বাংলা নিউজ > ময়দান > ভিডিয়ো: বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ক্যাচ মিসের কারণ কী? দুরন্ত ক্যাচ ধরা ইশান কিষাণ দিলেন উত্তর

ভিডিয়ো: বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ক্যাচ মিসের কারণ কী? দুরন্ত ক্যাচ ধরা ইশান কিষাণ দিলেন উত্তর

শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে দুরন্ত ক্যাচ ধরলেন ইশান কিষাণ

এই ম্যাচে তরুণ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান ইশান কিষাণ একটি চমকপ্রদ ক্যাচ নিয়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছেন। শ্রীলঙ্কার ইনিংসের ৮তম ওভারের সময়, ফাস্ট বোলার উমরান মালিকের বোলিংয়ে ইশান কিষাণ চিতার গতিতে দৌড়ে গিয়ে এবং তারপর ডাইভ দিয়ে দুর্দান্ত ক্যাচ ধরেছিলেন।

মুম্বইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে টিম ইন্ডিয়া নিজেদের বছরের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ২ রানে হারিয়েছে। এই ম্যাচে তরুণ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান ইশান কিষাণ একটি চমকপ্রদ ক্যাচ নিয়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছেন। শ্রীলঙ্কার ইনিংসের ৮তম ওভারের সময়, ফাস্ট বোলার উমরান মালিকের বোলিংয়ে ইশান কিষাণ চিতার গতিতে দৌড়ে গিয়ে এবং তারপর ডাইভ দিয়ে দুর্দান্ত ক্যাচ ধরেছিলেন।

আরও পড়ুন… Ranji Trophy: আবারও সেঞ্চুরি, পারফরমেন্স দিয়ে কি টিম ইন্ডিয়ার দরজা ভেঙে দেবেন সরফরাজ খান

এদিকে, ম্যাচের পরে টিম ইন্ডিয়ার ফিল্ডিং কোচ টি দিলীপের সঙ্গে কথা বলার সময়, কিষাণ ক্যাচটি সম্পূর্ণ করার প্রক্রিয়া সম্পর্কে একটি অন্তর্দৃষ্টি দিয়েছেন। টুইটারে বিসিসিআইয়ের শেয়ার করা ভিডিয়ো অনুসারে, ইশান কিষাণ এই ক্যাচের জন্য আগে থেকেই অনেক পরিশ্রম করেছেন। ম্য়াচের পরে টি দিলীপের সঙ্গে কথা বলার সময়ে ইশান বলেন, ‘আমি মনে করি যখন আমরা বাংলাদেশে খেলছিলাম তখন ক্যাচ নেওয়ার ক্ষেত্রে কিছু সমস্যা দেখা গিয়েছিল, যেখানে কলিং জোরে এবং স্পষ্ট ছিল না। তাই, আমার পরিকল্পনা ছিল যে আমি যদি ক্যাচ ধরার জন্য যাই তবে কলটি পরিষ্কার করব।’

আরও পড়ুন… PSG-তে রাজার মতো ফিরলেন বিশ্বকাপজয়ী মেসি, পেলেন গার্ড অফ অনার

২৪ বছর বয়সী এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান আরও বলেন, ‘আমি বিভ্রান্তি তৈরি করতে চাই না, তাই আমি কল করেছিলাম।’ তিনি আরও বলেন, ‘এমনকি প্র্যাকটিস সেশনেও, আমি দিলীপ স্যারের সঙ্গে কথা বলেছিলাম যে উচ্চ ক্যাচগুলিতে কলিং খুব গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে। আমরা টেনিস র‌্যাকেট এবং সফটবল দিয়ে এটি অনুশীলন করেছিলাম। কঠোর পরিশ্রমের প্রতিফলই দেখা গিয়েছে।’ ফিল্ডিং কোচ টি দিলীপ তখন ক্যাচের জন্য দৌড়ানোর সময় তার গতির জন্য ইশান কিষাণের প্রশংসা করেন।

ভারত বনাম শ্রীলঙ্কা প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচের কথা বললে, টিম ইন্ডিয়া প্রথমে ব্যাট করে স্কোর বোর্ডে ১৬২ রান তুলেছিল। একপর্যায়ে ৯৫ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল ভারত। এর পরে, অলরাউন্ডার দীপক হুডা এবং অক্ষর প্যাটেলের জুটি দ্রুত ৬৭ রানের পার্টনারশিপ গড়ে এবং এরফলে ভারতীয় দল ভালো জায়গায় অবস্থান করে। এরপর ভারতীয় তরুণ বোলাররা তাদের মেধা দেখিয়ে শ্রীলঙ্কার ব্যাটসম্যানদের চাপে ফেলতে থাকেন। ফাস্ট বোলার শিবম মাভি ও উমরান মালিক একসঙ্গে ৬ উইকেট নিয়ে প্রতিপক্ষ দলের পিঠ ভেঙে দেন। শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক দলের আশা বাঁচিয়ে রাখলেও তাঁর আউটের ফলে ভারতের পক্ষে ম্যাচ জেতা সহজ হয়ে গিয়েছিল। পরে ম্যাচের শেষ ওভারে দুরন্ত বোলিং করে রুদ্ধশ্বাস ম্যাচ জিতে নেয় হার্দিক পান্ডিয়ার টিম ইন্ডিয়া।

বন্ধ করুন