসাইডারদের আক্রমণ ধেয়ে আসলেও রিয়াল ডিফেন্ডারদের অনুশাসন এবং গোলের সামনে সঠিক পাসের অভাবে গোলের দরজা খুলতে ব্যর্থ হন লিভারপুল ফুটবলাররা। 

ম্যাচ জিতে খুশি রিয়াল কোচ জিদান বলেন, ‘একটা কঠিন মরশুমে আমরা যেভাবে ফিরে এসেছি, তাতে আমি খুব খুশি। দলের সকলেই একত্রিত হয়ে একে অপরকে সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসছে। এটাই এই দলের সাফল্যের চাবিকাঠি।’ তবে এর ফলে পরের বছর ইউরোপের সেরা ক্লাব টুর্নামেন্টে খেলা অনেকটাই অনিশ্চিত হয়ে গেল লিভারপুলের। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে ছিটকে গিয়ে সহজ সুযোগ নষ্ট করা নিয়েই আক্ষেপ করেন লিভারপুল ক্লাবের সহ-অধিনায়ক জেমস মিলনার।

বন্ধ করুন