বাংলা নিউজ > ময়দান > আচমকা ঠুকঠুক ছেড়ে অ্যাটাকিং ব্যাটিং কেন করলেন, রহস্য ফাঁস পূজারার
জোহানেসবার্গে চেতেশ্বর পূজারা (ছবি:এএনআই) (ANI)

আচমকা ঠুকঠুক ছেড়ে অ্যাটাকিং ব্যাটিং কেন করলেন, রহস্য ফাঁস পূজারার

  • আক্রমণাত্মক ব্যাটিং অ্যাপ্রোচ নিয়ে বলতে গিয়ে পূজারার দাবি, এই ধরনের পিচে আপনি জানেন না কোন বলটা এমন আসবে যেটা আপনি খেলতেই না পেরে আউট হয়ে যাবেন। তাই এই পিচে দ্রুত রান করাটাও লক্ষ্য রাখা উচিত।

শুভব্রত মুখার্জি: দীর্ঘদিন ধরে ব্যাটে রান পাচ্ছিলেন না ভারতের মিডল অর্ডার ব্যাটার চেতেশ্বর পূজারা। অনেক বিশেষজ্ঞের মতামত ছিল, পূজারার ব্যাটিংয়ের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত ডিফেন্সিভ অ্যাপ্রোচ তার ব্যাটে রানের খরার অন্যতম কারণ। ওয়ান্ডারার্স, জোহানেসবার্গে দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে অবশ্য চেতেশ্বর পূজারা ধরা দেন এক ভিন্ন রুপে। প্রথম বল থেকেই তিনি আক্রমণাত্মক খেলা শুরু করেন। জোহানেসবার্গের পিচ ব্যাটারদের জন্য বেশ কঠিন, যা বলার আর অপেক্ষা রাখে না। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে তার আক্রমণাত্মক ব্যাটিং অ্যাপ্রোচ নিয়ে বলতে গিয়ে পূজারার দাবি, এই ধরনের পিচে আপনি জানেন না কোন বলটা এমন আসবে যেটা আপনি খেলতেই না পেরে আউট হয়ে যাবেন। তাই এই পিচে দ্রুত রান করাটাও লক্ষ্য রাখা উচিত।

দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় দিনের শেষে ৪২ বলে ৩৫ রান করে অপরাজিত ছিলেন পূজারা। তৃতীয় দিনে তিনি ৬২ বলে তার অর্ধশতরান সম্পন্ন করেন। তারপরে ৫৩ রান করে রাবাদার বলে এলবিডব্লিউ হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। দিনের শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি তার আক্রমণাত্মক ব্যাটিং অ্যাপ্রোচকে বিশ্লেষণ করেন।

পূজারা জানান ‘জেনে শুনে এই অ্যাপ্রোচ নিয়েছিলাম (পজিটিভ ব্যাটিং)। পিচের দিকে তাকিয়েই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। পিচে অসমান বাউন্স রয়েছে। এখানে ব্যাটিং করা একেবারেই সহজ নয়। যখন আপনি একটি আলগা বল পাচ্ছেন তখন আপনাকে রান করার চেষ্টা করতেই হবে। আপনি জানেন না কখন আপনি এমন একটা বল পাবেন যা খেলার অযোগ্য। ফলে এটা আমার গেমপ্ল্যানেই (আক্রমণাত্মক) ছিল। আমি আলগা বল পেলে সেখান থেকে রান করবই। এটা ছিল লক্ষ্য। তবে আলাদা আমি কিছু করিনি। আমি ব্যাটিংটা ভালো করছিলাম। আজকের দিনে সবকিছুই আমার প্ল্যানমাফিক হয়েছে।’

বন্ধ করুন