বাংলা নিউজ > ময়দান > অতীতের সাফল্যের গুরুত্বই নেই কোহলির কাছে, সমালোচনায় সরব কাইফ
বিরাট কোহলি এবং মহম্মদ কাইফ।
বিরাট কোহলি এবং মহম্মদ কাইফ।

অতীতের সাফল্যের গুরুত্বই নেই কোহলির কাছে, সমালোচনায় সরব কাইফ

  • বিরাটের ব্যাটিং যোগ্যতা নিয়ে সন্দেহের অবকাশ নেই। বর্তমান ক্রিকেট বিশ্বে তিনি অন্যতম সেরা ক্রিকেটার। জয়ের পরিসংখ্যানও তাঁর পক্ষে। অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে তাঁর নেতৃত্ব ভারতকে দুরন্ত জয় এনে দিয়েছে। কিন্তু তা সত্ত্বেও দলগঠন নিয়ে সম্প্রতি প্রশ্নের মুখে পড়েছেন তিনি।

বিরাট কোহলির দল গঠনের পদ্ধতি নিয়ে এ বার প্রশ্ন তুললেন ২০০৩-এ ইংল্যান্ডে ন্যাটওয়েস্ট ট্রফি জয়ের নায়ক মহম্মদ কাইফ। ভারতের জাতীয় দলের এই প্রাক্তন ক্রিকেটার জানিয়েছেন, দল গঠনে অতীতের পারফরম্যান্স গুরুত্ব পাচ্ছে না। এই মুহূর্তে যাঁদের ফর্ম ভাল, তাঁদেরই জায়গা হচ্ছে চূড়ান্ত একাদশে। কিন্তু এ ভাবে দল নির্বাচন ঠিক হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন কাইফ। সরাসরি না বললেও ঘুরিয়ে বিরাটের দল গঠন পদ্ধতিকে তুঘলকি আচরণের সঙ্গে তুলনা করেছেন তিনি।

বিরাটের ব্যাটিং যোগ্যতা নিয়ে সন্দেহের অবকাশ নেই। বর্তমান ক্রিকেট বিশ্বে তিনি অন্যতম সেরা ক্রিকেটার। জয়ের পরিসংখ্যানও তাঁর পক্ষে। অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে তাঁর নেতৃত্ব ভারতকে দুরন্ত জয় এনে দিয়েছে। কিন্তু তা সত্ত্বেও দলগঠন নিয়ে সম্প্রতি প্রশ্নের মুখে পড়েছেন তিনি। তাঁর বিরুদ্ধে সবচেয়ে বড় অভিযোগ তিনি মুহুর্মুহু দল পরিবর্তন করেন। এই প্রসঙ্গ তুলে নিজের মতপ্রকাশ করেছেন কাইফ। জানিয়েছেন, ভারতীয় দলের খেলোয়াড়রাও এটা মেনে নিয়েছে যে, কোহলির নেতৃত্বে এ ভাবেই চলবে দল।

কাইফ বলেন, ‘এই ভারতীয় দলে কোনও স্বচ্ছতা নেই। আমাদের এটা মেনে নিতে হচ্ছে। কিন্তু কোহলির এই দল গঠনের পদ্ধতি ঠিক নয়। একেবারে ফর্মের তুঙ্গে যে ক্রিকেটার রয়েছেন, তাঁকেই বিরাট চূড়ান্ত একাদশে ঢুকিয়ে নিচ্ছে।’ সঙ্গে কাইফ যোগ করেছেন, ‘এটাই কোহলির পথ। কিন্তু দিনের শেষে দেখতে হবে তাঁর অধিনায়কত্বে ভারত ক'টা আইসিসি ট্রফি জিতেছে। তাঁর নেতৃত্বে কিন্তু ভারত কোনও আইসিসি ট্রফি জেতেনি।’

কাইফের মতে, ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টের কাছে খেলোয়াড়দের অতীত পারফরম্যান্সের কোনও গুরুত্ব নেই। বলেন, ‘এই মুহূর্তের ফর্মই বিরাটের কাছে গুরুত্ব পায়। সেই কারণেই সূর্যকুমার যাদব, ঈশান কিষাণ দলে সুযোগ পান। কিন্তু শিখর ধাওয়ান দলে অনিয়মিত হয়ে পড়েন। রোহিত শর্মাকে বিশ্রামে চলে যেতে হয়। আসলে দলে কোনও ক্রিকেটারেরই জায়গা পাকা নয়। খেলোয়াড়রাও সেটা জানেন।’

বন্ধ করুন