বাংলা নিউজ > ময়দান > ট্রোলের যোগ্য জবাব দিলেন আরেক ‘ইন্দ্রনগরকা গুন্ডা’ ভেঙ্কটেশ প্রসাদ
ভেঙ্কটেশ প্রসাদ। ছবি- পিটিআই। (PTI)
ভেঙ্কটেশ প্রসাদ। ছবি- পিটিআই। (PTI)

ট্রোলের যোগ্য জবাব দিলেন আরেক ‘ইন্দ্রনগরকা গুন্ডা’ ভেঙ্কটেশ প্রসাদ

  • বিদ্রুপকারীর মঙ্গল কামনাও করেন টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন তারকা।

সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে গত কয়েক দিন ধরে চর্চার কেন্দ্রবিন্দুতে রাহুল দ্রাবিড়। বিজ্ঞাপনে তাঁর রাগী নতুন রূপ আলোড়ন সৃষ্টি করেছে নেটমাধ্যমে। বিজ্ঞাপনে রাগী দ্রাবিড় দাবি করেন তিনি ‘ইন্দ্রনগরকা গুন্ডা’। এরপরেই বিভিন্নমহলের লোকজন তাঁকে অনুসরন করে নিজস্ব রাগীরুপ দেখাতে শুরু করেন। দীপিকা পাডুকোন থেকে ভেঙ্কটেশ প্রসাদ বাদ যাননি তারকাও। 

১৯৯৬ সালের বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচে পাকিস্তানের আমির সোহল ও প্রসাদের বাকযুদ্ধের কথা দর্শকদের মনে এখনও তাজা। দারুন ছন্দে নিজস্ব ৫১ রানে ব্যাট করছিলেন আমির। ম্যাচের ১৫ নম্বর ওভারে স্বভাবোচিত আগ্রাসী ভঙ্গিমায় প্রসাদের বলে এগিয়ে চার মেরে তাঁকে বাউন্ডারি থেকে বল কুড়িয়ে আনার ইশারা করেন পাকিস্তানি টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান। কিন্তু ঠিক পরের বলেই আমিরের উইকেট ছিটকে দেন ভারতীয় বোলার। এরপরে আমিরকে সাজঘরের দিকে নির্দেশ করে আনন্দে মাতেন প্রসাদ।

২৫ বছর আগে ঘটা ওই ঘটনাটিকে নিজের ‘ইন্দ্রনগরকা গুন্ডা’ মুহূর্ত বলে দাবি করে দু'টি দৃশ্যের ছবি পোস্ট করেন প্রসাদ। এরপরেই একজন ব্যাক্তি বলেন ওই মুহূর্তটাই প্রসাদের কেরিয়ারের একমাত্র প্রাপ্তি। তবে ট্রোলের যোগ্য জবাব দেন তিনি। ভারতীয় জাতীয় দলের প্রাক্তন বোলিং কোচ লেখেন, ‘আরও কিছু স্বীকৃতি পরের জন্য জমিয়ে রেখেছি। ১৯৯৯ সালে ঠিক তার পরের বিশ্বকাপেই ম্যাঞ্চেস্টারে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ২৭ রানে পাঁচ উইকেট নই, যেখানে পাকিস্তান ২২৮ রান তাড়া করতে ব্যর্থ হয়। ভগবান আপনার মঙ্গল করুন।’

বন্ধ করুন