বাংলা নিউজ > ময়দান > বাবর, কেন বা স্মিথের মধ্যে এরকম গুণ নেই, বিরাটের ভূয়সী প্রশংসায় গম্ভীর

বাবর, কেন বা স্মিথের মধ্যে এরকম গুণ নেই, বিরাটের ভূয়সী প্রশংসায় গম্ভীর

বিরাটের ভূয়সী প্রশংসায় গম্ভীর

বিরাট কোহলির ভূয়সী প্রশংসা শোনা গেল গৌতম গম্ভীরের গলায়। তাঁর মতে, বিরাট যে ধরে ধরে ব্যাটিং করতে করতে, হঠাৎ করেই আক্রমণাত্মক খেলা খেলতে পারেন, সেটা বাবর আজম অথবা কেন উইলিয়ামসনরা পারেন না।

শুভব্রত মুখার্জি: অস্ট্রেলিয়াতে চলতি টি-২০ বিশ্বকাপে স্বপ্নের ফর্মে রয়েছেন বিরাট কোহলি। ইতিমধ্যেই চারটি ইনিংস খেলে তিনটি অর্ধশতরান করে ফেলেছেন তিনি। আবার তিনটি অর্ধশতরানের ইনিংসেই তিনি থেকেছেন অপরাজিত। রবিবার সুপার ১২ পর্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে জিম্বাবোয়ের মুখোমুখি হবে ভারত। এই ম্যাচ জিতলেই ভারতের সেমিফাইনালে যাওয়া নিশ্চিত। আর সেই ম্যাচের আগেই বিরাট কোহলির ভূয়সী প্রশংসা শোনা গেল গৌতম গম্ভীরের গলায়। তাঁর মতে বিরাট যে ধরে ধরে ব্যাটিং করতে করতে, হঠাৎ করেই আক্রমণাত্মক খেলা খেলতে পারেন, সেটা বাবর আজম অথবা কেন উইলিয়ামসনরা পারেন না।

বাংলাদেশের বিরুদ্ধে বিরাটের ব্যাটিং নিয়ে, অফিসিয়াল ব্রডকাস্টার স্টার স্পোর্টসকে গৌতম গম্ভীর জানান 'ভারতের এই ব্যাটিং লাইনআপে, ম্যাচের শেষ ১০ ওভারে কোহলির ভূমিকা হল আক্রমণাত্মক খেলার। এর পাশাপাশি ইনিংসের শুরুতে ওর কাজ হল একটা দিক ধরে রাখা। আপনি যখন বাবর আজম বা অন্য ক্রিকেটারদের দেখবেন তাদের কারও এই ধরে ব্যাট করার রোলটা নেই। প্রথম ১০ ওভারে যখন পরিস্থিতি কঠিন হয়, ভারত তাড়াতাড়ি উইকেট হারায়, তখন কোহলির দায়িত্ব থাকে পার্টনারশিপ গড়ে খেলার। ঠিক যেমনটা বাংলাদেশ ম্যাচে ও করেছে। রাহুলের সঙ্গে পার্টনারশিপ গড়ে ও দলকে একটা স্থিরতা দিয়েছে।'

গম্ভীর আরও যোগ করেন, 'রাহুল যখন খেলছিল তখন কোহলি ধরে ধরে খেলছিল। রাহুল আউট হওয়ার পর, যখন সূর্যকুমার আসে তখন বিরাট আক্রমণাত্মক খেলা শুরু করে। আর এমনভাবে ব্যাটিং তুমি তখনই করতে পারবে যখন তোমার কাছে সেই স্কিলটা রয়েছে। বিশ্ব ক্রিকেটে খুব কম ক্রিকেটের কাছে এমন ধরে ধরে ব্যাটিং এবং প্রয়োজনে আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করার ক্ষমতাটা রয়েছে। কেন উইলিয়ামসন, স্টিভ স্মিথ, বাবর আজমদের এই গুণটা নেই। একমাত্র বিরাট কোহলির এটা রয়েছে।'

বন্ধ করুন